ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

চ্যাট জিপিটির নতুন সিইও মীরা মুরাতি 

কেন তাঁকে নিয়ে এতো আলোচনা 

প্রকাশিত: ১২:২২, ২০ নভেম্বর ২০২৩; আপডেট: ১২:৩২, ২০ নভেম্বর ২০২৩

কেন তাঁকে নিয়ে এতো আলোচনা 

সম্প্রতি চ্যাট জিপিটির নির্মাতা স্যাম অল্টম্যানকে বরখাস্ত করেছে প্রতিষ্ঠানটির সংস্থা ওপেন এআই। একই সাথে এর নতুন সিইও পদে মীরা মুরাতি নামের এক নারীকে যুক্ত করা হয়েছে। এর আগে তিনি ছিলেন ওপেন এআই সংস্থার চিফ টেকনোলজি অফিসার। 

মীরা মুরাতি নতুন সিইও হওয়ার পর থেকেই চলছে বিভিন্ন রকমের আলোচনা। জন্ম নিয়েছে জানার আগ্রহ।

আরও পড়ুন : ২৩১ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

চলুন জেনে নেওয়া যাক কে এই মীরা মুরাতি। অ্যালবেনিয়ায় জন্মগ্রহণ করা মীরা মুরাতির বেড়ে ওঠা কানাডায়। ডার্টমাউথ কলেজে পড়াশোনা চলাকালেই নিজের পারদর্শিতা  দেখাতে পেরেছেন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে। এরোস্পেস, অটোমোটিভ, ভার্চুয়াল রিয়েলিটি বা ভিআর, অগমেন্টেটেড রিয়েলিটি বা এআর- এসব মাধ্যমে কাজ করেছেন তিনি। শুধু তাই নয় এই মীরা ইলন মাস্কের ইলেকট্রিক গাড়ি নির্মাণকারী সংস্থা টেসলাতেও সিনিয়র প্রোডাক্ট ম্যানেজার হিসেবে কাজ করেছেন।

এর আগে লিপ মোশন নামের একটি ভার্চুয়াল রিয়েলিটি সংস্থায় কর্মরত ছিলেন মীরা। সেখানে তার মূল কাজ ছিল আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের অ্যাপ্লিকেশন বাস্তবজীবনে যুক্ত করা। বাস্তবের পৃথিবীর নিরিখে এইসব এআই অ্যাপ্লিকেশন কীভাবে কাজ করে তা পরীক্ষা নিরীক্ষাও তিনিই করতেন।

ইটালিয়ান, অ্যালবেনিয়ান ও ইংরেজি- তিন ভাষাতে দক্ষ মীরা মুরাতি ওপেন এআই সংস্থায় যোগ দিয়েছিলেন ২০১৮ সালে। সে সময় তার দায়িত্ব ছিল সুপারকম্পিউটিং স্ট্র্যাটেজি নিয়ে কাজ করা। একইসঙ্গে রিসার্চ টিমকে ম্যানেজ করার দায়িত্বও ছিল তার উপর। সংস্থার লিডারশিপ টিমের সদস্যও ছিলেন তিনি। ২০২২ সালে আবিষ্কৃত হওয়া চ্যাট জিপিটির মনিটরিংয়ের দায়িত্ব তাকে দেওয়া হয়েছিল। তবে যে ব্যক্তি চ্যাট জিপিটি আবিষ্কার করেন তাকে দায়িত্বে অবহেলার মত কারণ দেখিয়ে বহিষ্কার করা হয়েছে। যা মানতে পারেননি প্রতিষ্ঠানটির প্রেসিডেন্টসহ অনেকেই।

এবি 

×