ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০

‘প্যাক!প্যাক প্যাক!…’, যেকারণে শিক্ষককে মাউশির শোকজ

প্রকাশিত: ১৯:০৪, ৯ ডিসেম্বর ২০২৩

‘প্যাক!প্যাক প্যাক!…’, যেকারণে শিক্ষককে মাউশির শোকজ

মাউশি

যশোর জেলার সদর উপজেলাধীন কাজী নজরুল ইসলাম কলেজের সহকারী অধ্যাপক (আইসিটি) মো. আমিনুল হককে নতুন কারিকুলামের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যাচারমূলক পোস্ট শেয়ার করায় শোকজ (কারণ দর্শানো) করা হয়েছে।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) থেকে তাকে পাঁচ কর্ম দিবসের মধ্যে শোকজের জবাব দিয়ে বুধবার (৬ ডিসেম্বর) চিঠি দেওয়া হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়, আমিনুল হকের নিজের ফেসবুক আইডি থেকে ‘শিক্ষকদের নতুন কারিকুলাম বিষয়ক প্রশিক্ষণ! প্যাক!প্যাক প্যাক! আল্লাহ বাচাইছে ভাই’ শিরোনামে নতুন কারিকুলামের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারমূলক পোস্ট শেয়ার করা হয়েছে।

ওই পোস্ট ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮ এর ষষ্ঠ অধ্যায়ের অপরাধ ও দণ্ড বিষয়ক ধারা ২৫ এর উপধারা ১(খ) মোতাবেক অপরাধ হিসেবে প্রাথমিকভাবে প্রতীয়মান হয়। আইনের ধারা ২৫ এর উপধারা ১(খ) তে অপরাধ ও দণ্ড বিষয়ক নিম্নরূপ উল্লেখ রয়েছে-

“২৫। আক্রমণাত্মক, মিথ্যা বা ভীতি প্রদর্শক, তথ্য-উপাত্ত প্রেরণ, প্রকাশ, ইত্যাদি – (১) যদি কোনো ব্যক্তি ওয়েবসাইট বা অন্য কোনো ডিজিটাল মাধ্যমে,

খ) রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি বা সুনাম ক্ষুণ্ণ করিবার, বা বিভ্রান্তি ছড়াইবার, বা তদুদ্দেশ্যে অপপ্রচার বা মিথ্যা বলিয়া জ্ঞাত থাকা সত্ত্বেও, কোনো তথ্য সম্পূর্ণ বা আংশিক বিকৃত আকারে প্রকাশ, বা প্রচার করেন বা করিতে সহায়তা করেন, তাহা হইলে উক্ত ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হইবে একটি অপরাধ’।

মাউশির চিঠিতে বলা হয়, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (স্কুল ও কলেজ) জনবলকাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০২১ এর ১৮.১ (খ) ও (গ) মোতাবেক কেন আপনার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, এ বিষয়ে পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

 

এবি

×