ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ০৮ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯

ওপেনার হিসেবেই শুরু মুশফিকের!

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৩১, ১৮ আগস্ট ২০২২

ওপেনার হিসেবেই শুরু মুশফিকের!

মুশফিকুর রহিম

আসন্ন এশিয়া কাপ টি২০ আসরের জন্য কয়েকদিন আগে ১৭ জনের স্কোয়াড ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)সেই দলটিতে সবচেয়ে বড় ঘাটতি ওপেনারের অভাবনিয়মিত লিটন কুমার দাস কিংবা গত ৩ সিরিজে ওপেনিং করা মুনিম শাহরিয়ার নেইএরপরও এই ঘোষিত দলে মাত্র দুইজন ওপেনার- এনামুল হক বিজয় ও নবাগত পারভেজ হোসেন ইমন

এ কারণে প্রশ্নের সম্মুখীন হয়ে সাবেক অধিনায়ক ও বাংলাদেশ দলের টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন দাবি করেন বিকল্প ওপেনার হিসেবে সাকিব আল হাসান এবং এমনকি মিডলঅর্ডার স্তম্ভ মুশফিকুর রহিমও আছেন পরিকল্পনায়বিষয়টি নিয়ে বেশ আলোচনা শুরু হলেও এই দুজনের শিক্ষাগুরু ও প্রখ্যাত কোচ নাজমুল আবেদিন ফাহিম দাবি করেছেন, ওপেনার হিসেবেই ক্রিকেটে যাত্রা শুরু হয়েছে মুশফিকের এবং প্রয়োজন হলে জাতীয় দলেও ওপেনিং করতে পারবেন

এশিয়া কাপের মতো বড় আসরে ১৭ জনের দীর্ঘ স্কোয়াড ঘোষণা করেছেন নির্বাচকরা ওপেনার ঘাটতি দিয়েএত বড় দলে যে দুইজন ওপেনার হিসেবে বিবেচিত, সেই বিজয় আর ইমনকে নিয়েই কি ভরসা করতে পারবে বাংলাদেশ দল? বিজয় এবার জাতীয় দলে ফেরার পর টি২০ ম্যাচ খেলেছেন যার মধ্যে ওপেনার হিসেবে ৩টি এবং ওয়ানডাউন ব্যাটার হিসেবে ৩টি ম্যাচ খেলেনকোন ম্যাচেই তার ব্যাট থেকে ভাল ইনিংস পায়নি বাংলাদেশযদিও বিজয়ের খেলার মধ্যে ইতিবাচক মনোভাব দেখা গেছে এবং প্রতি ম্যাচেই বেশ ভালভাবে শুরু করেছেনতাছাড়া ওয়ানডে সিরিজে দুটি অর্ধশতাধিক রানের ইনিংস খেলে নিজেকে প্রমাণ করেছেনআরেক ওপেনার ২০ বছর বয়সী ইমন মাত্র একটি ম্যাচ খেলেছেনজিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে এবার টি২০ সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে অভিষেক হয় এ বাঁহাতি তরুণের এবং ২ রানেই সাজঘরে ফেরেনঅথচ ইমন-বিজয় ব্যতীত আর কোন ওপেনার নেই এবার এশিয়া কাপের দলে

সেক্ষেত্রে অবশ্য সাকিব, মুশফিক ছাড়াও মেহেদি হাসান মিরাজ, শেখ মেহেদিরা আছেন বিকল্প ওপেনার হিসেবে পরিকল্পনায়এমনটাই জানান টিম ডিরেক্টর সুজনএর আগে সাকিব ও শেখ মেহেদি একবার টি২০ ম্যাচে বাংলাদেশের হয়ে ওপেনিং করেছেনশেখ মেহেদি প্রায়ই ঘরোয়া টি২০ আসরে ওপেনিং কিংবা ওয়ানডাউনে খেলেন মারকুটে স্বভাবের কারণেমিরাজকেও বিভিন্ন সময়ে ওপেনিং করতে দেখা গেছে ঘরোয়া টি২০ আসরে এবং জাতীয় দলের হয়ে ওয়ানডেতে একবার ওপেনিং করেছেনসাকিব-মুশফিকেরও জাতীয় দলের হয়ে ওপেনিং করার ঘটনা আছে

সাকিব আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৩৮৩ ম্যাচে ৪২৩ ইনিংস ব্যাট করেছেন ৩ ফরমেটেএকবারই ওপেনিং করেন গত টি২০ বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে৯ রান করতে পেরেছিলেন এ বাঁহাতি অলরাউন্ডার২০০৯ সালে মুশফিক জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে ওয়ানডেতে ওপেনিং করে ৯৮ রানের ইনিংস খেলেনএছাড়া আর ওপেনিংয়ে দেখা যায়নি তাকে২০০১৯ সালে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টি২০ ম্যাচে ওপেনিংয়ে নেমে ৫ রান করেন মুশফিকআন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৪১৮ ম্যাচের ৪৬৩ ইনিংসে ব্যাট করা মুশফিকের ওপেনিং করার ঘটনা এ দুটিইএ দুজনকে আসন্ন এশিয়া কাপে বিকল্প ওপেনার হিসেবে পরিকল্পনায় রেখেছে বাংলাদেশের টিম ম্যানেজমেন্ট

বিকেএসপিতে ভর্তির সময় মুশফিক ওপেনার ছিলেন এমনটাই মনে করিয়ে দিয়েছেন ফাহিমবিকেএসপির এই প্রখ্যাত কোচ বুধবার নেটে সাকিব-মুশফিকের ব্যাটিং পর্যবেক্ষণ করেনএরপর তিনি সাংবাদিকদের বলেন,‘মুশফিকও হতে পারেবিকেএসপিতে যখন মুশফিক খেলা শুরু করে তখন কিন্তু সে ওপেনার হিসেবেই খেলেছে

ব্যক্তিগতভাবে এটা আমি জানিপরে ক্যারিয়ারের কারণেই সে মিডল অর্ডারে চলে গেছেঅবশ্যই সে মিডল অর্ডারের একজন ব্যাটারওপেনিং ব্যাটিং করাটা একটা চ্যালেঞ্জিং ব্যাপারআমি জানি না, নিজেকে ও কতটুকু প্রস্তুত করতে পারবেওর অভিজ্ঞতা অবশ্যই কাজে লাগবেযদি প্রয়োজন হয় মুশফিক করতে পারে, তবে অন্যরাও আছেবিকল্প ওপেনার হিসেবে তাদের ভাবলেও নিয়মিতদের বাদ দেওয়ার পক্ষপাতী নয় ফাহিম

তিনি মনে করেন এ বিষয়ে আলোচনা করলে ওপেনাররা চাপে থাকবেনফাহিম বলেন, ‘আসলেই করবে কিনা আমি জানি নাদুজন স্বীকৃত ওপেনার আছে আমাদের দলেআমরা যদি আলোচনাটা মুশফিককে নিয়ে করি, তাহলে ওই দুই ওপেনার স্বস্তিতে থাকবে নাওদের পক্ষে থাকা উচিতযেন ওরা ভালো করতে পারেওরা যদি ভাল করতে পারে, সেটাই সবচেয়ে সেরা হবেওদের মধ্যে কেউ যদি ব্যর্থ হয় বা অসুস্থ হয় তখন অন্য ওপেনার নিয়ে ভাববে টিম ম্যানেজমেন্টঅনেক অপশনই আমাদের হাতে আছে যারা এমনিতে নিচের দিকে খেলে, কিন্তু মাঝেমধ্যে উপরে খেলেছেসুতরাং অপশন আছে