ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২২ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১

পোলট্রি পণ্য আমদানি নিষিদ্ধ ঘোষণা

প্রকাশিত: ২২:৩৮, ২৬ মে ২০২৪

পোলট্রি পণ্য আমদানি নিষিদ্ধ ঘোষণা

পোল্ট্রি মুরগি। 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভিক্টোরিয়া থেকে সমস্ত পোলট্রি পণ্য আমদানি নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। দেশটির কৃষি বিভাগ এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা প্রাদুর্ভাবের পরে সমস্ত ভিক্টোরিয়ান পোল্ট্রি পণ্য আমদানি নিষিদ্ধ করা হয়। 

সাধারণত বার্ড ফ্লু নামে পরিচিত ভাইরাসটির H7N3 স্ট্রেন গত বুধবার মেলবোর্নের পশ্চিমে মেরেডিথের একটি ডিমের খামারে পাওয়া গেছে। 

চলতি সপ্তাহে পাঁচ লাখেরও বেশি পাখির মৃত্যু হয়েছে। H7N3 হলো এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জার একটি উচ্চ প্যাথোজেনিক স্ট্রেন এবং ভাইরাসের বিস্তারে মেরেডিথ ফার্মে চার লাখ মুরগির মৃত্যু হয়েছে।

ইউএস ডিপার্টমেন্ট অফ এগ্রিকালচারের অ্যানিমেল অ্যান্ড প্ল্যান্ট হেলথ ইন্সপেকশন সার্ভিস (এপিএইচআইএস) বলেছে, অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া থেকে মুরগি, বাণিজ্যিক পাখি, রেটিস, এভিয়ান হ্যাচিং ডিম, অপ্রক্রিয়াজাত এভিয়ান পণ্য, উপজাত পণ্য এবং কিছু পোল্ট্রি পণ্যের আমদানি সীমাবদ্ধ করা হয়েছে। এই নিষেধাজ্ঞাটি আগামী ২২ মে পর্যন্ত ভিক্টোরিয়ার মধ্য দিয়ে উৎপন্ন বা ট্রানজিট করা পণ্যের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।’

ভিক্টোরিয়ান ফার্মার্স ফেডারেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ড্যানিয়েল কুচিনোটা বলেছেন, ‘রাজ্যের কৃষি শিল্প সংক্রমণ প্রতিরোধে মনোনিবেশ করেছে। যদিও রপ্তানি নিষেধাজ্ঞাগুলো কৃষকদের জন্য কখনই ভালো খবর নয়, আমাদের খামারগুলোতে ছড়িয়ে পড়ার উপর আমাদের ফোকাস থাকে।’

তিনি বলেছিলেন, ‘এটি অত্যাবশ্যক ছিল যে কৃষকরা তাদের বায়োসিকিউরিটি প্রোটোকল অনুসরণ করে এবং আরো কোনো বিস্তার রোধ করতে আন্দোলন সীমিত করে ঝুঁকি হ্রাস করে। বায়োসিকিউরিটি প্রাদুর্ভাবের মধ্যে ট্রেসেবিলিটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, যা দ্রুত শনাক্তকরণ এবং পোল্ট্রির স্বাস্থ্য ও সুরক্ষার জন্য হুমকিগুলি নিয়ন্ত্রণের অনুমতি দেয়।’ 

এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা প্রাদুর্ভাবে প্রভাবিত উভয় ভিক্টোরিয়ান খামারকে পৃথকীকরণের অধীনে রাখা হয়েছে। ওই স্থানের আশেপাশে হাঁস-মুরগি, সরঞ্জাম এবং যানবাহন চলাচলকে সীমাবদ্ধ করার আদেশ রয়েছে।

ভিক্টোরিয়ান সরকারের পরিসংখ্যান বলছে, রাজ্যটি ২০২১-২০২২ সালে ৩৬ মিলিয়ন ডলার রপ্তানি করেছে, যা রাজ্যের খাদ্য রপ্তানির ২.৫ শতাংশ। পাপুয়া নিউ গিনি হলো ভিক্টোরিয়ান পোল্ট্রি রপ্তানির বৃহত্তম বাজার, তারপরে রয়েছে ফিলিপাইন এবং সলোমন দ্বীপপুঞ্জ।

সূত্র: এবিসি নিউজ। 

এম হাসান

×