ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯

এনামুল হক

আলঝেইমার ও পারকিনসন্স চিকিৎসায় নতুন ওষুধ

প্রকাশিত: ১২:২৮, ১৩ মার্চ ২০২০

আলঝেইমার ও পারকিনসন্স চিকিৎসায় নতুন ওষুধ

ব্রিটেনে চিকিৎসকরা এমন দুটো ওষুধ আবিষ্কার করেছেন যা কিনা মস্তিষ্কের কোষকে নষ্ট হয়ে যাওয়া থেকে বিরত রাখতে পারে। তাদের এ আবিষ্কারকে দেখা হচ্ছে, আলঝেইমার এবং পারকিনসন্সের মতো রোগের চিকিৎসায় বড় ধরনের অগ্রগতি হিসেবে। এসব রোগে আক্রান্ত হলে রোগীর মস্তিষ্কের কোষগুলো নিজেদের প্রোটিন উৎপাদন বন্ধ করে দেয়। এবং একপর্যায়ে এসব কোষের মৃত্যু ঘটে। চার বছর আগে মেডিক্যাল রিসার্চ কাউন্সিলের বিজ্ঞানীরা একটি ওষুধ তৈরি করেছিলেন যা প্রোটিন তৈরির ব্যাপারে মস্তিষ্কের কোষগুলোকে সক্রিয় রাখতে পারে। এর ফলে এসব কোচ বেঁচে থাকে। কিন্তু ওই ওষুধটি ছিল মানুষের জন্য বিষাক্ত। কিন্তু আরও গবেষণা ও পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে বিজ্ঞানীরা এখন এমন দুটো ওষুধ আবিষ্কার করেছেন যা মানুষের ব্যবহারের জন্য নিরাপদ। এ গবেষণা দলের প্রধান লেস্টার শহরে মেডিক্যাল রিসার্চ কাউন্সিল টক্সিকোলজি ইউনিটের অধ্যাপক জিওভান্না মালুচ্চি। তিনি বলেছেন, এ দুটো ওষুধ রোগীর শরীরে যত আগে প্রয়োগ করা যাবে ততই মঙ্গল। তিনি বলেন, এ ওষুধ আলঝেইমার ও পারকিনসন্সের মতো রোগ প্রতিরোধে রাখতে পারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। ‘সাধারণত, এসব রোগ শুরু হওয়ার প্রাথমিক পর্যায়ে ওষুধ প্রয়োগ করতে হবে। কিন্তু আমাদের মধ্যে অনেকেই এ রকম প্রাথমিক পর্যায়ের অসুখ নিয়েই চলাফেরা করছি।’ ‘এখন আমি যদি আমার রোগীর শরীরে এ প্রাথমিক পর্যায়ে এসব ওষুধ প্রয়োগ করতে পারি তাহলে রোগটির বেড়ে ওঠা থামিয়ে দেয়া সম্ভব। এটা একটা বড় ধরনের অগ্রগতি। এর ফলে রোগীর জীবনে আমূল পরিবর্তন ঘটবে। বৃদ্ধি পাবে তাদের জীবনের গুণগত মান। এর মূল কথা হচ্ছেÑ এ ওষুধের মাধ্যমে আপনি রোগ সারিয়ে তুলছেন না কিন্তু একটি রোগকে পরিবর্তন করে দিচ্ছেন। এ একইভাবে এইচআইভি রোগকেও মোকাবেলা করা হয়েছে’ বলেন তিনি। তিনি বলেন, ‘আপনি জানেন যে এ রোগ থেকে আপনি সেরে উঠেননি কিন্তু এর ফলে আপনার শরীরে ভাইরাসের মাত্রা এমন নিচু একপর্যায়ে থাকে যে আপনি স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে সক্ষম হবেন। অর্থাৎ আপনি এতে ঠিক আক্রান্ত হবেন না। এর প্রতিকার না করে পরিবর্তন ঘটানোÑ এটাও চিকিৎসার একটি উপায়।’ সূত্র : লাইফ সায়েন্স