ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯

জাতীয় শোক দিবসে সোচ্চার বাঙালী জাতি

অপশক্তি রোখার শপথ

বিশেষ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০০:২১, ১৬ আগস্ট ২০২২

অপশক্তি রোখার শপথ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের পর মোনাজাত করেন

মাত্র ৫৫ বছরের জীবনে তিনি হয়ে উঠেছেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী, সেই জীবন সাগরের ঢেউয়ে চেপে বাঙালী পৌঁছেছে স্বাধীনতার বন্দরেশাসকের দমন-পীড়ন রুখতে পারেনি টুঙ্গিপাড়ার ছোট্ট খোকার পথ; তাঁর নেতৃত্বের ইন্দ্রজালে আটকা পড়েছে মহাকালতিনি বঙ্গবন্ধু, তিনি বাংলাদেশের জাতির পিতা, শেখ মুজিবুর রহমানঘাতকের বুলেটে তাঁর রক্ত ঝরিয়েছে, কিন্তু বাঙালীর জীবন থেকে সেই মহাজীবনের ছায়া কী কেড়ে নিতে পেরেছে? পারেনিকারণ বঙ্গবন্ধু মিশে আছেন বাঙালীর অনুভূতি ও অন্তরাত্মায়বাঙালীর মৃত্যুঞ্জয়ী চেতনায় বঙ্গবন্ধু বেঁচে আছেন, আজীবন বেঁচে থাকবেন

৪৭ বছর হয়ে গেল, এখনও মৃত্যুঞ্জয়ী মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে ভোলেনি কৃতজ্ঞ বাঙালীবরং নতুন করেই নতুন শপথে বলিয়ান হয়ে সোমবার ৪৭ বছর আগের ভয়াল এক রাতের শোকাবহ স্মৃতি স্মরণ করেছেঘাতকরা বঙ্গবন্ধুর নশ্বর শরীর কেড়ে নিলেও তাঁর অবিনশ্বর চেতনা ও আদর্শ যে মৃত্যুঞ্জয়ী, ঘাতকের সাধ্য ছিল না ইতিহাসের সেই মহানায়কের অস্তিত্বকে বিনাশ করে- কৃতজ্ঞ বাঙালী জাতি স্বাধীনতার প্রাণপুরুষ বঙ্গবন্ধুর প্রতি সর্বজনীন শ্রদ্ধা নিবেদনের মাধ্যমে প্রতিবছর তারই জানান দেয়বঙ্গবন্ধু মৃত্যুর ৪৭ বছর পরেও সমান ভাবেই রয়েছেন সমুজ্জ্বল

তাই জাতির পিতার প্রয়াণ দিবসে যেন শোকস্তব্ধ ছিল দেশের সব প্রান্তরশোকাচ্ছন্ন নীরবতায় যেন থমকে গিয়েছিল গোটা দেশযিনি জাতিকে উপহার দিয়ে ছিলেন স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ, লাখো শহীদের রক্তস্নাত লাল-সবুজের পতাকাশুনিয়েছিলেন সেই অমর বাণী- এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম

বাংলাদেশ নামক স্বাপ্নিক রাষ্ট্রের মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাতবার্ষিকীতে হাজার হাজার শোকার্ত মানুষের বিন¤্র শ্রদ্ধা ও হৃদয় নিংড়ানো ভালবাসার পাশাপাশি ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করেছেন, তাঁর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে নতুন করে দৃপ্ত শপথ নিয়েছেন

ধানমন্ডি ৩২ নম্বরবাঙালীর আশ্রয়স্থল, আশা-ভাবনার মূর্ত প্রতীকঅনিবার্য ঠিকানা আর স্বপ্নের গন্তব্য মহলরাতের শেষ প্রহর তখন আকাশের গায়ে জেগে উঠতে শুরু করেছেতখনও ধানম-ির ৩২ নম্বর বাড়িটির সামনে দাঁড়িয়ে আছে নারী-পুরুষসবার হাতে শ্রদ্ধার ফুলতাদের ভেতর কেউ কেউ নীরবে তাকিয়ে আছে মোটা কালো ফ্রেমের চশমা চোখের রঙিন প্রতিকৃতির দিকেনিয়ন বাতির আলোয় জ্বল জ্বল করছে চমশার ভেতর দিয়ে সে চোখ দুটো

প্রতিকৃতির সামনের বেদি সকাল হতেই ছেয়ে গেছে ফুলে ফুলেপেছনে নিস্তব্ধ একটি বাড়িযে বাড়ির ভেতর রাখা আছে মোটা ফ্রেমের এ চশমাটিকারও ব্যবহারের জন্য কোন টেবিলে নয়; জাদুঘরের সামগ্রী হিসেবেতবে রাজপথের মানুষের শ্রদ্ধার অর্ঘ নিয়ে প্রাণের স্পন্দনে সোমবার যেন এ প্রতিকৃতির চোখে আলো জ্বলে উঠেছিল

এবারের জাতীয় শোক দিবসে স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তির সকল ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত মোকাবেলা, পলাতক খুনীদের ফিরিয়ে এনে ফাঁসির রায় কার্যকরের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু হত্যাকা-ের নেপথ্যের মূল কুশীলবদের খুঁজে বের করে মুখোশ উন্মোচন করতে দ্রুত উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিশন গঠন করে তাদের বিচারের মুখোমুখি করার দাবি উঠেছে সর্বত্রপাশাপাশি বঙ্গবন্ধুর খুনীদের প্রেতাত্মা এবং স্বাধীনতাবিরোধী সাম্প্রদায়িক ও জঙ্গী সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করার শপথ উচ্চারণ করা হয় সর্বত্র

হাজার হাজার শোকার্ত মানুষের বিন¤্র শ্রদ্ধা ও হৃদয় নিংড়ানো ভালবাসার পাশাপাশি ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হলেন বাংলাদেশের মহান স্থপতি, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানধানম-ির বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের সামনে এবং টুঙ্গিপাড়ার সমাধিতে দিনভর বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেছেন জাতির পিতাকেজাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে বাঙালী জাতি গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে পালন করেছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাতবার্ষিকী, জাতীয় শোক দিবস

৪৭টি বছর পার হয়ে গেলেও মৃত্যুঞ্জয়ী মহানায়ক বঙ্গবন্ধুকে এতটুকু ভোলেনি কৃতজ্ঞ বাঙালী জাতিতাঁর প্রয়াণ দিবসে যেন শোকস্তব্ধ ছিল দেশের সব প্রান্তরশোকাচ্ছন্ন নীরবতায় থমকে গিয়েছিল গোটা দেশধানমণ্ডির বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের সামনে এবং টুঙ্গিপাড়ার মাজারে দিনভর স্বাস্থ্যবিধি মেনেই বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেছেন জাতির পিতাকে

যার দীর্ঘ সংগ্রাম, আত্মত্যাগ ও নেতৃত্বে আমরা পেয়েছি মহার্ঘ্য স্বাধীনতা, স্বাধীন-সার্বভৌম মানচিত্র ও পতাকাহৃদয়ের গভীরতা থেকে শ্রদ্ধা নিবেদনের পাশাপাশি খুনী মীরজাফর-বেইমানদের প্রতি ঘৃণা-ধিক্কারের মাত্রাও ছিল প্রচ-

রাজধানী ছাড়াও সারাদেশে এবং দেশের বাইরে বাংলাদেশের কূটনৈতিক মিশনগুলো বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদনসহ নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে জাতির পিতার ৪৭তম শাহাদাতবার্ষিকী, জাতীয় শোক দিবস পালন করেশোক দিবস উপলক্ষে দিনব্যাপী কোরান তেলাওয়াত, দিনভর বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ প্রচার, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ, কালো ব্যাজ ধারণ, শোকর‌্যালি, মিলাদ মাহফিল, রক্তদান কর্মসূচী, আলোচনা সভা, আলোকচিত্র প্রদর্শনী এবং দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়

করোনার কারণে কিছুটা বিধিনিষেধ থাকলেও শোকার্ত মানুষের ঢল থামানো যায়নিধানম-ির ৩২ নম্বরের ভবনটিকে ঘিরে কাকডাকা ভোর থেকেই শোকার্ত মানুষের উপস্থিতি ছিল ব্যাপকআজ থেকে ৪৭ বছর আগে এমনই শেষ রাতে এ বাড়ির সামনে মানুষ নয়, এসেছিল মানুষের রূপধারী একদল পশুতারা এসেছিল সশস্ত্র অবস্থায়এখানে এসে তারা হত্যা করেছিল গোলাপের থেকে সুন্দর ও পবিত্র এক শিশুপুত্রকেতারা হত্যা করেছিল নতুন করে পৃথিবী সাজাতে মেহেদি রাঙা হাতে যে তরুণী নববধূ হয়ে এসেছিল স্বপ্নভরা যুবকের হাত ধরে- তাকে মেহেদি শুকানোর আগেই

আর যে চশমাটি এখন এ বাড়ির জাদুঘরসামগ্রী- গুলিতে ছিটকে পড়েছিল, সে চশমাটিতাদের গুলিতে বুক ঝাঁঝরা হয়ে রক্তাক্ত হন হিমালয়ের চেয়ে বিশাল এক মানুষহিমালয়ের সঙ্গে তুলনা করলেও ভুল হবে, তাঁর সময়ের তিনি ছিলেন পৃথিবীর সব থেকে উঁচু মানুষতিনি আমাদের জাতির জনকআমাদের রাষ্ট্রের স্রষ্টাচিরকালের অবহেলিত, নিপীড়িত একটি পশ্চাপদ জাতির তিনি পিতাতাঁকে যারা হত্যা করেছিল তাদের সামনেও তিনি নেমে এসেছিলেন পিতার মতো বিশাল এক বুক নিয়েনির্মম ঘাতকরা সে বুকেই চালিয়েছিল গুলি

তারপর ৪৭ বছর কেটে গেছে এ জাতির জীবন থেকেজাতি কেবলই পরিচিত হয়েছে পিতৃহন্তারক জাতি হিসেবে, বিশ্বাসঘাতক হিসেবেকয়েক খুনী আর ষড়যন্ত্রকারীর ইতিহাসের নিষ্ঠুর হত্যাযজ্ঞের দায় বহন করতে হয়েছে প্রতিমুহূর্তে, প্রতিক্ষণে জাতিকেকিন্তু সোমবার ভোর থেকেই এখানে যারা এসেছিল, তাঁরা অনেকটাই ভারমুক্ততাদের মুখের ভাষা, বুকের ভাষা বারবার বলতে থাকে, পিতা তোমার হত্যাকারীকে আমরা ফাঁসির রজ্জুতে ঝুলিয়েছিআমরা কিছুটা হলেও পাপমোচন করেছিইতিহাসের চরম সত্যকে প্রকাশ ঘটিয়ে তাই তারা যেন জানিয়ে যায়- খুনীরা এসেছিল তস্করের মতো আর আমরা এসেছি বিজয়ী বেশেতারা তোমার এ বাড়ির সামনে এসেছিল রাতের অন্ধকারকে আরও গাঢ় করতে, আমরা এসেছি নতুন দিনের সূর্যকে আহ্বান জানাতে

তাই শ্রদ্ধাবনত চিত্তে জাতি স্মরণ করেছে ইতিহাসের মহামানব জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকেসবার বুকে ছিল শোকের প্রতীক কালো ব্যাজআর চোখেমুখে শোকের ছায়াদিনভর আবালবৃদ্ধ-বনিতার ভিড় ঘিরে রেখেছিল সবুজ ছায়াঘেরা বঙ্গবন্ধু ভবন আর ধানম-ি ৩২ নম্বর এলাকাটিকেকরোনার ভয় দমাতে পারেনি জনতার আবেগ-হৃদয়ের গভীরে বিঁধে থাকা শোকের সমুদ্রকে

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সোমবার ভোরে বঙ্গবন্ধু এভিনিউর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ দলের ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন ইউনিট কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত এবং কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সরকারী, আধা-সরকারী, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বেসরকারী ভবন ও বিদেশস্থ বাংলাদেশ মিশনসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়দিবসটি উপলক্ষে রবিবার সন্ধ্যা থেকেই রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা, পাড়া-মহল্লায় বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ও দেশাত্মবোধক গান বাজানো হয়

রাষ্ট্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার ভোরে রাজধানীর ৩২ নম্বরে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধ নিবেদন করেনপ্রতিকৃতির বেদিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণের পর হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ এই বাঙালীর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেনবাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর একটি সুসজ্জিত চৌকস দল এ সময় রাষ্ট্রীয় সালাম জানায়, বিউগলে করুণ সুর বেজে ওঠে

শ্রদ্ধা নিবেদনের পর পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট শহীদদের স্মরণে অনুষ্ঠিত বিশেষ মোনাজাতে অংশগ্রহণ করেন বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাএরপর দলের নেতাদের সঙ্গে নিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি হিসেবে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণের পর প্রধানমন্ত্রী ধানম-ি ৩২ নম্বরের ঐতিহাসিক বাড়িটিতে প্রবেশ করে সেখানে কিছুক্ষণ অবস্থান করেনসেখানে ৪৭ বছর আগে ইতিহাসের এক বর্বরতম হত্যাযজ্ঞ সংঘটিত হয় এবং পরে বাড়িটিকে জাদুঘরে রূপান্তরিত করা হয়প্রধানমন্ত্রী সেখান থেকে বনানী কবরস্থানে যানযেখানে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিব, তাঁর তিন ভাই শেখ কামাল, শেখ জামাল এবং শেখ রাসেলসহ ১৫ আগস্টের শহীদরা শায়িত রয়েছেন

আবেগেজড়িত প্রধানমন্ত্রী  তাঁদের কবরে গোলাপের পাঁপড়ি ছড়িয়ে দেনএ সময় তাঁর দুই চোখে ছিল স্বজন হারানোর তীব্র বেদনার অশ্রুসেখানে তিনি ফাতেহা পাঠ করেন এবং তাঁদের রুহের মাগফিরাত কামনা ও দোয়া করেন

প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদনের পর জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগস্টের সকল শহীদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করেনএরপর প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং কিছু সময় নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন এবং বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগস্টের সকল শহীদের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন

বনানী কবরস্থানে ১৫ আগস্টের শহীদদের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের কাছে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উত্তরাধিকার হিসেবে তাঁর স্বপ্ন পূরণ করার জন্য সংগ্রাম করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাস্বাধীনতা ও মুক্তির সংগ্রামে নেতৃত্বদানকারী রাজনৈতিক দল হিসেবে আওয়ামী লীগ যুগ যুগ ধরে এদেশের মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকবে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৩২ নম্বর ধানম-ি এবং বনানী কবরস্থানে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে হেলিকপ্টারযোগে বঙ্গবন্ধুর পৈতৃক নিবাস টুঙ্গিপাড়ায় যানসেখানে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী জাতির পিতার সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেনশ্রদ্ধা নিবেদনের পর বঙ্গবন্ধুকন্যা স্বাধীনতার মহান স্থপতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে সেখানে কিছুক্ষণ নিরবে দাঁড়িয়ে থাকেনসশস্ত্র বাহিনীর একটি সুসজ্জিত চৌকস দল সেখানে রাষ্ট্রীয় সালাম প্রদান করে এবং এ সময় বিউগলে করুণ সুর বেজে ওঠে

প্রধানমন্ত্রী এরপর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব ও ৭৫-এর ১৫ আগস্টের সকল শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে জাতির পিতার সমাধিতে ফাতেহা পাঠ ও মোনাজাত করেনএছাড়া জাতির অব্যাহত শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মোনাজাত করা হয়

প্রধানমন্ত্রীর এরপর দলের সভাপতি হিসেবে আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে নিয়ে দলের পক্ষ থেকে জাতির পিতার সমাধিতে আরেকটি পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেনপরে প্রধানমন্ত্রী জাতির পিতার সমাধি সৌধ প্রাঙ্গণে আয়োজিত মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে অংশগ্রহণ করেন

শ্রদ্ধা নিবেদন ছাড়াও দিনভর ধানম-ির বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর ঘুরে ঘুরে নতুন প্রজন্মের শিশু-তরুণরা দেখেছে ভয়াল ১৫ আগস্টের নিষ্ঠুর হত্যাযজ্ঞ ও নারকীয় পৈশাচিকতার দৃশ্যস্মৃতি জাদুঘর ঘুরে ইতিহাসের নৃশংসতম সেই হত্যাকা-ের ঘটনাবলির সঙ্গে পরিচত হতে গিয়ে অনেকের চোখেই নেমেছিল অশ্রুধারাএছাড়া বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের সামনে স্বেচ্ছাসেবক লীগের আলোকচিত্র প্রদর্শনী ঘুরে ঘুরে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস প্রত্যক্ষ করেন শ্রদ্ধা জানাতে আসা হাজারো বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষ, শিক্ষার্থী

রাজধানী ছাড়াও সারাদেশে এবং দেশের বাইরে বাংলাদেশের কূটনৈতিক মিশনগুলো বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদনসহ নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে শোক দিবস পালন করেশোক দিবস উপলক্ষে দিনব্যাপী কোরান তেলাওয়াত, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ প্রচার, বঙ্গবন্ধুর সমাধি ও প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ, কালো ব্যাজ ধারণ, মিলাদ মাহফিল, রক্তদান কর্মসূচী, আলোচনা সভা, আলোকচিত্র প্রদর্শনী ও দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়

শোক দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ বেতার এবং বাংলাদেশ টেলিভিশনে শোক দিবসের বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালা সরাসরি সম্প্রচারসহ বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার এবং সংবাদপত্রসমূহ বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করেবায়তুল মোকাররম মসজিদসহ সারাদেশের মসজিদ, মন্দির, গীর্জা ও প্যাগোডায় বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা সভা অনুষ্ঠিত হয়

রাজধানীর ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে ১৫ আগস্ট নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা করে প্রার্থনা সভা অনুষ্ঠিত হয়এছাড়া দেশের গীর্জা, প্যাগোডাসহ বিভিন্ন উপসনালয়ে বঙ্গবন্ধুর আত্মার শান্তি কামনা করে বিশেষ প্রার্থনা সভা অনুষ্ঠিত হয়

যে পথে ঘাতকের ট্যাঙ্ক ধানম-ির ৩২ নম্বরে গিয়ে জাতির পিতাকে সপরিবারে হত্যা করে জাতিকে অন্ধকারে নিমজ্জিত করেছে, সেপথে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানরা প্রতিবছর প্রজ্বলিত মশাল হাতে নিয়ে আলোর মিছিল করেদেশকে আলোর পথে ফিরিয়ে আনার প্রত্যয় নিয়ে এবারের জাতীয় শোক দিবসে তারা ৪৭টি মশাল নিয়ে এই আলোর মিছিল করেমিছিলটি রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউ থেকে শুরু হয়ে ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরের বঙ্গবন্ধুর বাড়িতে গিয়ে জাতির পিতার প্রতিকৃতির সামনে শপথ গ্রহণ, ফাতেহা পাঠ ও মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়

আলোর মিছিলের উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য শাজাহান খান এমপিপ্রধান অতিথির বক্তব্যে রাখেন আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপিমিছিলের আগে আয়োজিত পথসভায় সভাপতিত্ব করেন আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের কেন্দ্রীয় সভাপতি মোঃ সাজ্জাদ হোসেনসঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক রাশেদুজ্জামান শাহীন

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের আয়োজনে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ১০০ বার কোরান খতম ও বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে১০০ জন কোরানে হাফেজের মাধ্যমে ১০০ বার কোরান খতম সম্পন্ন করা হয়কোরান খতম শেষে জাতির জনক ও তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খানসভাপতিত্ব করেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) ড. মোঃ মুশফিকুর রহমান

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবে রক্ষিত জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন জাতীয় প্রেসক্লাব, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে), ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নসহ (ডিউজে) সাংবাদিক নেতারাপ্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমীনের নেতৃত্বে সদস্যরা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান এবং বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগস্টের সকল শহীদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাতে অংশ নেন

বঙ্গভবনে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ সোমবার বঙ্গভবনের দরবার হলে জাতীয়  শোক দিবস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে মাগরিবের নামাজের পর এক মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টে শাহাদাতবরণকারী বঙ্গবন্ধু ও পরিবারের অন্য সদস্যদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়এছাড়া ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধে যারা শহীদ হয়েছেন এবং বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলনে যারা জীবন দিয়েছেন তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করা হয়

বাংলাদেশের শান্তি ও অগ্রগতি এবং বিশ্ববাসী তথা মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা করে দোয়া করা হয়বিভিন্ন বালা মুসিবত থেকে বিশ্বকে মুক্তি দেয়ার জন্য সর্বশক্তিমান আল্লাহর রহমত কামনা করেও দোয়া করা হয়

রাষ্ট্রপ্রধান মোঃ আবদুল হামিদ মাগরিবের নামাজের আগে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে যোগ দেন, বঙ্গভবনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ স্বাস্থ্য নির্দেশিকা পালন করেনমিলাদ-মাহফিল ও মোনাজাতে রাষ্ট্রপতির পরিবারের সদস্য, সংশ্লিষ্ট সচিব, বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তা ও রাষ্ট্রপতি ভবনের কর্মচারীরা অংশ নেনমোনাজাত পরিচালনা করেন বঙ্গভবন জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মুহাম্মদ সাইফুল কবির