মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ আগস্ট ২০১৭, ৭ ভাদ্র ১৪২৪, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

রোগের নাম মাম্পস্

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৬

মাম্পস্ একটি ভাইরাল সংক্রমণ। যার কারণে লালাগ্রন্থি ফুলে যায়। লালাগ্রন্থির ফুলে যাওয়াকে সায়ালেডিনাইটিস বলা হয়। মাম্পস্ একটি প্যারামিক্সো ভাইরাস সংক্রমণ যা লালার মাধ্যমে সঞ্চালিত হয়ে থাকে। বয়স্করাও এ রোগে আক্রান্ত হতে পারে। রোগের সুপ্তাবস্থা দুই থেকে তিন সপ্তাহ। রোগীদের সাধারণত জ্বর, দুর্বলতা, মাথা ব্যথা এবং লালাগ্রন্থির ফুলাভাব থাকে। লালাগ্রন্থির মধ্যে সাধারণত প্যারোটিড লালাগ্রন্থির ফুলাভাব বেশি থাকে। অনেক সময় জ্বরের মাত্রা তীব্র থাকে।

লক্ষণসমূহ

(ক) ব্যথাযুক্ত, ফুলা প্যারোটিড লালাগ্রন্থি। (খ) মাথা ব্যথা। (গ) উচ্চ তাপমাত্রা, অসুস্থতা অনুভব করা।

সাইন বা চিহ্নসমূহ

(ক) জ্বর। (খ) এক দিকের বা দুই দিকের ব্যথাযুক্ত প্যারোটিড লালাগ্রন্থি। (গ) অন্যান্য লালাগ্রন্থির মধ্যে সাবম্যান্ডিবুলার ও সাবলিংগুয়াল লালাগ্রন্থিও আক্রান্ত হতে পারে।

জটিলতা

প্যানক্রিয়েটাইটিস, অর্কাইটিস (অন্ডকোষের প্রদাহ), ওফোরাইটিস (ডিম্বাশয়ের প্রদাহ) এবং খুব কম ক্ষেত্রে মেনিনজাইটিস এবং এনসেফেলাইটিস।

চিকিৎসা

এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যে, রোগীর শরীরে পানির পরিমাণ ঠিক রাখতে হবে। রোগীর মলমূত্র ত্যাগ ঠিক থাকে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। শরীরে ব্যথা এবং জ্বরের জন্য প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধ প্রদান করা যেতে পারে। এ ছাড়া প্রয়োজন হলে পেনিসিলিন জাতীয় এন্টিবায়োটিক প্রদান করা যেতে পারে। তবে প্রয়োজন না হলে এন্টিবায়োটিক না দেয়াই ভাল। এ সময় মুখের স্বাস্থ্য ভাল রাখতে হবে এবং প্রয়োজনে কসমেটিক মাউথওয়াস ব্যবহার করতে হবে।

ডাঃ মোঃ ফারুক হোসেন

মুখ ও দন্তরোগ বিশেষজ্ঞ

মোবাইল : ০১৮১৭-৫২১৮৯৭

ই-মেইল : dr.faruqu@gmail.com

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৬

২৮/০৬/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: