১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

উৎপাদন খরচ বেশি হওয়ায় কমছে না বিদ্যুতের দাম সংসদে বিদ্যুত প্রতিমন্ত্রী


সংসদ রিপোর্টার ॥ উৎপাদন মূল্য কমে আসলেও গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম কমানোর কোনো পরিকল্পনা সরকারের নেই বলে জানিয়েছেন বিদ্যুত প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। আজ রবিবার টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তর পর্বে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য রুস্তম আলী ফরাজীর প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী জানান, সম্প্রতি দেশে জ্বালানি তেলের মূল্য হ্রাসের ফলে প্রতি ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুতের উৎপাদন ব্যয় ৬ টাকা ২৭ পয়সা থেকে কমে ৫ টাকা ৬০ পয়সায় দাঁড়িয়েছে। কিন্তু প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের বাল্ক বিষয়ক মূল্য ৪ টাকা ৯০ পয়সা। জ্বালানি খরচ কিছুটা হ্রাস পেলেও প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের উৎপাদন মূল্য বিক্রয় মূল্য অপেক্ষা এখনও গড়ে ৭০ পয়সা বেশি এবং এই অর্থ সরকার সাধারণত বাজেটারি সাপোর্ট হিসেবে এই খাতে প্রদান করে থাকে। যেহেতু বাল্ক বিক্রয় মূল্য বিদ্যুতে গড় উৎপাদন ব্যয় হতে কম সেহেতু সরকারের বিদ্যুতের মূল্য কমানোর বিষয়ে আপাততঃ কোন পরিকল্পনা নাই।

সরকারি দলের সদস্য গাজী ম ম আমজাদ হোসেন মিলনের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জানান, নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুত সরবরাহ এবং বিদ্যুত ঘাটতি রোধ করতে স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এই পরিকল্পনার আওতায় ২০২১ সালে ২৪ হাজার মেগাওয়াট, ২০৩০ সালে ৪০ হাজার মেগাওয়াট ও ২০৪১ সালের মধ্যে ৬০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। তাছাড়াও মোট সঞ্চালন লাইনের পরিমাণ ২০২১ সালের মধ্যে ১৯ হাজার সার্কিট কিলোমিটার এ উন্নীত করার পদক্ষেপ গ্রহণের পাশাপাশি ২০২১ সালের মধ্যে দেশের সব অবিদ্যুতায়িত গ্রামগুলো পর্যায়ক্রমে বিদ্যুত সুবিধা পৌঁছানোর লক্ষ্যে আরো ১ লাখ ৫০ হাজার কিলোমিটার নতুন বিতরণ লাইন নির্মাণের মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

চাহিদার তুলনায় গ্যাসের উৎপাদন কিছুটা কম ॥ জাতীয় পার্টির বেগম সালমা ইসলামের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ জানান, বর্তমানে গ্যাসের চাহিদার তুলনায় উৎপাদন কিছুটা কম। এমতাবস্থায় গ্যাস নেটওয়ার্ক বৃদ্ধি করলে পরিস্থিতি আরও জটিল হবে। তাই বিদ্যমান অবস্থায় শিল্পখাতে সীমিত হারে গ্যাস সংযোগ প্রদান করা হচ্ছে। তবে চাহিদার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে গ্যাসের উৎপাদন বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে মন্ত্রণালয় থেকে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

তিনি জানান, গত কয়েক বছরে গ্যাসের উৎপাদন যথেষ্ট বৃদ্ধি পেলেও এখনও দেশে বিদ্যমান গ্রাহকদের চাহিদা অনুযায়ী গ্যাস সরবরাহ করা অনেক ক্ষেত্রে সম্ভব হচ্ছে না। বর্তমানে দেশে গ্যাস চাহিদার পরিমাণ দৈনিক ৩ হাজার ২শ’ মিলিয়ন ঘনফুটের অধিক। এর বিপরীতে দৈনিক গড়ে প্রায় ২ হাজার ৭৪০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ করা হচ্ছে। তাই গ্যাসের বিদ্যমান নতুন এলাকায় নেটওয়ার্ক বর্ধিত না করে শিল্পখাতে সীমিত হারে গ্যাস সংযোগ প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়া শুধুমাত্র সরকার ঘোষিত বিশেষ ইকোনোমিক জোনসমূহে গ্যাস সরবরাহের লক্ষ্যে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: