ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯

এ সম্পর্কে জানা কিশোর-কিশোরীদের অধিকার

যৌন-প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতন করার তাগিদ: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত: ১৯:৪২, ৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

যৌন-প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতন করার তাগিদ: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি

যৌন-প্রজনন স্বাস্থ্য সম্পর্কে কিশোর-কিশোরীদের সচেতন করার তাগিদ দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে সচেতনতা  থাকলে একে অন্যের ওপর সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেবে না বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য অন্যতম বড় বিষয় হচ্ছে যৌন-প্রজনন স্বাস্থ্য ও অধিকার সম্পর্কে জানা। যৌন-প্রজনন স্বাস্থ্য ও অধিকার সম্পর্কে জানা কিশোর-কিশোরীদের অধিকার।

যখন তারা জানতে পারবে তখন পারস্পরিক সৌহাদ্যের মাধ্যমে শ্রদ্ধাবোধের মাধ্যমে একসঙ্গে মিলে সিদ্ধান্ত নেবে। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে জেনারেশন ব্রেক থ্রু প্রকল্প (দ্বিতীয় পর্যায়) নিয়ে জাতীয় কর্মশালায় এ কথা বলেন তিনি। এ সময় শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, সঠিক তথ্য যদি সঠিকভাবে কিশোর-কিশোরীদের কাছে যদি পৌঁছানো যায় তাহলে অনেক সমস্যা থেকে তাদের দূরে রাখা যায়। ররি ঠাকুর বলে গিয়েছেন, বিশেষত তের চৌদ্দ বছরের মতো বালাই আর নেই। এই সময়টাই কিশোর-কিশোরীদের শারীরিক, মানসিক পরিবর্তন আসে। বয়সন্ধিকালীন  চেপ্টার শিক্ষকরা পড়াতেন না, বলতেন পড়ে নিও। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এই বয়সে একটা রূপান্তর ঘটে। নানারকম  বোধ হতে থাকে। কখনও খারাপ লাগে, কখনও ভালো লাগে। এই সময়টি নিয়ে মানুষ এখনও সচেতন না। সময়টা অনুসন্ধিৎসু সময়। কিন্তু তথ্য পাচ্ছে না। তখন নিজেদের মধ্যে অনেক রকম ভুল-ভ্রান্তি এসে জমা হয়। শারীরিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়, মানসিকভাবে তো বটেই। কিশোর-কিশোরী জীবনের ভুলভ্রান্তিগুলো পরবর্তী জীবনেও নিয়ে যায়। যার বহিঃপ্রকাশ ঘটে জেন্ডার বৈষম্যের সৃষ্টি হয়, নানা নির্যাতনের ঘটনের ঘটনাও ঘটে।


দীপু মনি বলেন, জেনারেশন ব্রেক থ্রু প্রজেক্টে যারা যুক্ত ছিল শুধু তারাই এই শিক্ষার মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। তারা  জেনে অন্যদের শেয়ার করছে।  অন্যদেরও জানাতে পারছে তাদের দক্ষতাগুলো। মাদ্রাসাগুলোতেও যদি আমরা তথ্যগুলো যদি সঠিকভাবে পৌঁছে দিতে পারি তাহলে তারা ভালোভাবে গ্রহণ করতে পারে।  শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য অন্যতম বড় বিষয় হচ্ছে যৌন-প্রজনন স্বাস্থ্য ও অধিকার সম্পর্কে জানা।

শাহজাহান