মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
১৭ আগস্ট ২০১৭, ২ ভাদ্র ১৪২৪, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

স্ট্রেস হলে ওজন বেড়ে যায়

প্রকাশিত : ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫

অনলাইন ডেস্ক ॥ একটা সময় ছিল যখন মানুষ সাধারণ ভাবে জীবনযাপন করত। এবং তাতেই খুশি থাকত তারা। ফলে সব মানুষই ছিল সুস্থ ও সবল। এখন কতকগুলো শব্দ মানুষকে এমন ভাবে জড়িয়ে ফেলেছে যে, তা থেকে মুক্তি না পেলে জনজীবন নষ্ট হয়ে যাবে। সেই শব্দগুলো কী? সেগুলো হল : স্ট্রেস, টেনশন, ডিপ্রেশন। এ সবের ফলে মানুষ নিজের সৌন্দর্য, স্বাভাবিক জীবনযাত্রা হারিয়ে ফেলছে। স্ট্রেস এমন একটা শব্দ যার ফলে মানুষ মনুষ্যত্বের অর্থ হারিয়ে ফেলছে। মানুষ এখন কাজের জায়গা বা পড়াশোনার জায়গায় এত প্রতিযোগিতার মুখোমুখি হচ্ছে যে যখন তখন ডিপ্রেশনের কবলে চলে যাচ্ছে। মানুষের উচিত সবথেকে আগে বুঝতে পারা তারা কী চায়। কী পেলে জীবনটা ঠিকঠাক চলে। সব কিছুর পিছনে না ছুটে সঠিক লাইফস্টাইল নির্বাচন করা। এখনকার পুরুষ-মহিলারা ‘সব চাই আরও চাই’ করতে গিয়ে ঘরে-বাইরের ব্যালান্স হারিয়ে ফেলছে। এতে ডিপ্রেশনের আশঙ্কা থাকে। যদি আপনাকে বেশি কাজ করতে হয় তবে নিজের জীবনযাত্রাকে একটা নিয়মের মধ্যে আনতে হবে। তাতে মন ও শরীর সুস্থ থাকবে। কোয়ালিটি টাইমটা ভাল কাজে ব্যয় করা যাবে। স্ট্রেস, টেনশন, ডিপ্রেশন থেকে বাঁচতে হলে একটা টাইম ম্যানেজমেন্ট করতে হবে। স্ট্রেস হলে যা যা হতে পারে : ১) ওজন বেড়ে যায়, কারণ তখন খাওয়া বাড়ে। ২) হরমোন ডিসব্যালান্স হয়ে যায়। ৩) মানসিক চাপে ত্বক খারাপ যেমন কালো ও শুষ্ক হয়ে যায়, ব্রণ হয়। সোরাইসিস, রোসিয়া, এগজিমা, ফেস ড্যামেজ হয়, অ্যালার্জি বেড়ে যায়। ত্বক প্রাণহীন ও স্পর্শকাতর হয়ে পড়ে।

স্ট্রেস থেকে মুক্তি পাওয়ার কিছু উপায়: ১) বাইরের কাজ বাইরেই সেরে আসবেন। ২) বাড়ি ফিরে অ্যারোমাযুক্ত অয়েল, যেমন ল্যাভেন্ডার, জ্যাসমিন (রোজমেরি) তেল গরম জলে ফেলে স্নান করুন। ডিস্ট্রেসড হয়ে যাবেন। ৩) বডি মাসাজ করা উচিত, এতে রক্তসঞ্চালন বাড়ে এবং শরীরকে স্ট্রেস ও টেনশনমুক্ত করে। ৪) যে ব্যক্তি আপনাকে সব সময় বিরক্ত করে বা যার সঙ্গে মতের অমিল হয় তাকে এড়িয়ে চলুন বা নিজের জীবন থেকে বাদ দিন। ৫) রোজ মেডিটেশন অর্থাৎ ধ্যান করা উচিত। এতে মন ভাল থাকে। ৬) মন ভাল থাকলে শরীরের সৌন্দর্যও বাড়ে। ৭) কাজের জায়গায় বেশি স্ট্রেস হলে হাল্কা নেক মাসাজ করুন। ঠান্ডা জল খান। শরীর ও মন শান্ত হবে। ৮) বেশি টেনশন হলে পার্লারে গিয়ে বিউটি ট্রিটমেন্ট করান। ত্বক ও শরীর উজ্জ্বল হবে। স্ট্রেস কমে যাবে। ৯) ডিপ রিল্যাক্সেশন এবং ডিপ ব্রিদিং একসঙ্গে করলে স্ট্রেস কম হবে।

১০) ডার্ক চকোলেট, স্কিমড মিল্ক, ওটস, সালমন মাছ, পালং শাক, বেরি, আখরোট— এই ধরনের খাবার খেলে স্ট্রেস দূর হয়ে যায়। টেনশন কমে। ১১) নিয়মিত যোগ করুন। ১২) হাল্কা গান শুনুন। ১৩) সুগন্ধিযুক্ত হারবাল প্রোডাক্ট ব্যবহার করুন। সুগন্ধি স্ট্রেস দূর করে। ১৪) সবুজ ঘাসের ওপর খালি পায়ে হাঁটুন। স্ট্রেস কম হবে। ১৫) নিজেকে স্ট্রেসমুক্ত রাখতে অ্যালকোহল, কফি বা ক্যাফিন কম খাবেন। ১৬) ৮ ঘণ্টা ঘুমোন, স্ট্রেস কম হবে। ১৭) স্ট্রেস ও টেনশন হলে মাথায় খুসকি হয়। চুল পড়ে যায়। সে জন্য রোজ ড্যানড্রাফযুক্ত শ্যাম্পু ব্যবহার করা উচিত। চুল পড়া কমে যাবে। ১৮) স্ট্রেস হলে হরমোন ডিসব্যালান্স হয়। ফলে মুখে ব্রণ হয়। রোজ ভাল করে হারবাল ফেসিয়াল ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করা উচিত। লবঙ্গযুক্ত ক্রিম লাগালে ব্রণ কম হবে। ১৯) টেনশন বা স্ট্রেস হলে মুখে পিগমেন্টেশন হয়। কালো হয়ে যায় মুখ। রোজ দুধ দিয়ে মুখ ধুলে মুখ পরিষ্কার থাকবে। ২০) স্ট্রেস বা টেনশন হলে সোরাসিস বা রোসিয়া হলে ময়শ্চারাইজার লাগাতে হবে। চিকিৎসককেও দেখানো উচিত।

স্ট্রেস-টেনশন দূর করে জীবনকে সুন্দর করে তুলুন।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

প্রকাশিত : ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫

১৭/১২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: