২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

মির্জা ফখরুলের জামিন ॥ মুক্তিতে বাধা নেই


স্টাফ রিপোর্টার ॥ নাশকতার তিন মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের স্বাস্থ্যগত প্রতিবেদন পাবার পর ছয় সপ্তাহের জামিন দিয়েছেন সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগ। এই সময়ের মধ্যে ফখরুল চাইলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে পারবেন বলে জানিয়েছেন আপীল বিভাগ। এছাড়া ছয় সপ্তাহ পর তাঁকে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণও করতে বলা হয়েছে। অন্যদিকে নাশকতার ৫৬টি মামলায় বিএনপি নেতা এমকে আনোয়ার, তরিকুল ইসলাম, আবদুল আউয়াল মিন্টু ও আমানউল্লাহ আমানের হাইকোর্টের দেয়া জামিন আদেশ স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছেন রাষ্ট্রপক্ষ। আজ মঙ্গলবার দুপুরের দিকে চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর আদালতে এর শুনানি হতে পারে।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের স্বাস্থ্যগত প্রতিবেদন জমা দেয়ার পর ছয় সপ্তাহের জামিন দিয়েছেন সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগ। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন আপীল বিভাগের চার সদস্যের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। বেঞ্চে অন্য সদস্যরা ছিলেন, বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী। আদালত একই সঙ্গে এই সময়ের মধ্যে ফখরুল উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে পারবেন বলেও আদেশে দিয়েছেন। এছাড়া ছয় সপ্তাহ পর ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণও করতে বলা হয়েছে। আদালতে ফকরুলের পক্ষে শুনানি করেন এ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, তার সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও জয়নুল আবেদীন। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ভারপ্রাপ্ত এ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা ও অতিরিক্ত এ্যাটর্নি জেনারেল মোমতাজউদ্দিন ফকির।

আদেশের পর তার আইনজীবী এ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন সাংবাদিকদের বলেছেন, পল্টন থানায় করা এই তিন মামলায় জামিন পাওয়ায় তার কারামুক্তিতে আর কোন বাধা নেই। পরে যদি প্রয়োজন হয় তাঁরা জামিন বাড়ানোর জন্য আবেদন করবেন। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ভারপ্রাপ্ত এ্যাটর্নি জেনারেল মুরাজ রেজা বলেছেন, ‘পুরোপুরি স্বাস্থ্যগত কারণে মির্জা ফখরুলকে মেডিক্যাল রিপোর্ট পর্যালোচনা করে আপীল বিভাগ ছয় সপ্তাহের জামিন দিয়েছেন। এই সময়ের মধ্যে তিনি বিদেশে উন্নত চিকিৎসা নিতে পারেন। এরপর তাকে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করতে হবে।’ স্বাস্থ্যগত দিক বিবেচনায় এই জামিন হওয়ায় ফখরুল অন্য কোন কর্মকা-ে অংশ নেয়ার সুযোগ পাবেন না।

১২ জুলাই রবিবার বিকেলে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবের স্বাস্থ্যগত প্রতিবেদন আদালতে জমা দেয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) কর্তপক্ষ। সে প্রতিবেদনটি আদালত আমলে নিয়ে ফখরুলের উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নিতে পারবে মর্মে এই জামিন দেয়া হয়। পল্টন থানায় করা পৃথক তিন মামলায় গত ২১ জুন হাইকোর্ট মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন। সে আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ চেম্বার বিচারপতির কাছে গেলে, চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বিষয়টি শুনানির জন্য আপীল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠান। আবেদনের শুনানি করে সোমবার আপীল বিভাগ হাইকোর্টের দেয়া জামিন আদেশ বহাল রাখেন।

ছয় মাস ধরে কারাবন্দী ফখরুল বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন। ফখরুল অসুস্থ হয়ে পড়লে আদালতের নির্দেশে গত ১৩ জুন তাকে কাশিমপুর কারাগার থেকে বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের প্রিজন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। গত ২১ জুন এ তিন মামলায় মির্জা ফখরুলকে জামিন দেন হাইকোর্ট। রাজধানীর পল্টন এলাকায় হরতালের মধ্যে নাশকতার উস্কানি, প্ররোচনা ও গাড়ি ভাংচুরের অভিযোগে গত ৪ ও ৬ জানুয়ারি এসব মামলা দায়ের করে পুলিশ। ৬ জানুয়ারি মির্জা ফখরুলকে গ্রেফতার করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী। পরে নাশকতার অভিযোগে পল্টন ও মতিঝিল থানার সাতটি মামলায় তাঁকে গ্রেফতার দেখানো হয়। এর মধ্যে পল্টন থানার মামলা ছয়টি ও মতিঝিল থানার একটি। সবগুলোতে তিনি হাইকোর্ট থেকে জামিন পেয়েছেন। এর মধ্যে পল্টন থানার দুটি ও মতিঝিল থানার একটি মামলায় হাইকোর্টের দেয়া জামিন বহাল রাখেন আপীল বিভাগ। আর পল্টন থানার তিনটি মামলায় হাইকোর্টের জামিনের বিষয়ে আপীল বিভাগ সোমবার আদেশ দিলেন।

বিএনপির চার নেতার জামিন স্থগিতের আবেদন ॥ নাশকতার ৫৬টি মামলায় বিএনপি নেতা এমকে আনোয়ার, তরিকুল ইসলাম, আবদুল আউয়াল মিন্টু ও আমানউল্লাহ আমানের হাইকোর্টের দেয়া জামিন আদেশ স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছেন রাষ্ট্রপক্ষ। সুপ্রীমকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই আবেদন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত এ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা। মুরাদ রেজা বলেন, ওই চারজন বিএনপি নেতাকে চার সপ্তাহের আগাম জামিন দিয়েছিল হাইকোর্ট। আর আমরা এই জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছি। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর আদালতে এর শুনানি হতে পারে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: