ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

সাহসী পোশাকে কাতারের মাঠে ক্রোয়েশিয়ার সুন্দরী

প্রকাশিত: ১৭:১২, ২৭ নভেম্বর ২০২২; আপডেট: ১৭:১৫, ২৭ নভেম্বর ২০২২

সাহসী পোশাকে কাতারের মাঠে ক্রোয়েশিয়ার সুন্দরী

এই তরুণী দেশের সেরা সুন্দরী নির্বাচিত হয়েছিলেন

পোশাক বিতর্ক থামছেই না কাতার বিশ্বকাপে। রামধনুর পর এবার চর্চায় বিকিনি। আলোচনার কেন্দ্রে ক্রোয়েশিয়ার এক মডেল। নাম ইভানা নল। ৩০ বছর বয়সি ইভানা এক সময়ে লুকা মদরিচের দেশের সেরা সুন্দরী নির্বাচিত হয়েছিলেন। 

ক্রোয়েশিয়ার জাতীয় দলকে সমর্থন করতে কাতারে এসেছেন তিনি। কাতারে ঘুরতে বেরিয়ে রাজধানী দোহার আশপাশে স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে সাহসী পোশাক পরেছিলেন তিনি। আর তাতেই বিপত্তি। মডেলের এই আচরণে খুশি নন কাতার প্রশাসন।

মরক্কোর বিরুদ্ধে ক্রোয়েশিয়ার ম্যাচে আল-বায়ত স্টেডিয়ামে তাকে দেখা গিয়েছিল আঁটসাঁট হুডিতে। ক্রোয়েশিয়ার পতাকা আঁকা সেই পোশাকে দেখা গিয়েছিল তার বক্ষভাঁজ। পরে যুক্তরাষ্ট্র বনাম ইংল্যান্ডের ম্যাচেও একই ধরনের পোশাক পরেছিলেন তিনি। সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করতেই শুরু হয় বিতর্ক। 

অনেকেই স্থানীয় সংস্কৃতির দোহাই দিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তার পোশাক নিয়ে। সমালোচনায় অবশ্য কান দেননি এই মডেল। উল্টো দোহার সৈকতে বিকিনি পরে হাজির হন তিনি। আর তাতে বিতর্কের আগুনে ঘি পড়ে। অনুরাগীদের অনেকেই আশঙ্কা, কাতারের যা নিয়ম, তাতে এই পোশাক পরার জন্য জেলে যেতে হতে পারে এই মডেলকে।

মডেলের সাহসী ছবি ভক্তদের মনে ঝড় তুললেও বিষয়টিকে মোটেও ভালো চোখে দেখছে না কাতার প্রশাসন। এমনিতেই পোশাক নিয়ে হরেক রকমের কড়াকড়ি রয়েছে কাতারে। বিশ্বকাপ শুরুর আগেই খেলা দেখতে আসা মানুষদের সতর্ক করেছিল কাতারের পর্যটন দপ্তর। 

প্রশাসনের তরফ থেকে বলা হয়েছিল, পর্যটকরা যেন স্থানীয় সংস্কৃতির কথা মাথায় রেখে বেশি খোলামেলা পোশাক পরা থেকে বিরত থাকেন। পুরুষ এবং নারীরা যেন হাঁটু ও কাঁধ ঢাকা পোশাক পরেন, তা নিশ্চিত করতে হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছিল কাতার প্রশাসন।

এমএইচ

সম্পর্কিত বিষয়:

monarchmart
monarchmart