ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

বন্যায় দুর্ভোগ

প্রকাশিত: ২০:০৩, ২১ জুন ২০২৪

বন্যায় দুর্ভোগ

.

গত মাসে সিলেটে প্রথম দফা বন্যার পানি পুরোপুরি নেমে না যেতেই ফের বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছে বিভাগটি। এতে সেখানকার প্রায় ১৭ লাখ মানুষ বন্যায় আক্রান্ত হয়েছেন। ঈদের দিন ভোর থেকে সিলেটে শুরু হয় ভারি বর্ষণ, সঙ্গে নামে পাহাড়ি ঢল। সকাল হতে না হতেই তলিয়ে যায় নগরীর অনেক এলাকা, বিভিন্ন স্থানে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে থাকে। ইতোমধ্যে সুনামগঞ্জ শহরসহ তলিয়ে গেছে বিভিন্ন নি¤œাঞ্চল। বানের পানিতে রাস্তাঘাট ডুবে যাওয়ায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন অনেক মানুষ, ভেসে গেছে পুকুরের মাছ, খামারের গবাদিপশু। গোলার ধান-চাল নিয়ে বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা। জলাবদ্ধতার কারণে অনেকেই কোরবানি দিতে হিমশিম খেয়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে ম্লান ছিল সিলেটবাসীর এবারের ঈদ আনন্দ। পানি বেড়ে যাওয়ায় সিলেটের প্রায় সব পর্যটনকেন্দ্র বন্ধ ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন। আবার বন্যা পরিস্থিতির কারণে সিলেট বিভাগের এইচএসসি সমমানের জুন মাসের পরীক্ষা আগামী জুলাই পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস অনলাইনে নেওয়া এবং পরীক্ষার সময়সূচি পরিবর্তনেরও।

এমন নয় যে, অতীতে সিলেটে ভারি বৃষ্টিপাত হয়নি, মাঠ-ঘাট পানিতে ভরে যায়নি। তবে আগে বৃষ্টি হলেও পানি নেমে যেত দ্রুত।

ফলে শহরে প্লাবন হতো না। কিন্তু সিলেটবাসী গত কয়েক বছর ধরে কখনো পাহাড়ি ঢল, কখনো ভারি বৃষ্টিতে ডুবে যাচ্ছে। ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্স কার্যালয়সহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায়ও পানি ঢুকে পড়ছে। স্থানীয়দের ক্ষোভÑ সিলেটে বন্যার নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে সেখানকার হাটবাজারগুলোতেও। নিমিষেই বাজারগুলো থেকে উধাও হয়ে যাচ্ছে মোমবাতি, চিড়া সিলিন্ডার গ্যাস, অল্প সময়ের ব্যবধানে বেড়ে যাচ্ছে পণ্যদ্রব্যের দাম, যা কখনো, কোনোভাবেই কাম্য নয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, সিলেট সুনামগঞ্জের বিভিন্ন নদী প্রভাবশালী সাধারণ মানুষসহ সরকারি প্রতিষ্ঠানও দখল করে রেখেছে। এক্ষেত্রে নদী রক্ষায় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বহীনতা এবং অপরিকল্পিত নগর উন্নয়ন কর্মকান্ডের কারণেই সিলেট বিভাগে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে। জলাবদ্ধতা নিরসনে নানা প্রকল্পে হাজার কোটি টাকা ব্যয় করার পরও কেন ভারি বৃষ্টি হলেই তলিয়ে যাচ্ছে সিলেট নগরী- এমন প্রশ্ন উঠছে। সন্দেহ রয়েছে প্রকল্পগুলোর সুষ্ঠু পরিকল্পনা স্বচ্ছতা নিয়েও।

বাংলাদেশ দুর্যোগপ্রবণ এলাকা। কিছুদিন আগেই রেমালের আঘাতে পর্যুদস্ত হয়েছে দেশের দক্ষিণাঞ্চল। এবার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন সিলেটের মানুষ। দেশে মৌসুমি বায়ু সক্রিয় হয়ে উঠায় রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম সিলেট বিভাগে দুয়েকদিনের মধ্যে ভারি বর্ষণের সতর্কবাণী দিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

সেইসঙ্গে বৃষ্টির কারণে চট্টগ্রাম সিলেট বিভাগের পাহাড়ি এলাকায় কোথাও কোথাও ভূমিধসের শঙ্কাও রয়েছে। কাজেই দেশব্যাপী প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায় সরকার এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের যথাযথ আগাম প্রস্তুতি নেওয়া আবশ্যক। সিলেটের বন্যা পরিস্থিতি প্রধানমন্ত্রী গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছেন এবং প্রতিনিয়ত খোঁজ-খবর রাখছেন। বন্যার্তদের মাঝে চাল, শুকনা খাবার, শিশুখাদ্য গোখাদ্যের জন্য নগদ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ত্রাণ মন্ত্রণালয়।  বন্যার্তদের  স্বাস্থ্যসেবা  নিশ্চিত করতে ইউনিয়ন পর্যায়ে মেডিক্যাল টিম গঠন করা হয়েছে। পাশাপাশি বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় দল-মত নির্বিশেষে সবার বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ানো জরুরি।

×