মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৬ আশ্বিন ১৪২৪, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

বস্ত্র খাতের উন্নয়নে দ্রুত ৫ সমস্যা সমাধান দাবি

প্রকাশিত : ২৬ অক্টোবর ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বস্ত্র খাতের উন্নয়নে পাঁচটি সমস্যা দ্রুত সমাধানের জন্য বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের প্রতি দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ স্পেশালাইজড টেক্সটাইল মিলস এ্যান্ড পাওয়ারলুম ইন্ডাস্ট্রিজ এ্যাসোয়িসেশন (বিএসটিএমআইপিইএ)। বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় সূত্রে এ কথা জানা গেছে।

মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, গত বুধবার বস্ত্র ও পাঠ মন্ত্রণালয়ে সংগঠনটির প্রতিনিধিদের সঙ্গে এ সংক্রান্ত এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। এ সময় বিএসটিএমআইপিইএ-এর প্রেসিডেন্ট আজিজুল হকসহ অন্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে সংগঠনটির পক্ষ থেকে বলা হয়, দেশীয় ক্ষুদ্র ও মাঝারি বস্ত্র শিল্পের প্রসার তথা বিদেশী কাপড়ের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকা, বস্ত্র রফতানি বাড়ানো ও তৈরি পোশাক শিল্পের কাঁচামাল বিদেশ থেকে আমদানি করার লক্ষ্যে দেশীয় বস্ত্রের তৈরি পোশাক রফতানির ক্ষেত্রে ডিউটি ড্র ব্যাংকের পরিবর্তে নগদ সহায়তার নীতিমালা ঘোষণা করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এতে বিএসটিএমপিআইএ এবং বিটিএমএসসহ বস্ত্র খাতের সাতটি সমিতিকে তাদের সদস্যদের উৎপাদিত বস্ত্রের উৎপাদন সনদ ইস্যু করার ক্ষমতা দেয়া হয়। পরবর্তী সময়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় বিএসটিএমপিআইএকে সনদ ইস্যু করার ক্ষমতা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু তা এখনও বাস্তবায়ন হয়নি।

বৈঠকে সংগঠনটির পক্ষ থেকে আরও বলা হয়, সম্প্রতি বছরগুলোতে দেশীয় হোম টেক্সটাইল ও স্পেশালাইজড টেক্সটাইল পণ্য রফতানি হ্রাস পেলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ‘কোর গ্রুপ’ গঠন করে। ওই কোর গ্রুপের পক্ষ থেকে বিএসটিএমপিআইএ সমিতিকে আর্থিক সচ্ছলতা ও রফতানি বাড়ানোর স্বার্থে সনদ ইস্যু করার ক্ষমতা দেয়ার সুপারিশ করে। যা এখনও বাস্তবায়ন হয়নি। এ অবস্থায় বিএসটিএমপিআইএকে সনদ ইস্যু করা ক্ষমতা দেয়ার জন্য বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় থেকে একটি সুপারিশপত্র বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর জন্য দাবি জানানো হয়।

প্রকাশিত : ২৬ অক্টোবর ২০১৫

২৬/১০/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: