ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ইতিহাদে ম্যানসিটি-রিয়াল মাদ্রিদ আগুন লড়াই

জাহিদুল আলম জয়

প্রকাশিত: ০০:৪৬, ১৭ এপ্রিল ২০২৪

ইতিহাদে ম্যানসিটি-রিয়াল মাদ্রিদ আগুন লড়াই

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের দুটি হাইভোল্টেজ কোয়ার্টার ফাইনাল

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের দুটি হাইভোল্টেজ কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচ আজ রাতে মাঠে গড়াচ্ছে। অর্থাৎ শেষ আটের দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে মাঠে নামছে চারটি দল। ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টারের ইতিহাদ স্টেডিয়ামে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করার মিশনে মুখোমুখি হচ্ছে আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি ও সর্বোচ্চ ১৪ বারের শিরোপাধারী রিয়াল মাদ্রিদ। সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে গত ৯ এপ্রিল দুদলের প্রথম লেগের লড়াই ৩-৩ গোলে ড্র হয়েছিল। 
জার্মানির মিউনিখের অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারানায় আরেক ম্যাচে ইংলিশ ক্লাব আর্সেনালকে আতিথ্য দিচ্ছে স্বাগতিক বায়ার্ন মিউনিখ। লন্ডনে দুদলের প্রথম লেগের লড়াই ২-২ গোলে ড্র হয়েছিল। দুটি ম্যাচই শুরু হবে বাংলাদেশ সময় আজ রাত ১টায়। ম্যানচেস্টারে কঠিন লড়াইয়ে রিয়ালের সাফল্যের মূল চাবিকাঠি হয়ে উঠতে পারেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রডরিগো।

২০২২ সালের সেমিফাইনালে দুই লেগ মিলিয়ে ৬-৫ গোলে রিয়াল মাদ্রিদ এগিয়ে থেকে ম্যানচেস্টার সিটিকে বিদায় করেছিল। দ্বিতীয় লেগে শেষ সময়ে রডরিগো জোড়া গোল করে নায়ক বনে গিয়েছিলেন। গত সপ্তাহে ইংলিশ চ্যাম্পিয়নদের বিরুদ্ধে কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগেও এক গোল করেছেন সেলেসাও ফরোয়ার্ড।

রডরিগোর ব্রাজিলিয়ান সতীর্থ ও স্ট্রাইকিং পার্টনার ভিনিসিয়াস জুনিয়র এবং ইংলিশ মিডফিল্ডার জুড বেলিংহামই বেশিরভাগ সময় রিয়ালের ম্যাচে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকেন। কিন্তু রডরিগো অনেকটাই আড়ালে থেকে নিজেকে প্রমাণ করে চলেছেন। গত দুই ম্যাচে তিন গোল করেছেন তিনি। বিশেষ করে রিয়ালের গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে ত্রাতা হিসেবে আবির্ভূত হন রডরিগো।
গত মৌসুমে সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে রিয়ালকে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত করে দুই লেগ মিলিয়ে ৫-১ ব্যবধানে এগিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছিল ম্যানসিটি। এরপর নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপাও জয় করে পেপ গার্ডিওলার দল।

এবার সেই হারের প্রতিশোধ নিতে মুখিয়ে আছে মাদ্রিদ। প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডারদের পরাস্ত করতে রডরিগো প্রায় প্রতি ম্যাচেই সফল হয়েছেন। ইতিহাদ স্টেডিয়ামে কাউন্টার অ্যাটাক থেকে সিটিকে পেছনে ফেলতে চায় গ্যালাক্টিকোরা। পুনরুজ্জীবিত দলটিতে এই অস্ত্রই তাদের সাফল্যের মূলমন্ত্র। এবারের মৌসুমে সবমিলিয়ে নিজেকে খুব একটা এগিয়ে নিতে না পারলেও রডরিগোর ওপর সবসময়ই আস্থা রেখেছেন কোচ কার্লো আনচেলোত্তি।

আগস্ট থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ১১ ম্যাচে কোন গোল করতে পারেননি রডরিগো। কিন্তু এরপর আট ম্যাচে করেছেন আট গোল। গত আসরের ব্যর্থতা কাটিয়ে উঠতে এবার রিয়ালের সামনে জয় ছাড়া কোন পথ খোলা নেই। কিন্তু ২০২২ সালের সেমিফাইনালে ৯০ ও ৯১ মিনিটে রডরিগোর দুই গোল এখনো ভুলতে পারেনি সিটি সমর্থকরা। সিটি যখন প্রায় প্যারিসের ফাইনালের টিকিট কেটেই ফেলেছিল ঠিক ওই সময় সবাইকে হতবাক করে রডরিগো জোড়া গোল করেন।

করিম বেঞ্জামার পেনাল্টিতে ফাইনাল নিশ্চিত করা রিয়াল শেষ পর্যন্ত রেকর্ড ১৪বারের মতো শিরোপা জয় করার কৃতিত্ব দেখায়। মাত্র ২৩ বছর বয়সে ক্লাব ফুটবলে সম্ভাব্য সব শিরোপাই জয় করেছেন রডরিগো। গত এক দশকে একটি মাত্র প্রতিযোগিতায় রিয়াল সাফল্য পাচ্ছিল না। সেটি হচ্ছে স্প্যানিশ কোপা ডেল রে। কিন্তু ২০২৩ সালে ওসাসুনার বিরুদ্ধে রডরিগোর জোড়া গোলে ২-১ গোলে জিতে সেই শিরোপাও ঘরে তোলে। ২০১৪ সালের পর রিয়ালের এটাই ছিল প্রথম কোপা শিরোপা। ১৭ বছরের ইতিহাসে স্প্যানিশ কাপ ফাইনালে সবচেয়ে দ্রুততম গোলের রেকর্ডও গড়েছেন রডরিগো।
অন্যদিকে ২০২১ সালে চেলসির কোচ হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয়ের আনন্দ আবারও বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে উপভোগ করতে চান টমাস টাচেল। আর্সেনালের বিরুদ্ধে জয়ের মাধ্যমে আরও একধাপ এগিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী বায়ার্ন বস। ঘরোয়া লিগে হতাশাজনক পারফরমেন্সের কারণে বায়ার লেভারকুসেনের কাছে ১১ বছরের আধিপত্য হারালেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এখনো টিকে আছে বাভারিয়ানরা।

শিরোপা স্বপ্ন দেখা টাচেল বলেন, এখন আমাদের সম্পূর্ণ মনোযোগ ইউরোপে। মিউনিখে বিশেষ মুহূর্তটি আমরা সবাই উপভোগ করতে চাই। আমিও এই ম্যাচটির জন্য মুখিয়ে আছি।

×