২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

পার্লামেন্ট নির্বাচন সামনে রেখে টালমাটাল তুরস্ক


তুরস্ক এখন গভীর সঙ্কটে পড়েছে। এর ভবিষ্যত চরম উৎকণ্ঠায় রয়েছে। ন্যাশনালিস্ট মুভমেন্ট পার্টির (এমএইচপি) নেতা দেভলেত বাহসেলি রবিবার অনুষ্ঠেয় নির্বাচনকে সামনে রেখে এক নির্বাচনী প্রচার অভিযানে এ কথা বলেন। তিনি বলেন, তুর্কি জাতীয়তাবাদীরা ক্ষমতায় এলে বোমাবাজ, গুপ্তঘাতক ও হামলাকারীরা পালানোর জায়গা খুঁজবে। আমরাই হচ্ছি তুরস্কের নির্ভীক অভিভাবক। জাস্টিস এ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টির (একেপি) ১৩ বছরের শাসনের বিরুদ্ধে জাতীয়তাবাদী ভাষায় তীব্র সমালোচনার মধ্য দিয়ে এমএইচপির আবির্ভাব ঘটেছে রাজনৈতিক দল হিসেবে, যা উপেক্ষা করা সম্ভব নয়। দলটির প্রত্যাশা, রবিবারের নির্বাচনে তারা ১৪ থেকে ১৬ শতাংশ ভোট পাবে। এ সংখ্যক ভোট ভবিষ্যত সরকারে তাদের অংশগ্রহণ অত্যন্ত কঠিন হয়ে দাঁড়াতে পারে।

পাঁচ মাসের মধ্যে এটি হবে দ্বিতীয় নির্বাচন। একেপি জুনে পার্লামেন্টে নাটকীয়ভাবে সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারায় এবং তারপর জোট গঠনে ব্যর্থ হয়। প্রচার অভিযানে এ জ্বালাময়ী ভাষণ দেয়া সত্ত্বেও এমএইচপি আরও একটি ঝুলন্ত পার্লামেন্টে একেপি সরকারে যোগ দিতে সম্মত হতে পারে। কিন্তু প্রায় দু’দশক ধরে এমএইচপির নেতৃত্বে আসীনবাহসেলি খুবই দরকষাকষি করবেন বলে আশা করছেন। ১৯৬৯ সালে আলপারসøান তার্কিস প্রতিষ্ঠিত এমএইচপি ১৯৭০ ও ৮০-এর দশকে উগ্র চরমপন্থী দল হিসেবে অবস্থান ধরে রাখে। দলটির ছিল গ্রেউলভস জঙ্গী ইউনিট, যারা ডেথ স্কোয়াড পরিচালনা করত। গ্রে উলভসয়ের জঙ্গীরা অসংখ্য বামপন্থী কর্মী ও ছাত্রদের হত্যা করে। বাহসেলি এমএইচপির নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করেন ১৯৯৭ সালে এবং দলটিকে আজও মূলধারার আন্দোলনে পরিণত করার চেষ্টা করেন। কিন্তু দলটি চরমপন্থী অবস্থান থেকে সরে যায়নি। তাদের ভূমিকায় আশঙ্কা হচ্ছে, কামাল আতাতুর্ক অটোম্যান সাম্রাজ্যের ধ্বংসাবশেষ থেকে যে আধুনিক তুরস্ক প্রতিষ্ঠা করেছিলেন, তা লোপ পাওয়ার হুমকিতে রয়েছে। খবর এএফপির।

বিদেশীদের কাছে গর্ভ ভাড়া দেয়া যাবে না

সুপ্রীমকোর্টে শুনানি

ভারতে বিদেশীদের জন্য সারোগেট সার্ভিস (গর্ভ ভাড়া ব্যবসা) নিষিদ্ধ করার উদ্যোগ নিয়েছে দেশটির সরকার। বুধবার এ ব্যবসার বিষয়ে সুপ্রীমকোর্টে একটি পিটিশনের ওপর শুনানিকালে সরকারের প্রধান আইন কর্মকর্তা একথা জানিয়েছেন। খবর এএফপি ও জি নিউজ অনলাইনের।

ভারতে বিদেশীদের জন্য সারোগেসি মাতৃত্ব নিষিদ্ধ করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। বিদেশীদের জন্য সারোগেসি সার্ভিস রমরমা হয়ে উঠছে, টাইমস অব ইন্ডিয়ায় এ সম্পর্কিত নিবন্ধ প্রকাশিত হওয়ার পর সরকার এই উদ্যোগ নিয়েছে। সুপ্রীমকোর্টকে সরকার বিষয়টি অবগত করেছে। ভারতের সলিসিটর জেনারেল রঞ্জিত কুমার বুধবার সুপ্রীমকোর্টকে বলেন, ভারত বিশ্বের সারোগেসি রাজধানী হয়ে উঠুক সরকার এটি চায় না।