ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১

ঝড়ে বিদ্যুতের খুঁটি পড়ে বিদ্যুৎহীন ৪’শ পরিবার

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট

প্রকাশিত: ১৭:৪৭, ৩০ মার্চ ২০২৩

ঝড়ে বিদ্যুতের খুঁটি পড়ে বিদ্যুৎহীন ৪’শ পরিবার

বিদ্যুৎহীন ৪’শ পরিবার

বাগেরহাটের মোংলায় বৈদ্যুতিক খুঁটি পড়ে এক নারী ইউপি সদস্যের বসতঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। বুধবার গভীররাতে ঝড়ে পল্লী বিদ্যুৎতের খুঁটি ভেঙ্গে বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়নে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তবে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। বিদ্যুতের খুটি ভেঙ্গে পড়ায় রাত থেকেই ওই এলাকার ৪ শতাধিক পরিবার বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে আছে।

বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান উদয় শংকর রায় বলেন, গভীররাতে আকস্মিক ঝড়ে স্থানীয় ৪, ৫, ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের নারী সদস্য চন্দ্রিকা রায়ের (৩২) বসতঘরের ওপর পল্লী বিদ্যুৎতের খুঁটি ভেঙ্গে পড়ে। এত তাদের বসতঘর বিধ্বস্থ হয়। তবে ঘরে থাকা চন্দ্রিকা ও তার স্বামী-সন্তান অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যান।

এদিকে খুঁটি পড়ার খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে জনবল ও প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে ঘটনাস্থলে আসেন বাগেরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির রামপালের ভাগা কার্যালয়ের ডি জি এম নওশের আলী।

তিনি বলেন, আমি ২৫ জন শ্রমিক ও প্রয়োজনীয় উদ্ধার সামগ্রী নিয়ে ঘটনাস্থলে এলেও ইউপি সদস্য চন্দ্রিকাসহ স্থানীয়রা ঘরের ক্ষতিপূরণের দাবিতে কাজে বাধা দেন। আলোচনা শেষে দুপুর ২টার দিকে পিলারটি সরানোর কাজ শুরু হয়। কিন্তু ঘরের ক্ষতিপূরণ না দিলে স্থানীয়রা নতুন করে পিলার বসাতে দেবেন না বলে বাধা সৃষ্টি করেছেন। 

তাঁর ভাষায়, এটি প্রাকৃতিক দুর্যোগ। এ নিয়ে আমাদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। কথাবার্তা চলছে। যদি নতুন পিলার বসাতে না দেওয়া হয় তাহলে আমরা চলে যাবো। তাতে এলাকার ৪০০ পরিবার অন্ধকারে থাকবে। এরপরও দেখছি কি করা যায়।

সংরক্ষিত নারী সদস্য চন্দ্রিকা রায় বলেন, পিলার পড়ে আমার পুরো ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে, ‘ঘরের সব মালামাল নষ্ট হয়ে গেছে। ক্ষতিপূরণ না দিলে আমি নতুন করে পিলার বসাতে দেবো না।’ 
 

এমএস

×