ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

বোঝার উপায় নেই ফুটবলার নাকি সুপার মডেল 

প্রকাশিত: ২১:৫৩, ১ অক্টোবর ২০২৩; আপডেট: ২১:৫৩, ১ অক্টোবর ২০২৩

বোঝার উপায় নেই ফুটবলার নাকি সুপার মডেল 

আনা মারিয়া মারকোভিচ।

প্রথমবার দেখলে যে কারো মনে হবে তিনি কোনো মডেল। স্রেফ মডেল নয়, তার চেহারার লাস্য কিংবা আত্মবিশ্বাস দেখলে এই নারীকে সুপার মডেলও মনে হতে পারে। সোশ্যাল মিডিয়ায় তার একটা ছবিই রীতিমতো ঝড় তুলতে পারে। জনপ্রিয় অভিনেত্রীদেরও বলে বলে গোল দিতে পারেন এই তরুণী। তবে মুখের কথায় নয়, তিনি বাস্তবেই গোল দিতে অভ্যস্ত।

শুনতে অবাক লাগলেও সত্যি। যার কথা বলা হচ্ছে, তিনি একজন পুরোদস্তুর ফুটবল প্লেয়ার। জাতীয় দলের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্যও বটে। কথা বলছি, ক্রোয়েশিয়ার আনা মারিয়া মারকোভিচ সম্পর্কে। ২৪ বছর বয়সী এই তরুণী সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো জনপ্রিয়। তবে সেই জনপ্রিয়তা ফুটবল কৃতিত্বের জন্য নয়, তার রূপের জাদুতে। 

বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে তার অনুরাগির সংখ্যা কয়েক লাখেরও বেশি। যদিও মারিয়া নিজেও সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ সক্রিয়। সসাধারণত ফুটবলাররা কোনো খেলার মুহূর্ত বা বিশেষ কোনো কৃতিত্বের কথা সোশ্যাল মিডিয়ায় জাহির করেন। কেউ কেউ পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানোর মুহূর্তও নেটদুনিয়ায় ভাগ করে নেন। তবে মারিয়া সেসবের বিশেষ ধার ধারেন না। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রায় রোজই নিজের ছবি দেন তিনি। যার মধ্যে বেশিরভাগ ছবিতেই তিনি স্বল্পবসনা। কখনও সমুদ্রের ধারে বিকিনি অবতারে ধরা দিচ্ছেন, আবারও কখনও স্রেফ জার্সি টুকু পরেই ছবি তুলছেন। আর এইসব ছবিই আগুন ছড়ায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। 
কিছুদিন আগে এক অনুরাগি, মারিয়াকে তার প্রিয় ফুটবলার সম্পর্কে বলতে বলেন। তবে যে কারো নাম বললে হবে না। নির্দিষ্টভাবে মেসি আর রোনাল্ডোর মধ্যে কে প্রিয়, সেটাই বাছতে বলা হয় মারিয়াকে। উত্তরে সরাসরি মেসিকে নাকচ করে দিয়েছে মারিয়া। 

তার কথায়, সেরা ফুটবলার রোনাল্ডো। এমনকি নিজের ফুটবল ক্যেরিয়ারেও অনুপ্রেরণা হিসেবে সি আর সেভেনের নাম উল্লেখ করেছেন মারিয়া। শুধু তাই নয়, রোনাল্ডো ভক্তদের মত তিনিও ৭ নাম্বার জার্সি ব্যবহার করেন। বরাবরই রোনাল্ডকে নিজের রোল মডেল ভেবে এসেছেন তিনি, এমনটাও সাফ জানিয়েছেন মারিয়া। একইসঙ্গে ফুটবল মাঠেও রোনাল্ডোর মতো সামনের সারিতেই খেলেন তিনি। জাতীয় দলে তো বটেই, নিজের ক্লাবের তার পজিশন অ্যাটাকার হিসেবেই। যদিও সেইসব নিয়ে বিশেষ মাথাম্যথা নেই তার অনুরাগীদের। তারা মারিয়ার রূপের জাদুতে মজে থাকতেই বেশি পছন্দ করেন।

 

এম হাসান

×