২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

প্রধানমন্ত্রী নেদারল্যান্ডস যাচ্ছেন কাল ॥ সরকার কড়া প্রতিবাদ জানাবে এ্যামনেস্টির


কূটনৈতিক রিপোর্টার ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চারদিনের সফরে আগামীকাল মঙ্গলবার নেদারল্যান্ডস যাচ্ছেন। নেদারল্যান্ডস সফরকালে দুই দেশের মধ্যে ৫টি সমঝোতা স্মারক সই হবে। এছাড়া চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ে ঢাকায় আসছেন নেদারল্যান্ডসের রানী ম্যাক্সিমা কেরুটি। এদিকে মুক্তিযুদ্ধ ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার নিয়ে এ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের দেয়া বিবৃতির বিষয়ে কড়া প্রতিবাদ জানাবে সরকার। যুক্তরাজ্যভিত্তিক এই আন্তর্জাতিক সংগঠনের কাছে চিঠি

পাঠিয়ে জবাব চাওয়া হবে। রবিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। এছাড়া ঢাকার বিমসটেক ও সার্সো অফিসের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক চুক্তি করেছে সরকার।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেদারল্যান্ডস সফর নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ও পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক বক্তব্য রাখেন। সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের উত্তরে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম জানান, মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে যুক্তরাজ্যভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন এ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের দেয়া বিবৃতির কঠিন জবাব দেয়া হবে। আমরা এ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের বিবৃতির শক্ত জবাব দিতে প্রস্তুতি নিচ্ছি। তারা বিবৃতিতে যেটা বলেছে, তা অগ্রহণযোগ্য। দু’একদিনের মধ্যেই তাদের কাছে জবাব পাঠানো হবে। এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, তাদের (এ্যামনেস্টি) বিরুদ্ধে যা করার সব করব। এছাড়া তাদের বিবৃতির জবাব পাঠানো হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

উল্লেখ্য, যুদ্ধাপরাধে মৃত্যুদ-প্রাপ্ত বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী এবং জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদের রিভিউ শুনানির আগে ২৭ অক্টোবর গণমাধ্যমে বিবৃতি পাঠিয়ে বিচার প্রক্রিয়া নিয়ে প্রশ্ন তোলে এ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। তাদের বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, ‘স্বাধীনতার পক্ষের শক্তিগুলোও গুরুতর অপরাধ করেছিল। তবে তাদের কারও বিরুদ্ধে তদন্ত হয়নি বা কাউকে বিচারের আওতায় আনা হয়নি’।

সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী জানান, নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটের আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ৩-৬ নবেম্বর এক সরকারী সফরে নেদারল্যান্ডস যাবেন। প্রধানমন্ত্রী ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে সরকার গঠনের পর ইউরোপে এটিই তাঁর প্রথম সরকারী সফর। পররাষ্ট্রমন্ত্রী, পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রীসহ ২৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হবেন। এছাড়াও ১৯ সদস্যের একটি বাণিজ্য প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে যাবেন।

আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, স্বাধীনতার পর থেকেই বাংলাদেশের পানিসম্পদ ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে নেদারল্যান্ডসের সহযোগিতা বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। বদ্বীপ রাষ্ট্র বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডসের মধ্যে বাংলাদেশ ডেল্টা প্ল্যান-২১০০, পানিসম্পদ ব্যবস্থাপনা, বন্যা নিয়ন্ত্রণ, নদী খনন, চর উন্নয়ন প্রভৃতি ক্ষেত্রে দীর্ঘদিনের সহযোগিতা ও বন্ধুত্বের সম্পর্ক বিদ্যমান রয়েছে। সম্প্রতি সময়ে নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে বিভিন্ন পর্যায়ে কূটনৈতিক যোগাযোগ ও আলোচনার মাধ্যমে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার পরিধি বৃদ্ধির লক্ষ্যে কৃষি গবেষণা, খাদ্য নিরাপত্তা, চামড়া ও চামড়া শিল্প, জাহাজ নির্মাণ, পাট ও পাটজাত শিল্প ইত্যাদি ক্ষেত্রসমূহ চিহ্নিত করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, গত ১৪-১৯ জুন তারিখে নেদারল্যান্ডসের বৈদেশিক বাণিজ্য ও উন্নয়ন সহযোগিতা বিষয়কমন্ত্রী লিলিয়ানে প্লাউমেন এবং অবকাঠামো ও পরিবেশ বিষয়ক মন্ত্রী মেলানে শাল্টি ঢাকা সফর করেন। সফরকালে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডসের মধ্যে বাংলাদেশ ডেল্টা প্ল্যানসহ (বদ্বীপ পরিককল্পনা) তিনটি সমঝোতা স্মারক সই হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরের উদ্দেশ্য তুলে ধরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডসের মধ্যে পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ক্ষেত্রে যেমন মানবসম্পদ উন্নয়নে প্রযুক্তিগত সহায়তা, তৈরি পোশাক শিল্প, শিক্ষা ও কৃষি ক্ষেত্রে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের প্রসার বৃদ্ধি করা। ডেল্টা (বদ্বীপ) ব্যবস্থাপনাসহ পানিসম্পদ ব্যবস্থাপনা, সমুদ্র ও নদী থেকে ভূমি সংযোজন ও পুনরুদ্ধার, ভূমি সংরক্ষণ, বন্যা প্রতিরোধ ব্যবস্থা, উপকূল রক্ষা, বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ, টেকসই উদ্যান ব্যবস্থাপনা, ভাসমান গ্রীন হাউজ ইত্যাদি ক্ষেত্রে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার পরিধি আরও নিবিড় ও শক্তিশালী করা। বর্তমানে বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ রফতানি বাজার ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন তথা ইউরোপসহ বিশ্ববাজারে আমাদের তৈরি পোশাকের অধিকতর মূল্য সংযোজনের মাধ্যমে উচ্চ মূল্যের সরবরাহ চেইনে উন্নীত করা।

সফরের সময় নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে ৫টি সমঝোতা স্মারক সই হবে বলে আশা করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। এসবের মধ্যে রয়েছে, নেদারল্যান্ডস ও বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মধ্যে রাজনৈতিক পর্যালোচনা বিষয়ে সমঝোতা স্মারক, বাংলাদেশ ফরেন সার্ভিস একাডেমি ও নেদার‌্যান্ডস ইনস্টিটিউট অব ইন্টরন্যাশনাল রিলেশন সংস্থার মধ্যে লেটার অব ইনটেন্ট বিষয়ে সমঝোতা স্মারক, বিজিএমইএর ফ্যাশন টেকনোলজি প্রতিষ্ঠান ও নেদারল্যান্ডসের নেয়ানরুড বিভির মধ্যে সমঝোতা স্মারক সই ইত্যাদি।

নেদারল্যান্ডস সফরকালে সেদেশের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক ও তাঁর সরকারী বাসভবনে আনুষ্ঠানিক নৈশভোজে অংশগ্রহণ করবেন। এছাড়া নেদারল্যান্ডসের রয়েল প্যালেসে রানী ম্যাক্সিমার সঙ্গে সাক্ষাত করবেন। নেদারল্যান্ডসের শীর্ষ স্থানীয় ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দকে নিয়ে আয়োজিত সেমিনারে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য দেবেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও জানান, নেদারল্যান্ডসের রানী ম্যাক্সিমা কেরুটি চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ে জাতিসংঘ মহাসচিবের অন্তর্ভুক্তিমূলক অর্থনীতির উন্নয়ন বিষয়ক বিশেষ উপদেষ্টা হিসেবে বাংলাদেশ সফর করবেন বলে আশা করা যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর নেদারল্যান্ডস সফর দু’দেশের মধ্যে সম্পর্ককে নতুন মাত্রা দান করবে এবং বৈশ্বিক অঙ্গনে বাংলাদেশের ভাবমূর্তিকে অধিকতর উজ্জ্বল করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

বিমসটেক ও সার্সোর সঙ্গে চুক্তি ॥ বঙ্গোপসাগরীয় অঞ্চলে বহুমুখী কারিগরি ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা বিষয়ক সংস্থা বিমসটেক ও দক্ষিণ এশীয় মান নিয়ন্ত্রণ সংস্থার (সার্সো) সঙ্গে পৃথক চুক্তি করেছে বাংলাদেশ সরকার। এই চুক্তির মধ্যে দিয়ে ঢাকায় ওই দুই সংস্থার প্রধান অফিসকে আনুষ্ঠানিকভাবে অনুমোদন দেয়া হলো। রবিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এই চুক্তি সই হয়। এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক, বিমসটেক মহাসচিব সুমিথ নাকানদালা ও সার্সো মহাপরিচালক ড. সৈয়দ হুমায়ুন কবির উপস্থিত ছিলেন। চুক্তি সই অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, গত বছর সেপ্টেম্বরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকায় বিমসটেক অফিস উদ্বোধন করেন। আর গত বছর এপ্রিলে ঢাকায় সার্সো অফিস চালু করা হয়। এখন আনুষ্ঠানিকভাবে এই দুই অফিসের সঙ্গে সরকার চুক্তি সই করল। সরকার আঞ্চলিক সহযোগিতাকে জোরদার করার লক্ষ্যে বিমসটেক ও সার্সোর সঙ্গে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে বলেও তিনি জানান।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: