ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১

কমেছে ঝরে পড়ার হার

উপবৃত্তি বদলে দিয়েছে চরাঞ্চলের শিক্ষা

শেখ আব্দুল আওয়াল গফরগাঁও থেকে

প্রকাশিত: ০০:৩৬, ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

উপবৃত্তি বদলে দিয়েছে চরাঞ্চলের শিক্ষা

সরকারের দেওয়া অর্থে পোশাক পরে বিদ্যালয়ে শিশুর

প্রিতি, রোকাইয়া, রাকিব ৫ম শ্রেণির ছাত্র। কথা হচ্ছিল তাদের সঙ্গে। আনন্দ, উল্লাস করছিল চর আলগী নয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের খেলার মাঠে। কথা বলতে বলতে বিভিন্ন প্রশ্নে শিশুরা হাসতে হাসতে বলেন, আমরা সরকারি টাকায় লেখাপড়া করি। শেখ হাসিনা আমাদের পোশাক, ব্যাগ, জুতা, বই, সকল কিছু ফ্রি দিতেছে। তাইলে লেখাপড়া করব না কেন? শুধু চরাঞ্চলের ওই প্রতিষ্ঠানেই নয় উপজেলার ২শ’ ৩৮ বিদ্যালয়ের ৪২ হাজার ছাত্র/ছাত্রী মনে করে সরকারের দেওয়া উপবৃত্তি মানে শিশু শিক্ষার্থীদের কাছে মাসিক বেতন। 
প্রাইমারি স্কুল মানেই শিশু শিক্ষার্থীদের হেসেখেলে বেড়ানো। এই হাসি-খেলার মধ্যেই তাদের শিক্ষা। কিন্তু জানুয়ারির কনকনে শীতে স্কুল শুরুর প্রথম মাসে সাধারণত থাকে না তেমন শিক্ষার্থীদের ভিড়। এবার তার ব্যতিক্রম ছিল ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার চর আলগী নয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। সেখানে ভোর থেকেই কোলাহল শোনা গেল শিশুদের।
ছোট আফরোজা মায়ের হাত ধরে শরীর ঢেকে, কাঁপতে কাঁপতেই স্কুলে এসেছে। স্কুলে এলো মহাখুশিতে। এমন শীতের দিনেও স্কুল আসলা কেন? প্রশ্নটা শুনে আফরোজা চোখ বড় করে বলল, ‘স্কুল বিগাইদ করি না। বিগাইদ করলে নগদের বেতন পামু না।’ বেতন মানে প্রাথমিক শিশুদের উপবৃত্তি। শুধু গফরগাঁওয়েই নয়, সারাদেশেই বাচ্চাদের স্কুলে উপস্থিতির চিত্রটা বদলে দিয়েছে এই উপবৃত্তি। উপজেলার আউলাজুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের (ভারপ্রাপ্ত) প্রধান শিক্ষিকা জান্নাতুল ফেরদৌস ও চর আলগী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা কৃষ্ণা কাবেরী দাশ বলেন, আমি বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানাই- তিনি কোমলমতি শিশুদের উপবৃত্তি দিচ্ছেন বিদ্যালয়ে ফিরিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য। উপবৃত্তি পাওয়ার ফলে কমে গেছে ঝরে পড়ার হার। সামগ্রিকভাবে বেড়ে গেছে উপস্থিতি। এটা শিক্ষার মানকে আরও বাড়িয়ে  দেবে।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. সাইফুল মালেক বলেন, চরাঞ্চলের ছাত্রছাত্রীর হার সরকারের উপবৃত্তি দেওয়ার কারণে আগের তুলনায় অনেক বেড়ে গেছে। বিশেষ করে বাচ্চারা ইউনিফর্মের টাকা পেয়ে এখন আর বাড়িতে থাকতে চায় না। স্কুলগুলোতে উপস্থিতির হারও বেড়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবিদুর রহমান বলেন, উপবৃত্তি দেওয়ায় সামগ্রিকভাবে শিক্ষার মান অনেক বেড়ে গেছে। সরকারের এই উদ্যোগ দেশের জন্য অনেক ভালো। আমরা ধাপে ধাপে সরকারের সকল কর্মসূচি তদারকি করছি। এছাড়াও প্রতিসপ্তাহে কোনো না কোনো বিদ্যালয় পরিদর্শন করে ক্লাস নিচ্ছি।

×