২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

প্রশাসনে ওএসডি ২৯০ কর্মকর্তা, চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ ১৭৭

প্রকাশিত : ২০ জানুয়ারী ২০২০

সংসদ রিপোর্টার ॥ দেশে মোট ১২ লাখ ১৭ হাজার ৬২ সরকারী চাকরিজীবী রয়েছেন। সরকারী কর্মকর্তাদের মধ্যে ২৯০ কর্মকর্তা বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ পেয়েছেন ১৭৭ জন। এছাড়া এই মুহূর্তে দেশে ৩ লাখ ১৩ হাজার ৮৪৮ পদ শূন্য রয়েছে।

স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে রবিবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তরপর্বে পৃথক তিনটি প্রশ্নের জবাবে এসব তথ্য জানান জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরহাদ হোসেন।

বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজের প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে ওএসডি সম্পর্কে ব্যাখ্যা দেন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। তিনি জানান, সরকারী কর্মকর্তাগণকে দাফতরিক বিভিন্ন কারণে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) হিসেবে পদায়ন করা হয়। জনস্বার্থে যেকোন কর্মকর্তার ক্ষেত্রেই এটি একটি নিয়মিত পদায়ন হিসেবেই বিবেচিত হয়। সাধারণত বিশেষ কিছু কারণে কর্মকর্তাগণকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওএসডি হিসেবে পদায়ন করা হয়।

প্রতিমন্ত্রী জানান, ওএসডি হয় সেসব কারণে তাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে- উচ্চতর পদে পদোন্নতি প্রদানের পর, উচ্চতর শিক্ষা/লিয়েন/প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণের জন্য/অংশগ্রহণ শেষে ফেরত আসা। অবসরোত্তর ছুটি বা (পিআরএল) এর অব্যবহিত পূর্বে। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার অসুস্থতা ব্যক্তিগত কারণে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে, বিভাগীয় মামলা দুর্নীতি মামলা রুজু হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে, তিন মাসের বেশি ছুটির ক্ষেত্রে।

প্রতিমন্ত্রী জানান, বর্তমানে উল্লেখিত সকল কারণে বিভিন্নস্তরে মোট ২৯০ কর্মকর্তা বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। এছাড়াও বর্তমানে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় বিভাগ এবং সংযুক্ত অধিদফতর পরিদফতর দফতর, সংস্থায় বিভিন্ন পর্যায়ে সর্বমোট ১৭৭ কর্মকর্তা-কর্মচারী ও ব্যক্তিবর্গ চুক্তিভিত্তিক নিয়োজিত আছেন।

জাতীয় পার্টির মুজিবুল হক চুন্নুর প্রশ্নের লিখিত জবাবে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী জানান, বর্তমানে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে ৩ লাখ ১৩ হাজার ৮৪৮ পদ শূন্য আছে। তিনি বলেন, শূন্যপদ পূরণের লক্ষ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় হতে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের ক্যাডার পদসমূহ নিয়োগ প্রদান করা হয়ে থাকে। বর্তমানে বাংলাদেশে সরকারী কর্ম কমিশনের মাধ্যমে নিয়মিত নিয়োগ প্রদান করা হচ্ছে।

তিনি জানান, ২০১৯ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ৩৭তম বিসিএসের মাধ্যমে ১ হাজার ২৪৮ কর্মকর্তাকে বিভিন্ন ক্যাডারে, ৩৯তম বিসিএসের মাধ্যমে ৪ হাজার ৬১২ জনকে স্বাস্থ্য ক্যাডারে মিলিয়ে সর্বমোট ৫ হাজার ৮৫৯ কর্মকর্তাকে নিয়োগ করা হয়। এছাড়া ৪০তম বিসিএসের মাধ্যমে ১ হাজার ৯১৯টি বিভিন্ন ক্যাডারে শূন্যপদে নিয়োগের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। সরকারী অফিসসমূহ শূন্য পদে লোক নিয়োগ একটি চলমান প্রক্রিয়া।

প্রকাশিত : ২০ জানুয়ারী ২০২০

২০/০১/২০২০ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: