ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে লড়াইটা কঠিন হবে বলছেন ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা, মিরপুরে খেলা শুরু দুপুর ১২টায়

ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজ জিততে চান লিটন

মো. মামুন রশীদ

প্রকাশিত: ২২:৫১, ৩ ডিসেম্বর ২০২২

ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজ জিততে চান লিটন

দুই অধিনায়কÑ ভারতের রোহিত শর্মা ও বাংলাদেশের লিটন কুমার দাস

প্রায় সাড়ে ৭ বছর আগে সর্বশেষ বাংলাদেশ সফরে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলেছে ভারতীয় ক্রিকেট দল। সেবার ২-১ ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ। ওয়ানডে ফরম্যাটে প্রায় এক যুগ ধরে বেশ শক্তিধর টাইগাররা। আর ভারতের বিপক্ষে ৭-৮ বছর ধরেই প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ক্রিকেট খেলছে বাংলাদেশ। এ বিষয়গুলো মাথায় রেখে রোহিত শর্মা এবার ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে সংবাদ সম্মেলনে জানালেন, বেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ সিরিজ হবে। ভারতীয় অধিনায়কের দাবি, বাংলাদেশের বিপক্ষে জেতা সহজ হবে না এবং দলগতভাবেই নিজেদের সেরা ক্রিকেট খেলতে হবে।

আজ সিরিজের প্রথম ওয়ানডে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু দুপুর ১২টায়। নিয়মিত অধিনায়ক তামিম ইকবালের ইনজুরির কারণে এই প্রথম পুরো ৩ ম্যাচের সিরিজেই বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেবেন লিটন কুমার দাস। দলকে প্রথমবার ওয়ানডে নেতৃত্ব দেওয়া নিয়ে বেশ উত্তেজনা বোধ করছেন এ ওপেনার। তিনি অবশ্য ঘরের মাঠে সিরিজ জেতার লক্ষ্য জানিয়ে দিয়েছেন।
গত বছর এপ্রিলে সিনিয়র ক্রিকেটারদের অনুপস্থিতিতে হুট করেই অকল্যান্ডে হওয়া টি২০ ম্যাচে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দেন লিটন। জাতীয় দলকে নেতৃত্ব দেওয়া সেটাই প্রথম তার। গত বিশ^কাপের আগে প্রস্তুতি ম্যাচেও অধিনায়কত্ব করেন। এবার অবশ্য হঠাৎ করেই দায়িত্ব পাননি। গ্রোয়েন ইনজুরির কারণে তামিম ওয়ানডে সিরিজ থেকে ছিটকে যাওয়ায় লিটনকে অধিনায়ক করা হয়েছে। লিটন বলেন, ‘অবশ্যই খুব ভালো লাগছে এবং অনেক উত্তেজনা বোধ করছি। এবার হঠাৎ করেও পাইনি এটা। প্রায় ১০ দিন দলের অধিনায়ক থাকব।

দলের কাছ থেকে ভালো ফিডব্যাক আশা করছি।’ শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে প্রায় ৬ মাস পর আবার ওয়ানডে ফরম্যাটে ফিরতে হবে। মাঝে শুধু টি২০ ফরম্যাট খেলেছে বাংলাদেশ। এ বিষয়ে লিটন বলেন, ‘ভারত সবসময় ভালো দল। এটাও মানতে হবে, ঘরের মাঠে আমরাও অনেক ভালো দল। অবশ্যই দুই মূল খেলোয়াড়কে মিস করব। তবে যারা আছে ওরাও ভালো করার সামর্থ্য রাখে। দর্শক সবসময় আমাদের পক্ষে থাকে। জানি না মিরপুরের উইকেট কেমন আচরণ করবে। তবে তারা এই উইকেট সম্পর্কে খুব একটা জানে না। এটা আমাদের জন্য প্লাস পয়েন্ট।’

দলের লক্ষ্য নিয়ে লিটন আরও বলেন, ‘লক্ষ্য একটাই। জেতার জন্যই খেলতে নামব। ওদের সঙ্গে লড়াই করা পুরোপুরি সম্ভব। আমাদের তিন বিভাগই ভালো আছে। তাদের ব্যাটিং লাইনআপ খুবই ভালো। শুধু কোহলি না, রোহিত, ধাওয়ান, রাহুল- আমাদের বোলারদের নিয়ে আমরা আত্মবিশ্বাসী। আমার হাতে ১৫ বছরের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ৩ জন সিনিয়র খেলোয়াড় আছে। আমি আশাবাদী, বড় ভাইরা আমাকে সহায়তা করবে। হোমে মূল লক্ষ্য সিরিজ জেতা। এটাই মূল লক্ষ্য থাকবে। এই সিরিজ নিয়ে প্রত্যেক খেলোয়াড় অনেক আশাবাদী।’

বাংলাদেশকে এখন কোনোভাবেই সহজ প্রতিপক্ষ ভাবার সুযোগ নেই ভারতের। স্বল্প পরিসরের ফরম্যাটে গত ৭-৮ বছর ধরেই বেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ও উত্তেজনায় ঠাসা ম্যাচ হয়েছে দুদলের। বিষয়টি নিয়ে লিটন মনে করছেন, ভারতীয় দল কোনোভাবেই বাংলাদেশকে আন্ডারডগ ভাবতে পারবে না এটাই বড় ব্যাপার। আর রোহিত এ বিষয়টি নিয়ে বলেছেন, ‘আমার মনে হয় এ সিরিজটি খুবই প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হতে যাচ্ছে। যখনই আমরা বাংলাদেশে আসি তারা খুবই চ্যালেঞ্জিং দল হিসেবে পাই। আমাদের অনেক ভালো খেলতে হবে তাদের হারাতে হলে। সেটা হোক ব্যাটিং, বোলিং কিংবা ফিল্ডিংয়ে ভালো করে। তারা খুবই প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ দল হিসেবে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে।
সে কারণে আমাদের সেরাটা দিতে হবে সিরিজ জেতার জন্য।’ সর্বশেষ ২০১৫ সালে বাংলাদেশে এসে সিরিজ হারের বিষয়টিও মনে আছে রোহিতের। সাম্প্রতিক বছরগুলোয় বাংলাদেশের সঙ্গে যে জোর প্রতিদ্বন্দ্বিতা সে বিষয়টি মাথায় নিয়ে রোহিত বলেন, ‘প্রথমত সিরিজ জয়ের দিকেই আমাদের লক্ষ্য। আমরা একটা একটা করে ম্যাচের দিকে মনোযোগ দিতে চাই। সত্যি বলতে সে কারণে আমি প্রতিপক্ষের যে কম্বিনেশন তাতে মনোযোগ দিচ্ছি না। ভারতীয় ক্রিকেট দল হিসেবে আমাদের ভালো খেলতে হবে। দুই দলের মধ্যে অনেক বছর ধরেই উত্তেজনাপূর্ণ প্রতিদ্বন্দ্বিতা চলছে। সর্বশেষ ৭-৮ বছরে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল বদলে গেছে। তারা খুবই চ্যালেঞ্জিং দল এবং আমরা তাদের বিপক্ষে সহজ জয় পায়নি।’

monarchmart
monarchmart