ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ১৮ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

বিজয়ের মাস উপলক্ষে শুরু হচ্ছে করোনা টিকার বিশেষ ক্যাম্পেইন

প্রকাশিত: ২০:০২, ৩০ নভেম্বর ২০২২

বিজয়ের মাস উপলক্ষে শুরু হচ্ছে করোনা টিকার বিশেষ ক্যাম্পেইন

করোনা টিকা

* ৯০ লাখ লোককে টিকা দেয়ার লক্ষ্যমাত্রা

* চতুর্থ ডোজের টিকা দেয়ার পরিকল্পনা

বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে মহান বিজয়ের মাস। সারা মাস উদযাপন করা হবে নানা আয়োজনে। এরই একটি অংশ হিসেবে দেশে শুরু হচ্ছে করোনাভাইরাসের বিশেষ টিকাদান কর্মসূচি। ৯০ লাখ লোককে টিকা দেয়ার লক্ষ্যে এ কর্মসূচি চলবে আগামী ৭ দিন। এ কর্মসূচিতে করোনার চতুর্থ ডোজের টিকা দেওয়ারও পরিকল্পনা করছে সরকার। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্র জানিয়েছে, বিশেষ এই ক্যাম্পেইনে মোট কেন্দ্র থাকবে ২৮ হাজার ৫৬৯টি। মোট ভ্যাকসিনেটর থাকবেন ৫৭ হাজার ১৩৮টি। এছাড়া মোট ভলান্টিয়ার থাকবে এক লাখ ৪২ হাজার ৮৪৫ জন। 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সম্মুখসারির যোদ্ধা, ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি এবং গর্ভবতীদের টিকার চতুর্থ ডোজ দেয়ার সুপারিশ করেছে জাতীয় টিকা সংক্রান্ত কারিগরি উপদেষ্টা কমিটি (নাইট্যাগ)। বুধবার বিশেষ টিকাদান কর্মসূচির বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের টিকা ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য সচিব ডা. শামসুল জানান, টিকা দেওয়ার জন্য পর্যাপ্ত টিকা আমাদের কাছে আছে। 

সরকার সিদ্ধান্ত নিলে আমরা ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি, গর্ভবতী নারী, ও সম্মুখসারির করোনা যোদ্ধাদের শিগগিরই টিকা দেয়া শুরু করবো। এসময় টিকার তথ্য তুলে ধরে তিনি জানান, এখন পর্যন্ত দেশের মোট জনগোষ্ঠীর ৮৭ ভাগ পেয়েছে প্রথম ডোজ। ৭৩ ভাগ দ্বিতীয় ডোজ এবং বুস্টার পেয়েছে ৫২ ভাগ মানুষ। এ অবস্থায় ডিসেম্বরের ১ তারিখ থেকে ৭ ডিসেম্বর বিশেষ টিকা ক্যাম্পেইন হবে সারা দেশে। 

এ ক্যম্পেইনের মাধ্যমে টিকা দেয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৯০ লাখ মানুষকে। ক্যাম্পেইনে শুধু টিকার দ্বিতীয় ও বুস্টার ডোজ দেয়া হবে। তিনি আরও জানান, এখন পর্যন্ত ৮৭ ভাগ মানুষ টিকার প্রথম ডোজ পেয়েছে। ৭৩ শতাংশ মানুষ পেয়েছে দ্বিতীয় ডোজ। এছাড়া বুস্টার ডোজ পেয়েছে ৫২ শতাংশ।

প্রথম ডোজের টিকা দেওয়া অফিসিয়ালি বন্ধ হয়েছে। তবে যৌক্তিক কারণ দেখিয়ে যে কেউ প্রথম ডোজের টিকা নিতে পারবে বলে জানিয়েছেন টিকা প্রয়োগ ব্যবস্থাপনা কমিটি।

এর আগে গত ২২ নভেম্বর দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে বিশ্ব অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল সপ্তাহ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, বিজয় দিবস উপলক্ষে করোনা টিকার বুস্টার ডোজ ক্যাম্পেইনের উদ্যোগ নিয়েছি। ১ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে, চলবে ডিসেম্বরের ৭ তারিখ পর্যন্ত।

মন্ত্রী বলেন, বিশেষ এই টিকা ক্যাম্পেইনে ৯০ লাখ লোককে টিকা দেয়া হবে। আমরা এর আগে যতগুলো ক্যাম্পেইন করেছি, সবগুলোই সফল হয়েছে। আশা করি এটিও সফল হবে। এ পর্যন্ত ১৩ কোটি ৯ লাখ মানুষকে প্রথম ডোজ টিকা আমরা দিয়েছি, যা লক্ষ্যমাত্রার ৯৮ শতাংশ। এছাড়াও ১২ কোটি ৪২ লাখ ডোজ দেয়া হয়েছে দ্বিতীয় ডোজ, যা লক্ষ্যমাত্রার ৯৫ শতাংশ। বুস্টার ডোজ দেয়া হয়েছে ৫ কোটি ৮৬ লাখ, লক্ষ্যমাত্রার ৫২ শতাংশ।

তিনি বলেন, গত বছরের ২৭ জানুয়ারি থেকে কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়। আমাদের ১২ বছর ও বেশি বয়সী মোট জনসংখ্যা ১৩ কোটি ৩১ লাখ। প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজে আমরা অনেকদূর এগিয়ে গেলেও বুস্টার ডোজের জন্য অপেক্ষমান জনগোষ্ঠী এখনও ৪ কোটি ৫৮ লাখ।

মন্ত্রী বলেন, আজ পর্যন্ত আমরা ৯টি ক্যাম্পেইন আয়োজন করেছি। ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে আমরা টিকা দিয়েছি ১৩ কোটি ৪৯ লাখ ডোজ। আগামী বিজয়ের মাস উপলক্ষে আমরা ৯০ লাখ জনগোষ্ঠীকে বিশেষ ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে বুস্টার ডোজ টিকা দেয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি।
 

 

স্বপ্না

monarchmart
monarchmart

শীর্ষ সংবাদ:

মোংলা ইপিজেডের কারখানায় অগ্নিকান্ড
মেট্রোরেল থেকে আয় ২ কোটি ৪৬ লাখ টাকা
বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে কোনো রোহিঙ্গা নেই
বায়ুদূষণ রোধে বিশেষ অভিযানের নির্দেশ
ফের বাংলাদেশের নতুন কোচ হাথুরুসিংহে
নিপসমের পরিচালক হলেন ডা. সেব্রিনা ফ্লোরা
নাসির-তামিমার অভিযোগ গঠনের শুনানি ২৮ ফেব্রুয়ারি
খুচরা ও পাইকারি পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন
দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশর অবস্থান ১২
খালেদা জিয়ার নাইকো মামলার চার্জশুনানি ১৪ ফেব্রুয়ারি
বাংলাদেশকে ঋণ অনুমোদন করেছে আইএমএফ
কর্মমুখী শিক্ষায় মনোযোগী হতে হবে
বইমেলা ঘিরে কোনো ধরনের নিরাপত্তা হুমকি নেই: ডিএমপি কমিশনার
শিবচরে ৪১ তলার প্রযুক্তি টাওয়ার নির্মিত হবে: পলক
পাকিস্তানে মসজিদে আত্মঘাতী হামলায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ৭২
কক্সবাজারে ১২০ কি: মি রেঞ্জ ক্ষমতা সম্পন্ন টাইগার মিসাইল উৎক্ষেপন