ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৬ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

জার্সিতেও ভুবন মাতানো ব্রাজিল

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২২:৫৯, ৩০ নভেম্বর ২০২২

জার্সিতেও ভুবন মাতানো ব্রাজিল

ব্রাজিলের জার্সি গায়ে মডেল জুলিয়া

কাতারে মাঠ কাঁপাচ্ছেন রিচার্লিসন, ক্যাসিমিরোরা আর লাতিন আমেরিকার অন্যতম বৃহৎ দেশটি মাতিয়ে দিচ্ছে তাদের গর্বের হলুদ-সবুজ জার্সি। ব্রাজিলই বিশ্বের একমাত্র দল যারা এখনো পর্যন্ত প্রতিটি বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে, জিতেছে রেকর্ড পাঁচ শিরোপা। ১৯৩০ থেকে ১৯৫০ সাল পর্যন্ত ব্রাজিলের জার্সির রং ছিল সাদা। ওই বছর ঘরের মাঠে ফাইনালে উরুগুয়ের কাছে ২-১ গোলে হারের পর রং পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নেয় ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশন। এজন্য ডিজাইন চেয়ে একটি প্রতিযোগিতারও আয়োজন করা হয়।

এরপর থেকেই দেশটির জাতীয় পতাকার সঙ্গে মিল রেখে তৈরি হয় হলুদ-সবুজ রঙের এই জার্সি। হলুদ রঙের হোম জার্সির হাতার বর্ডার সবুজ, আর নীল রঙের অ্যাওয়ে জার্সির উজ্জ্বল হলদে-সবুজ বর্ণের চ্ছটা। দেশটির বিখ্যাত অ্যামাজনের সবচেয়ে বড় বিড়াল প্রজাতির প্রাণী জাগুয়া, যেটি অত্যন্ত হিংস্র এবং শিকার ধরায় পারদর্শী। তাই এবারের বিশ্বকাপে জাগুয়ার প্যাটার্ন বসানো হয়েছে অ্যাওয়ে জার্সির কাঁধ এবং হাতার ওপর। যা ভিন্ন মাত্রা যোগ করে। ব্রাজিলের রাস্তা-ঘাট, বার-রেস্টুরেন্ট, ফ্যাশন হাউস, সমুদ্র সৈকত সব মিলে-মিশে একাকার এই হলুদে-সবুজে।
ব্রাজিলের বিখ্যাত মডেল টাটি ওয়েগের ২৪ ঘণ্টার সঙ্গী এখন হলুদ আর সবুজ। রাতে জার্সির রঙে তৈরি গাউন পরে ঘুমাতে যান, খেলা দেখতে এসে ম্যাচে পরেন একেক রকমের জার্সি, আবার সমুদ্র ¯œানে থাকে হলুদ-সবুজ বিকিনি! এই মডেল এতটাই বিভোর আগাম ঘোষণা দিয়েছেন, ফাইনালে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ হিসেবে জার্মানিকে চান। সেটি সত্যি হলে ফাইনালের দিনে নগ্ন হয়ে খেলা দেখবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

কারণ ২০১৪ বিশ্বকাপে ঘরের মাঠে সেমিফাইনালে জার্মানির কাছে ৭-১ গোলের হারে স্বপ্নভঙ্গ হয়েছিল সেলেসাওদের। ‘সত্যি বলতে বিশ্বকাপের এই সময়টা আমার জন্য অন্যরকম। আমি এখন ফুটবলের মধ্যে বসবাস করছি। বাসার বিছানাপত্র সব হলুদ-সবুজ করে ফেলেছি। প্রতিদিনই জার্সি পরছি। এবার জার্সিতে অনেক ভেরিয়েশনও আনা হয়েছে। এটা এক কথায় চমৎকার। আমি আশা করব ব্রাজিল-জার্মানি ফাইনাল হোক, তাহলে নগ্ন হয়ে খেলা দেখব!’ স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন তিনি।

দেশটির জনপ্রিয় ডিজাইনার জুলিয়া বারবোসার মতে, সুন্দর মুহূর্ত উপভোগ করার জন্য এমন রঙের কোনো বিকল্পই হতে পারে না, অসাধারণ। হলুদ-সবুজ এমনিতেই কালারফুল, এবার জাগুয়ার সংমিশ্রণে যে ডিজাইনটা করা হয়েছে, তাতে ঔজ্জল্য আরও বহুগুণে বেড়ে গেছে। জার্সিটা গায়ে চড়ালেই দেশের প্রতি ভালোবাসা আরও বেড়ে যায়। এবারের জার্সির ডিজাইনে থাকা এলজিবিটিকে বড় একটা থ্যাঙ্কস। আশা করি দলের সাফল্য অব্যাহত থাকবে এবং নক-আউটে নেইমার ফিরে আসবে। কাতার বিশ্বকাপ থেকে দল ট্রফি নিয়ে ফিরবে।’ বলেন তিনি।
গত আগস্টে বিশ্বখ্যাত ক্রীড়াসামগ্রী নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নাইকির তৈরি ব্রাজিলের এবারের বিশ্বকাপ জার্সি উন্মোচন করেন দেশটির সাবেক তারকা ফুটবলার রোনাল্ডো। জার্সিতেও আনা হয় নতুনত্ব। বিখ্যাত হলুদ এবং সবুজের মধ্যে জাগুয়ার চামড়ার জলছাপ দেয়া হয়। এবারের জার্সিটি পরিবেশবান্ধব। বন্যপ্রাণী সংরক্ষণে উদ্বুদ্ধ করতে এমন প্রিন্ট বলে জানায় ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশন। জার্সির পাশাপাশি ব্রাজিল দলের নতুন ডিজাইনের ট্র্যাক জ্যাকেটও প্রস্তুত করেছে নাইকি। পুরোটাতেই ডোরাকাটা ছাপের পাশাপাশি রয়েছে থ্রোব্যাক।

ব্রাজিলের সংস্কৃতি, পরিবেশ এবং তাদের ঐতিহ্য ফুটিয়ে তুলতেই এত আয়োজন। মাঠের ফুটবলে অবশ্য ভালোই এগিয়ে চলেছে ব্রাজিল। নিজেদের প্রথম ম্যাচেই তারা সার্বিয়াকে হারিয়েছে ২-০ গোলে। ওই ম্যাচে ইনজুরিতে পড়েন নেইমার। কবে ফিরতে পারবেন নিশ্চিত নয়। বড় তারকাকে ছাড়াই বড় ম্যাচে সুইজারল্যান্ডকে ১-০ গোলে হারিয়ে শেষ ষোলোয় জায়গা করে নিয়েছে লাতিন আমেরিকার পরাশক্তি। শুক্রবার গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ ক্যামেরুন।

monarchmart
monarchmart