২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১২ ফাল্গুন ১৪২৬, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলার শক্তি আওয়ামী লীগেরও আছে

প্রকাশিত : ১২ ডিসেম্বর ২০১৯
  • বিএনপির উদ্দেশে কাদের

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, বিএনপি আন্দোলনের নামে সহিংসতা চালালে জনগণের জানমাল রক্ষার জন্য আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা সমুচিত জবাব দেবে। আর যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলা করার শক্তি আওয়ামী লীগেরও আছে।

বুধবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। আগামী ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস এবং ২০-২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন সফল করার লক্ষ্যে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ এই বর্ধিত সভার আয়োজন করে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আজ (বৃহস্পতিবার) বেগম খালেদা জিয়ার জামিনের রায় দেবে, এ করণে তারা বুধবার আগুন দিয়েছে। তারা অগ্নিসন্ত্রাসের হুমকি দিচ্ছে। যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলা করার শক্তি আওয়ামী লীগের আছে। বিএনপিসহ অপশক্তিদের এটা মনে রাখতে হবে, এটা ১৯৭৫ কিংবা ২০০৪ সাল নয়। দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা সতর্ক থাকবেন যাতে বিএনপি রায়কে কেন্দ্র করে কোন ধরনের নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে না পারে। নিজে থেকে কিছু করবেন না, তবে আক্রান্ত হলে চুপ থাকবেন না।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আগামী দিনগুলো খুব চ্যালেঞ্জিং। আমাদের যারা প্রতিপক্ষ তারা ক্ষমতার জন্য চক্রান্তের পথ বেছে নিয়েছে। বেগম জিয়ার জামিনকে কেন্দ্র করে তারা সর্বোচ্চ আদালতকে হুমকি দিচ্ছে। একই সঙ্গে তারা আদালতের বিরুদ্ধেও অঘোষিত যুদ্ধ ঘোষণা করছে খালেদা জিয়ার রায়কে কেন্দ্র করে। তাই সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আসন্ন ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে ক্লিন ইমেজের স্বচ্ছ ভাবমূর্তি নিয়ে ভোটারদের কাছে যেতে চাই। শুদ্ধি অভিযানে বিতর্কিতরা বাদ যাবে। অপকর্মের সঙ্গে জড়িত কোন বিতর্কিতরা যেন কমিটিতে আসতে না পারে। খারাপ লোকদের দিয়ে দল ভারি করবেন না। রুলিং পার্টির সম্মেলন কোন বিশৃঙ্খলা ছাড়া হয়েছে, যা আওয়ামী লীগ ছাড়া অন্য কারোর পক্ষে সম্ভব হয়নি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী দিনগুলো খুব চ্যালেঞ্জিং, প্রতিপক্ষ সহজে ছেড়ে দিবে না। সব কিছুতেই তাদের সন্দেহ। প্রতিটি বিষয়ে তাদের নেতিবাচক রাজনীতির বহির্প্রকাশ। সংখ্যালঘু নির্যাতন বিএনপির শাসনামলে একাত্তরের মতো ঘটেছিল।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম মান্নান কচিসহ উত্তরের নেতারা বক্তব্য রাখেন।

প্রকাশিত : ১২ ডিসেম্বর ২০১৯

১২/১২/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: