ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ভিটামিন বি৩, বি৬ এবং বি৭

প্রকাশিত: ০১:৩৪, ৬ জুন ২০২৩

ভিটামিন বি৩, বি৬ এবং বি৭

ভিটামিন বি৩ বা নিয়াসিন হজমে সাহায্য করে

ভিটামিন বি৩ঃ ভিটামিন বি৩ বা নিয়াসিন হজমে সাহায্য করে, চর্ম এবং স্নায়ুর কাজ সম্পাদনে সহায়তা করে থাকে। শরীরের এন্টি অক্সিডেন্ট সুরক্ষায় কাজ করে থাকে। খাদ্য থেকে শক্তিতে রূপান্তরের ক্ষেত্রে ভিটামিন বি৩ ভূমিকা রাখে। যাদের টাইপ-২ ডায়াবেটিস রয়েছে তাদের ক্ষেত্রে কোলস্টেরল লেভেল প্রায় সময়ই বেশি থাকে। অন্যান্য ঔষধের সাথে ভিটামিন বি৩ বা নিয়াসিন কোলস্টেরল এর পরিমাণ কমাতে পারে।
ভিটামিন বি৩ এর উৎসঃ টুনা এবং শ্যামন সামুদ্রিক মাছ, মুরগী, লিভার বা কলিজা, গরুর মাংস, মাশরুম, ব্রাউন রাইস, এভোকাডো, বাদাম ইত্যাদি।
ভিটামিন বি৩ বা নিয়াসিনের অভাব হলেঃ নিয়াসিনের অভাব হলে দুর্বলতা, মাথা ব্যাথা, বিষন্নতা, স্মৃতি শক্তি কমে যাওয়া ইত্যাদি সমস্যা দেখা দিতে পারে। 
ভিটামিন বি৩ অতিরিক্ত খেলেঃ ভিটামিন বি৩ অতিরিক্ত পরিমাণে খেলে লিভারের ক্ষতি হতে পারে, পেপটিক আলসার এবং ত্বকের র‌্যাশ বা লাল দাগ দেখা দিতে পারে। কখনও কখনও নিয়াসিন ব্লাড সুগার লেভেল বৃদ্ধি করতে পারে।
ভিটামিন বি৬ এর উৎসঃ ভিটামিন বি৬ পাওয়া যায় টুনা মাছ, মুরগির কলিজা, পনির, ডিম, গরুর মাংস, গাজর, স্পাইনাক, মিষ্টি আলু, কলা, এভোকাডো ইত্যাদি।
ভিটামিন বি৬ এর অভাব হলে রক্ত স্বল্পতা, ¯œায়ুবিক সমস্যা এবং মানসিক দুর্বলতা দেখা দিতে পারে।
ভিটামিন বি৭ ঃ ভিটামিন বি৭ বা বায়োটিন এর অভাব হলে ত্বকের র‌্যাশ, চুল পড়ে যাওয়া, উচ্চ কোলস্টেরল এবং হার্টের সমস্যা  দেখা দিতে পারে। ফুলকপি, শ্যামন সামুদ্রিক মাছ, গাজর, কলা, ময়দা, ইষ্ট ইত্যাদি খাবারে বায়োটিন বা ভিটামিন বি৭ পাওয়া যায়।

×