ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১

ট্রান্সজেন্ডার দম্পতির বেবি বাম্প ভাইরাল

প্রকাশিত: ১৮:৫১, ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

ট্রান্সজেন্ডার দম্পতির বেবি বাম্প ভাইরাল

বেবি বাম্পসহ ট্রান্সজেন্ডার দম্পতি

ট্রান্সজেন্ডার দম্পতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাদের বেবি বাম্প শেয়ার করেছেন। যা মুহুর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়। তারা সন্তান ধারণের জন্য তাদের হরমোন থেরাপি বন্ধ করে দিয়েছিলেন। 

ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কেরালায় বাস করেন এই দম্পতি। তরা দুই জন হলেন জিয়া পাভাল (২১)  এবং তার সঙ্গী জাহাদ (২৩)। জানা যায়, এই দম্পতি যখন একটি সন্তান নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তখন তারা লিঙ্গ পরিবর্তনের প্রক্রিয়ায় ছিলেন।

পাভাল জানান, তিনি সবসময় একজন পিতা-মাতা হতে চেয়েছিলেন। জন্মের সময় পুরুষ হিসাবে রেকর্ড করা হয়েছিল এবং এখন তাকে নারী হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

এ দিকে জাহাদ জানান, তিনি শুধুমাত্র একটি নাম ব্যবহার করেন, তাকে জন্মের সময় নারী হিসাবে দেখা যেত এবং এখন তাকে পুরুষ হিসাবে চিহ্নিত করা হয়। তিনি বর্তমানে গর্ভবতী এবং এই দম্পতি শীঘ্রই তাদের সন্তানকে স্বাগত জানাবেন বলে আশা করছেন।

তাদের অভিজ্ঞতা ভারতে বিরল হতে পারে জানিয়ে পাভাল ও জাহাদ বলেন, ‘আমরা যতদূর জানি ট্রান্সজেন্ডার সম্প্রদায়ের মধ্যে অন্য কেউ নিজেদেরকে জৈবিক পিতা-মাতা বলে না।’

ভারতে প্রায় ২০ মিলিয়ন ট্রান্সজেন্ডার রয়েছে, যদিও কর্মীরা বলছেন এই সংখ্যা বেশি। ট্রান্সজেন্ডারদের অন্যান্য মানুষের মতো একই অধিকার রয়েছে বলে ২০১৪ সালে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট রায় দিয়েছে।

তিন বছর আগে যখন পাভাল এবং জাহাদের দেখা হয়, তখন তারা দুজনেই তাদের পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছিল। পাভাল বলেন, ‘আমি একটি রক্ষণশীল মুসলিম পরিবার থেকে এসেছি, যারা আমাকে কখনই শাস্ত্রীয় নৃত্য শিখতে দেয়নি। আমার বাবা-মা গোঁড়া ছিল যে তারা আমার চুল কাটতেন যাতে আমি নাচ না করি। একটি যুব উৎসবে অংশ নিতে বাড়ি ছেড়েছিলাম এবং আর কখনও ফিরে যাইনি।’

পাভাল একটি ট্রান্সজেন্ডার কমিউনিটি সেন্টারে নাচ শিখেছিলেন। বর্তমানে তিনি কোঝিকোড় জেলার ছাত্রদের নাচ শেখান।

জাহাদ একজন হিসাবরক্ষক হিসেবে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এবং তিরুবনন্তপুরম শহরের মাছ ধরা সম্প্রদায়ের একজন খ্রিস্টান পরিবারের সন্তান। তিনি বর্তমানে একটি সুপার মার্কেটে কাজ করেন। তিনি গর্ভবতী হওয়ার পর তার পরিবার এই দম্পতিকে গ্রহণ এবং সমর্থন করেছে। তারা গর্ভাবস্থায় জাহাদকে সাহায্য করছে।

জাহাদের মা প্রাথমিকভাবে এই দম্পতিকে গর্ভধারণের কথা প্রকাশ না করার জন্য বলেছিলেন। তিনি অনুমতি দেওয়ার পরে তারা গত সপ্তাহে তাদের ইনস্টাগ্রাম পেজে এটি ঘোষণা করেন।

মিসেস পাভাল জানান, তারা দেড় বছর আগে একটি সন্তান নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, যখন তারা উভয়ই তাদের লিঙ্গ পরিবর্তনের বিভিন্ন পর্যায়ে ছিলেন।

জাহাদের ডিম্বাশয় এবং জরায়ু এখনও অপসারণ করা হয়নি, তাই দম্পতি তাদের ডাক্তারের পরামর্শে হরমোন থেরাপি বন্ধ করে দেন।

পাভাল বলেন, ‘অবশ্যই ট্রান্সজেন্ডার সম্প্রদায়ের মধ্যে এবং বাইরের উভয় ধরনের লোক আছে যারা স্টেরিওটাইপগুলিতে বিশ্বাস করে। তারা মনে করে যে একজন ট্রান্স ম্যান একটি শিশুর জন্ম দিতে পারে না।’

সূত্র: বিবিসি। 

এমএইচ

×