ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

বোলিং নিয়ে মার্শের পরিকল্পনা

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০১:০০, ২১ জুন ২০২৪

বোলিং নিয়ে মার্শের পরিকল্পনা

মিচেল মার্শ

আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন পেস অলরাউন্ডার হিসেবে। টানা ৮/৯ বছর মিডলঅর্ডার হিসেবেই ব্যাট করেছেন মিচেল মার্শ। কিন্তু এরপর সর্বশেষ ৪ বছর টপঅর্ডার ব্যাটার হিসেবেই খেলছেন। আর গত বছর থেকে তেমন বোলিং করতে দেখা যায়নি মার্শকে। আর টি২০ ফরম্যাটে ৫৮ ম্যাচ খেললেও মাত্র ২৫ ইনিংসে ৫০ ওভার বোলিং করেছেন। গত দুই বছরে ৫ ইনিংসে মাত্র ১০ ওভার বোলিং করেছেন টি২০তে। কিন্তু আবার বোলিংয়ে ফেরার পরিকল্পনা করেছেন তিনি। বাংলাদেশের বিপক্ষে সুপার এইটের ম্যাচে নামার আগে সেজন্য যথেষ্ট অনুশীলনও করেছেন নেটে।

চলতি বছর আন্তর্জাতিক টি২০তে মাত্র দুই ম্যাচে বোলিং করা মার্শ সুপার এইট পর্বে দলের প্রয়োজনে বোলিং করার চিন্তাভাবনা করছেন। বাংলাদেশের বিপক্ষে আজই বোলিং করার কথা এ মিডিয়াম পেসারের। ম্যাচটির আগে অজি অধিনায়ক মার্শ এমন কথাই জানিয়েছেন সংবাদ সম্মেলনে। 
এ বছর এখন পর্যন্ত ওয়ানডেতে বোলিং করেননি মার্শ। গত বছর ওয়ানডেতে সাকুল্যে ৭ ইনিংসে মাত্র ১৩ ওভার বোলিং করেন। আর টি২০ ফরম্যাটে এমনিতেই খুব কম বোলিং করেছেন ক্যারিয়ারজুড়ে। এ বছর অস্ট্রেলিয়ার জার্সিতে টি২০তে মাত্র দুই ম্যাচে বোলিং করেছেন ৩ ওভার করে ৬ ওভার। এবার ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) খেলার সময়ই হ্যামস্ট্রিংয়ের ইনজুরিতে পড়েন। যার জন্য সতর্কতা হিসেবে ফ্র্যাঞ্চাইজি আসর তো ছাড়েনই, এমনি জাতীয় দলে ফেরার পরও ছিলেন কেবল ব্যাটারের ভূমিকায়। এখন অবশ্য বোলিংয়ের জন্যও পুরোপুরি ফিট হয়ে উঠেছেন।

দলের অনুশীলনেও বোলিং নিয়ে কঠোর পরিশ্রম করছেন মার্শ। তিনি নিজের বোলিং নিয়ে বলেছেন, ‘এখন থেকে আমাকে বোলিংয়েও পুরোপুরি পাওয়া যাবে। যদিও আমাদের দলের যে শক্ত লাইনআপ আমার বল করার প্রয়োজন হয় না সেভাবে। তবে আমি মনে করি এই ফরম্যাটে বাড়তি বিকল্প থাকা জরুরি এবং আনন্দের বিষয় আমাদের হাতে এমন বিকল্প অনেক।’ অস্ট্রেলিয়া দলে কয়েকজন অলরাউন্ডার আছেন। নিয়মিত বোলারদের পাশাপাশি ধারাবাহিকভাবেই বোলিংয়ে দেখা যায় গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ও মার্কাস স্টয়নিসকে। যার কারণে বিশেষ করে ক্ষুদ্রতম ফরম্যাট টি২০তে আর বিকল্পের প্রয়োজন পড়ে না। 

×