২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ইবোলা প্রতিরোধে-


ইবোলা প্রতিরোধে-

ইবোলা ঠেকাতে এবার প্রচলিত ওষুধের মধ্য থেকেই ৫৩টি এ্যান্টি বায়োটিক পরীক্ষার আওতায় নিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। মধ্যে যেটিকে নিরাপদ ও কার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা যাবে সেটিই ইবোলা আক্রান্ত এলাকায় কাজে লাগানো হবে।

গবেষকরা জানান, এ্যান্টি-হিস্টামিন, এ্যান্টি-বায়োটিকসহ ক্যান্সার চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধ রয়েছে গবেষণার তালিকায়। এসব ওষুধের কার্যকারিতা ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া অন্য প্রাণীর ওপর পরীক্ষা করা হচ্ছে। মধ্যে যেটি উপযোগী হিসেবে প্রমাণিত হবে সেটি দ্রুত ইবোলা উপদ্রুত এলাকায় প্রয়োগ করা হবে। সেটা সম্ভব হলে ইবোলার সংক্রমণ ঠেকানো যাবে বলে গবেষকদের প্রত্যাশা।

পশ্চিম আফ্রিকায় ইবোলায় আক্রান্ত মানুষের ৭০ শতাংশই মৃত্যুমুখে পতিত হচ্ছে। ইতো মধ্যে প্রাণ হারিয়েছে প্রায় পাঁচ হাজার মানুষ। রোগ প্রতিরোধের কোন উপায় এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি। এর পরও বর্তমানে যে চিকিৎসা পদ্ধতি কাজে লাগানোর চেষ্টা করা হচ্ছে সেটিও ব্যয়বহুল আর অপ্রতুল। পরিস্থিতি সামাল দিতে প্রচলিত ওষুধের মধ্যেই সমাধান খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করছেন মার্কিন বিজ্ঞানীরা। যুক্তরাষ্ট্রের আইকান স্কুল অব মেডিসিন এ্যাট মাউন্ট সিনাই এবং ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথের (এনআইএইচ) বিজ্ঞানীরা যৌথভাবে এ সংক্রান্ত গবেষণা চালাচ্ছেন।

-টাইমস অব ইন্ডিয়া অবলম্বনে ইব্রাহিম নোমান

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: