ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

অনন্যা সাহিত্য পুরস্কার পেলেন শাহ্‌নাজ মুন্নী

প্রকাশিত: ২১:২৫, ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

অনন্যা সাহিত্য পুরস্কার পেলেন শাহ্‌নাজ মুন্নী

অনন্যা সাহিত্য পুরস্কার অনুষ্ঠান। 

অনন্যা সাহিত্য পুরস্কার-১৪২৯ পেলেন কবি, কথাসাহিত্যিক ও সাংবাদিক শাহনাজ মুন্নী। গল্প, উপন্যাস ও কবিতায় অনন্য অবদানের জন্য তাকে এই স্বীকৃতি দেয়া হয়।

শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টায় জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে এ পুরস্কার তুলে দেয়া হয়।

বাংলা ১৪০১ সনে (১৯৯৩ সাল) ‘অনন্যা সাহিত্য পুরস্কার’ প্রবর্তন করা হয়। সাহিত্যে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে প্রতিবছর একজন কৃতী নারী সাহিত্যিক অথবা সাহিত্য–গবেষককে এ পুরস্কার দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক আনোয়ারা সৈয়দ হক।

তিনি বলেন, শাহ্‌নাজ মুন্নী সাহিত্যজগতে এক নতুন ধারা সৃষ্টি করেছেন। তার জীবনদর্শন অনেক গভীর। তিনি তিলে তিলে নিজেকে কবি ও কথাসাহিত্যিক হিসেবে তৈরি করেছেন। শাহ্‌নাজের সাহিত্য পড়ে তিনি নিজে অনুপ্রাণিত হয়েছেন।

এছাড়া তিনি আরও বলেন,  অন্যন্যা সাহিত্য পুরস্কার নারী সাহিত্যিকদের অগ্রগতির পথে এগিয়ে নিচ্ছে। একজন নারীর সাহিত্যিক হওয়ার পেছনে অনেক দুঃখ–কষ্ট থাকে। সংসারের প্রাত্যহিক অনেক কাজ দক্ষতার সঙ্গে করতে না পারার কারণে অনেক সময় তারা সমাদৃত হতে পারেন না। 

পুরস্কার হাতে পেয়ে শাহ্‌নাজ মুন্নী বলেন, সাহিত্যে এটা আমার প্রথম আনুষ্ঠানিক পুরস্কার। তবে দীর্ঘ সাহিত্যজীবনে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া ও অনুপ্রেরণার অনেক অনানুষ্ঠানিক পুরস্কার জমেছে। দেশে নারীদের অনেক প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে চলতে হয়, সামাজিক সব দায়িত্ব ও কর্তব্য নারীদের ওপর চাপানো হয়। সেসব পালন করে একজন নারী সাহিত্যচর্চায় অংশ নিতে পারেন। আমি লেখার মাধ্যমে আনন্দ খুঁজে পাই। আজীবন সাহিত্যচর্চা চালিয়ে যেতে চাই।

শাহনাজ মুন্নীর জন্ম ১৯৬৯ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজবিজ্ঞানে উচ্চতর শিক্ষা গ্রহণের পর পেশা হিসেবে বেছে নেন টেলিভিশন সাংবাদিকতা।

এ পর্যন্ত শাহ্‌নাজ মুন্নীর প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ২৪টি। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, এলো ক্রুদ্ধ অন্ধকার, বাদুর ও ব্র্যান্ডি, তৃতীয় ঘণ্টা পড়ার আগেই, পান সুন্দরী, নির্বাচিত গল্প, আমি আর আমিন যখন আজিমপুর থাকতাম। 

 

এমএম

সম্পর্কিত বিষয়:

×