১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

হাইকোর্ট এজলাসে বঙ্গবন্ধুর ছবি টাঙ্গানো হচ্ছে

প্রকাশিত : ১১ অক্টোবর ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সুপ্রীমকোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের এজলাস কক্ষগুলোতে জাতির পিতার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি টাঙ্গানো হচ্ছে। এর আগে ১ অক্টোবর আপীল বিভাগে প্রধান বিচারপতির এজলাস কক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি টাঙ্গানো হয়। পাশাপাশি অধস্তন আদালতগুলোতে ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি টাঙ্গানো হয়েছে। সুপ্রীমকোর্টের অবকাশ শেষ হওয়ার আগেই সব এজলাসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি টাঙ্গানো শেষ হবে বলে জানা গেছে। দীর্ঘ ৪০ দিন অবকাশ শেষে ১৩ অক্টোবর রবিবার সুপ্রীমকোর্ট খুলছে।

হাইকোর্টের আদেশের পর সারাদেশের অধস্তন আদালতগুলোতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি টাঙ্গানো হয়। ২৯ আগস্ট দুই মাসের মধ্যে সারাদেশের প্রতিটি আদালত কক্ষে/এজলাসে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি সংরক্ষণ ও প্রদর্শনের নির্দেশ প্রদান করে হাইকোর্ট। একই সঙ্গে একটি রুল জারি করে আদালত। আদালত কক্ষে জাতির জনকের প্রতিকৃতি সংরক্ষণ ও প্রদর্শনে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন বেআইনী এবং আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না- তা জানতে চাওয়া হয়েছে ওই রুলে। আইন সচিব, গৃহায়ন ও গণপূর্ত সচিব, অর্থ সচিব, সুপ্রীমকোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল এবং হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্ট্রারকে এর জবাব দিতে বলা হয়েছে। আদালত কক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি টাঙ্গানোর নির্দেশনা বাস্তবায়নে কতটা অগ্রগতি হল, তাও ওই দুই মাসের মধ্যে জানাতে বলেছে হাইকোর্ট। বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চ এক রিটের ওপর প্রাথমিক শুনানি নিয়ে এ আদেশ প্রদান করেছেন। আইনজীবী সুবির নন্দী দাস ২১ আগস্ট হাইকোর্টে এ রিটটি দায়ের করেন।

হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে বিচারপতি তারিক উল হাকিমের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ, বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি খিজির আহমেদ চৌধুরীর হাইকোর্ট বেঞ্চ, বিচারপতি শেখ হাসান আরিফের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চের এজলাস কক্ষে বঙ্গবন্ধুর ছবি টাঙ্গানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ নিজে উপস্থিত থেকে তার এজলাস কক্ষে বঙ্গবন্ধুর ছবি টাঙ্গানো পর্যবেক্ষণ করেন। হাইকোর্টের আদেশের পর ২৩ সেপ্টেম্বর আইন মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগ থেকে একটি নোটিস জারি করা হয়েছে। সিনিয়র সহকারী সচিব (প্রশাসন) তৈয়বুল হাসান স্বাক্ষরিত ওই নোটিসে বলা হয়, সুপ্রীমকোর্টের আইনজীবী সুবীর নন্দী দাসের রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ২৯ আগস্ট বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ দেশের সব আদালতের এজলাস/কোর্টরুমে আগামী দুই মাসের মধ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি টাঙ্গানো ও সংরক্ষণের নির্দেশনা দিয়েছে। এ অবস্থায় অধস্তন আদালতের সব এজলাস/কোর্টরুমে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি টাঙ্গানো ও সংরক্ষণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়। নির্দেশনা অনুযায়ী সুপ্রীমকোর্ট প্রশাসন আদেশ বাস্তবায়নে পদক্ষেপ নেয়।

প্রকাশিত : ১১ অক্টোবর ২০১৯

১১/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: