২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

জাতির পিতা ও স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি : ড. হাছান মাহমুদ

প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারী ২০২০, ০৮:৪৪ পি. এম.
জাতির পিতা ও স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি : ড. হাছান মাহমুদ

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, জাতির পিতা ও স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতিকে মাথা উঁচু করে চলতে শিখিয়েছেন। আমরা কাউকে অন্ধ অনুকরণ করতে চাই না, বরং আমরা এমন উন্নত রাষ্ট্র গড়তে চাই যাতে অন্যদের অনুকরণীয় হতে পারি।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের আবদুল সালাম হলে জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০ জানুয়ারী ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের ভাষণ পর্যালোচনা শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাখতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের দৃশ্যপটের কথা বর্ণনা করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর পিতা লুৎফর রহমান দাঁড়িয়ে আছেন, জনতার ভীড় ঠেলে প্রিয় ছেলের (বঙ্গবন্ধু) কাছে যাবার কোন উপায় নেই। মাসের পর মাস হানাদার পাকিস্তানিদের হাতে বন্দী থেকে মুক্ত হয়ে পরিবারের সদস্যদের কাছে যেতে পারেননি বঙ্গবন্ধু। বিমানবন্দর থেকে সরাসরি যান সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। কারণ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ছিলেন জনতার নেতা। লাখো-কোটি মানুষ সেদিন তাঁকে প্রাণের মমতায় ঘিরে রেখেছিলেন। এ কারণেই বঙ্গবন্ধু আমাদের জাতির পিতা এবং সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি।

বঙ্গবন্ধু যে স্বপ্নের সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন, তাঁর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে বাংলাদেশ আজ সেই পথে অদম্য গতিতে এগিয়ে চলছে উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, মানবিক-সামাজিক-অর্থনৈতিক সকল সূচকে আমরা পাকিস্তানকে এমনকি কিছু সূচকে ভারতকেও পেছনে ফেলেছি। শুধু তাই নয়, দেশে বিএনপির নেতিবাচক রাজনীতি না থাকলে সবক্ষেত্রে আরো অগ্রগতি হতো। তবে শুধু অর্থনৈতিকভাবে উন্নত হলেই চলবে না, উন্নত জাতি হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। আর এ সেজন্য জাতির পিতার অনবদ্য আদর্শকে হৃদয়ে ধারণ ও লালনের বিকল্প নেই।

আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ উপ-কমিটি আয়োজিত এ সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন দলটির সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ও বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক ড. আবুল বারাকাত। বাংলাদেশ হেরিটেজ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব ওয়ালিউর রহমান, আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ সম্পাদক শামসুন্নাহার চাঁপা প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারী ২০২০, ০৮:৪৪ পি. এম.

২৮/০১/২০২০ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

জাতীয়



শীর্ষ সংবাদ: