ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১

হান্নানের দাবি- কন্ডিশনই চ্যালেঞ্জে ফেলেছে শান্তদের

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৪৭, ২৪ মে ২০২৪

হান্নানের দাবি- কন্ডিশনই চ্যালেঞ্জে ফেলেছে শান্তদের

হান্নান

আইসিসির টি২০ র‌্যাঙ্কিংয়ে ১৯তম দল যুক্তরাষ্ট্র। যদিও বিশ্ব ক্রিকেটে অনেক আগে যাত্রা শুরু করেছে তারা, কিন্তু মাত্র ৫ বছর ধরে আন্তর্জাতিক টি২০ খেলছে তারা। কিন্তু ২৬তম আন্তর্জাতিক টি২০ খেলতে নেমেই ঐতিহাসিক জয় পেয়েছে র‌্যাঙ্কিংয়ের ৯ নম্বর দল বাংলাদেশের বিপক্ষে।

প্রথমবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যুক্তরাষ্ট্রের মুখোমুখি হয়ে পরাজয় মেনে নিতে পারছেন না বাংলাদেশের মানুষ। সিরিজের প্রথম টি২০তে এই হারের পর জাতীয় নির্বাচক হান্নান সরকার ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন। তিনি এই হারের পেছনে কন্ডিশনের চ্যালেঞ্জটাকেই বড় সমস্যা হিসেবে দাবি করেছেন। 
এবার টি২০ বিশ^কাপের নবম আসর। আগের ৮টি আসরে খেলার সুযোগ পায়নি যুক্তরাষ্ট্র, কিন্তু সবই খেলেছে বাংলাদেশ। এবার আয়োজক হিসেবে প্রথমবার বিশ^কাপে খেলার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। সেই সুবাদে বাংলাদেশের বিপক্ষেও প্রথমবার খেলার সুযোগটাও হয়েছে দলটির। সেই প্রথম সাক্ষাতেই বাংলাদেশকে রীতিমতো নাস্তানাবুদ করে ৫ উইকেটে জিতেছে যুক্তরাষ্ট্র। হান্নান বলেছেন, ‘আমরা কোনোভাবেই প্রত্যাশা করি না যে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাংলাদেশ দল হারবে।

কন্ডিশনও আলাদা ছিল যেটা আমরা দেখেছি, চ্যালেঞ্জ ছিল প্রচুর, বাতাস ছিল, খোলা মাঠ ছিল। দল যখন সেখানে গেছে তারপর দুদিন কিন্তু সেভাবে মাঠে নামতে পারেনি। প্রস্তুতির একটা ঘাটতি তো ছিলই, মানিয়ে নেওয়ার ব্যাপারও ছিল।’ অবশ্য বারবারই এমন ঘটবে না। অনেক বড় দল বাংলাদেশ, তাদের বিপক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের এই জয়টা অপ্রত্যাশিতই।

হান্নান আশাবাদী বাংলাদেশ দল খুব ভালোভাবেই ফিরবে। তিনি বলেছেন, ‘আমি আশাবাদী যে আবার এই মাঠে আমরা ম্যাচ খেলব এবং সেখানে কামব্যাক করব। আসলে প্রথম ম্যাচ অনেক সময় হয় না বোঝার আগেই একটা অঘটন ঘটে যায়। এরকমই ঘটেছে আমার বিশ্বাস। খেলোয়াড়রা সতর্ক হয়েছে।’ 
যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে বাংলাদেশের ম্যাচ নিয়ে খুব বেশি আগ্রহ ছিল না কারও। কারণ সবাই স্বাভাবিকভাবে ভেবেই নিয়েছেন বেশ স্বাচ্ছন্দ্যেই ৩ ম্যাচ জিতবে বাংলাদেশ। এ বিষয়ে হান্নান বলেছেন, ‘সাধারণত আমরা যেটা চিন্তা করেছিলাম যে যুক্তরাষ্ট্রে যাবে প্রথম ম্যাচ থেকেই তিন ম্যাচ ফাটিয়ে জিতে যাবে। আসলে টি২০ ক্রিকেট কিন্তু সাধারণত এরকম না।

ওই বিশেষ দিনে ভালো খেলাটা খুব জরুরি। যেটা আমাদের দল খুব একটা ভালো খেলতে পারেনি। এই দলটার ওপর আমাদের সবার বিশ্বাসটা আছে। আমরা বিশ্বাস করি এই দলটা ভালো করতে পারে।’ যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে বাংলাদেশ এই প্রথম দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলছে। ৩ ম্যাচের এই সিরিজটিকে বিশ^কাপের আগে গা-গরমের ম্যাচ হিসেবেই নিয়েছে বাংলাদেশ দল। কিন্তু সেখানেই এমন ধাক্কা খেতে হবে কেউ ভাবেনি।

ওপেনার লিটন কুমার দাস ও অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত এখনো ব্যাটিং ব্যর্থতা কাটিয়ে উঠতে পারেননি। একটানা ব্যর্থতা তারা কবে কাটিয়ে উঠে দলকে ভালো কিছু উপহার দেবেন সেই অপেক্ষায় আছে সবাই। তাদের নিয়ে হান্নান বলেছেন,‘আমরা দেখছি আমাদের এক, দুই, তিন নম্বরে যেভাবে রান চাচ্ছি, সেভাবে পাচ্ছি না। তানজিদ তামিম কিছুটা অবদান রেখেছে অভিষেকের পর। সৌম্য, লিটন সংগ্রাম করছে।

শান্তর ব্যাটে আমরা খুব একটা রান পাচ্ছি না। কিন্তু তারা প্রমাণিত খেলোয়াড়। এখানে যদি তানজিদ তামিম ব্যর্থ হতো, তখন বিষয়টা অন্য রকমভাবে আসত। যারা আমাদের প্রমাণিত খেলোয়াড় লিটন, সৌম্য, শান্ত এরা এমন না যে নতুন ক্রিকেট খেলছে। অনেক দিন খেলে নিজেদের প্রমাণ করেছে। এ পর্যায়ে এসে তাদের আর প্রমাণ না, তাদের ফর্মে ফেরাটা সময়ের ব্যাপার। আমরা সেই ফর্মে ফেরার অপেক্ষায় আছি এবং সে ফর্ম যদি বিশ্বকাপের আগে ফিরে আসতে পারে, সেটাও আমাদের প্রাপ্তি হবে।’

×