ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১

প্রাথমিকের শিক্ষকদের নিয়ে যা বললেন প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত: ১৩:৫৪, ১ অক্টোবর ২০২৩

প্রাথমিকের শিক্ষকদের নিয়ে যা বললেন প্রতিমন্ত্রী

ফাইল ছবি।

প্রাথমিক বিদ্যালয়কে স্মার্ট সিটিজেন তৈরি করার ভিত্তি বলে মন্তব্য করেছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। 

শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) পৌর কমিউনিটি সেন্টারে ‘স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের করণীয়’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

ফরহাদ হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মানের যে সপ্ন, সেটিকে বাস্তবায়ন করতে হলে প্রথমেই দরকার স্মার্ট সিটিজেন। সেই স্মার্ট সিটিজেন তৈরি করার ভিত্তি হলো প্রাথমিক বিদ্যালয়। যেখানে কোমলমতি বাচ্চারা পড়াশুনা করে জ্ঞান অর্জন করে। প্রাথমিকে যদি যথাযথ জ্ঞান অর্জন করতে না পারে সে ভবিষ্যতে কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়। মাধ্যমিকে গিয়ে অনেকেই ঝরে যায়। তাই স্মার্ট নাগরিক তৈরিতে প্রাথমিকের শিক্ষাটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে শিক্ষকদের ভূমিকা অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি বলেন, শিক্ষকদের প্রচেষ্টার ফলে একটি শিক্ষার্থী স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলতে অবদান রাখতে পারবে। সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর দেয়া হয়েছে। আধুনিক তথ্য প্রযুক্তিমূলক শিক্ষার সঙ্গে শিক্ষার্থীদের যুক্ত করে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে। প্রাথমিক শিক্ষার মাধ্যমেই শিশুদের মেধা ও মননশীলতার বিকাশ ঘটে। তাদের সুপ্ত প্রতিভার বিকাশ ঘটাতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ভূমিকা সবার আগে। দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার মানোন্নয়ন ও অবকাঠামোগত উন্নয়নে সরকার সবোর্চ্চ গুরুত্বারোপ করেছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৬ হাজার ১৯৩টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণ করেছেন। পহেলা জানুয়ারি সারাদেশে বই বিতরণে ঐতিহাসিক সাফল্য সারাবিশ্বকে হতবাক করে দিয়েছে।

এমএম

×