ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ০২ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রমাণ মিলল ভিডিওতে

পুলিশি নির্যাতনে যুবকের মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ২১:২০, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩

পুলিশি নির্যাতনে যুবকের মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ

মেম্ফিসে পুলিশি নির্যাতনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ

যুক্তরাষ্ট্রের মেম্ফিসে চলতি মাসের শুরুর দিকে মারা যাওয়া কৃষ্ণাঙ্গ যুবক টায়ার নিকোলসকে পাঁচ পুলিশ কর্মকর্তার নির্মম মারধরের ভিডিও প্রকাশ করেছে কর্তৃপক্ষ। ওই কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ আনার পর শুক্রবার মেম্ফিস শহর কর্তৃপক্ষ এই ফুটেজগুলো প্রকাশ করে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এর মধ্যে একটি ভিডিও ক্লিপে নিকোলসকে চালকের আসন থেকে টেনেহিঁচড়ে বের করে তাকে জোর করে মাটিতে ফেলে দিতে দেখা গেছে।

এ সময় নিকোলস চিৎকার করে ‘আরে, আমি কিছু করিনি, আমি কেবল বাড়ি যাওয়ার চেষ্টা করছি’ বলতে শোনা যায়। পুলিশ কর্মকর্তারা তাকে মাটিতে উপুড় হয়ে শুয়ে থাকতে নির্দেশ দেন এবং তার মুখে মরিচের গুঁড়া স্প্রে করেন। নিকোলস তখন নিজেকে মুক্ত করে উঠে দাঁড়িয়ে দৌড় শুরু করেন, পেছনে পুলিশের ওই কর্মকর্তাদেরকে তাকে ধাওয়া করতে দেখা যায়; এর মধ্যে একজন নিকোলসকে লক্ষ্য করে  স্টেনগান থেকে ফায়ারও করেন।

নিকোলস এ সময় বারবারই ‘মা, মা’ বলে চিৎকার করছিলেন। যে পাঁচ পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে, তারা সবাই কৃষ্ণাঙ্গ; তাদেরকে পুলিশ বাহিনী থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে।  ভিডিওটির প্রথম প্রকাশ এবং সিএনএন ও অন্যান্য গণমাধ্যমে প্রচারিত হওয়ার পাশাপাশি টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে বিপুল সংখ্যক বিক্ষোভকারীকে মেম্ফিসে জড়ো হয়ে ‘বিচার নেই, শান্তি নেই’ স্লোগান দিতে এবং ‘গণদাবি: পুলিশি সন্ত্রাস বন্ধ কর’ প্ল্যাকার্ড বহন করতে দেখা গেছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, মেম্ফিসের ভিডিওটি দেখে তিনি ‘ক্ষুব্ধ’ এবং ‘গভীরভাবে বেদনাহত’ হয়েছেন।  নিকোলসের পরিবারের সদস্যরা এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন মেম্ফিসের প্রতিবাদকারীদের শান্ত থাকার অনুরোধ জানিয়েছেন। 

×