ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১

ইসরাইলি আগ্রাসনে ২৪ ঘণ্টায় নিহত ১২১

রাফাহ-জাবালিয়ায় হামলা

প্রকাশিত: ২০:৪৬, ১৯ মে ২০২৪

রাফাহ-জাবালিয়ায় হামলা

ইসরাইলি সেনারা গাজার জাবালিয়ায় ট্যাঙ্ক নিয়ে প্রবেশ করে

গাজার উত্তরাঞ্চলে জাবালিয়া এবং দক্ষিণে মিসর সীমান্তের রাফাহ নগরীর আরও ভেতরে ট্যাঙ্ক নিয়ে প্রবেশ করে রবিবার হামলা চালিয়েছে ইসরাইলি সেনারা। এসব হামলায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১২১ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। ছাড়া আহত হয়েছেন আরও অনেকে। রাফাহতে ইসরাইলের হামলা শুরু হওয়ার পর থেকে অন্তত লাখ ফিলিস্তিনি বাস্তুচ্যুত হয়েছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। এদিকে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু যদি গাজায় একটি যুদ্ধোত্তর পরিকল্পনা গ্রহণ না করেন তা হলে যুদ্ধ মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করার হুমকি দিয়েছেন গাজা যুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রিসভার সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসা ইসরাইলি রাজনীতিবিদ অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা বেনি গান্টজ। খবর বিবিসি আলজাজিরার।

গাজা উপত্যকার নুসেইরাত শরণার্থী শিবিরে হামলা চালিয়েছে ইসরাইল। এতে অন্তত ২০ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অনেকে। ছাড়া উত্তর গাজার জাবালিয়া শরণার্থী শিবিরে ইসরাইলি বিমান হামলায় অন্তত ২৮ জন নিহত হয়েছেন। ছাড়া পূর্ব গাজার আল-দারাজ এলাকায় একটি বাড়িতে বোমা হামলায় ছয়জন নিহত হয়েছেন। একই অঞ্চলের একটি স্কুলে বোমা হামলায় তিনজন নিহত হয়েছেন। এদিকে রবিবার গাজায় ইসরাইলি হামলায় অন্তত ৬৪ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। সব মিলিয়ে ২৪ ঘণ্টায় অন্তত ১২১ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইলি বাহিনী। নিহতদের মধ্যে অনেক নারী শিশু রয়েছে।

গাজা উপত্যকার দক্ষিণাঞ্চলে আরও দুই সেনা নিহত চার সেনা গুরুতর আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে দখলদার ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ) তারা দুজনই গিভাতি ব্রিগেডের গোয়েন্দা ইউনিটের সদস্য ছিলেন। গাজার উত্তরাঞ্চলে ইসরাইল গত জানুয়ারিতে অভিযান শেষে ঘোষণা দেওয়ার পর মাসে আবারও সেখানে হামলা চালাতে ফিরে গেছে। হামাসকে আবার সংগঠিত হতে না দেওয়ার জন্য ইসরাইল ফের উত্তর গাজায় হানা দিয়েছে। সেখানকারই একটি স্থান হচ্ছে জাবালিয়া শরণার্থী শিবির। গাজার আটটি ঐতিহাসিক শরণার্থী শিবিরের মধ্যে এটি সবচেয়ে বড়। রবিবার ইসরাইলের সেনারা ট্যাঙ্ক নিয়ে স্থল অভিযানে জাবালিয়ার গভীরে ঢুকে রাস্তায় রাস্তায় হামলা চালিয়েছে বলে জানিয়েছে অধিবাসীরা।

×