ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১

ধান খেতে জাতীয় পতাকা, শাকে মানচিত্র ও স্মৃতিসৌধ

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও দেশপ্রেমের অনন্য উপস্থাপনা

রফিকুল ইসলাম আধার, শেরপুর

প্রকাশিত: ০০:৩৯, ২৬ মার্চ ২০২৩

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও দেশপ্রেমের অনন্য উপস্থাপনা

কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের ছাত্র ও শিক্ষকরা মিলে ধানখেতে জাতীয় পতাকা অঙ্কন করেন

স্বাধীনতা দিবসের মাসকে সামনে রেখে শিক্ষার্থীদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ও দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধকরণের লক্ষ্যে শেরপুরের কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (এটিআই) এর ছাত্র ও শিক্ষকরা মিলে ধানখেতে জাতীয় পতাকা আর সবজি খেতে শাক গাছ দিয়ে মানচিত্র ও স্মৃতিসৌধ তৈরি করেছেন। এতে ছাত্র, শিক্ষক ও স্থানীয়রাও অনেক খুশি। স্বাধীনতার মাসে এটিকে জনসাধারণের সামনে প্রদর্শন করার জন্য  শুক্রবার আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের হুইপ বীর মুক্তিযোদ্ধা আতিউর রহমান আতিক এমপি। 
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, শেরপুর কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (এটিআই) প্রায় ৪৩ একর জমির বিশাল এলাকায় ধান ও সবজির প্রদর্শনী প্লট। এর মাঝে সবার দৃষ্টি কাড়ে বিশাল এক পতাকা। ধান খেতের ক্যানভাসে তৈরি করা হয়েছে ১৬০ ফুট দৈর্ঘ্য, ৯৬ ফুট প্রস্থ ও ৩২ ফুট বৃত্তের ব্যাসার্ধের জাতীয় পতাকা। পতাকার সবুজ অংশ বঙ্গবন্ধু-১০০ ও হাইব্রিড এবং মাঝখানে বৃত্তের লাল অংশ দুলালী সুন্দরী ধানের চারা দিয়ে সাজানো হয়েছে। পতাকার মাঝখানে লাল বৃত্ত দিয়ে বুঝানো হয়েছে লাখো শহীদের রক্ত ও সবুজ অংশ দিয়ে বুঝানো হয়েছে বাংলার প্রকৃতিকে।

পাশেই সবজির প্লটে লাল শাক ও পাট শাকের চারা দিয়ে তৈরি করা হয়েছে বাংলাদেশের মানচিত্র ও স্মৃতিসৌধ। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও বঙ্গবন্ধুকে জানতে কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শেরপুর জেলায় এটাই ব্যতিক্রমী ও প্রথম উদ্যোগ গ্রহণ করায় প্রশংসা জানিয়েছেন সরকারদলীয় হুইপ বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আতিউর রহমান আতিক এমপি। তিনি বলেন, আমাদের ছেলে-মেয়েদের সত্যিকারের ইতিহাস জানতে হবে। বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধকে জানাতে এখানে যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এতে আমি তাদেরকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

×