ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

লাফিয়ে চলা প্রাণী

ঝিলিমিলি ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৩:১৭, ২ ডিসেম্বর ২০২২

লাফিয়ে চলা প্রাণী

.

ক্যাঙ্গারু মার্সুপিয়াল গোত্রের এক প্রকারের স্তন্যপায়ী প্রাণী। এরা অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় পশু। ক্যাঙ্গারু শব্দটি গুগু ইয়িমিথির শব্দ ‘গাঙ্গারু’ থেকে উদ্ভূত হয়েছে। এদের কেবল অস্ট্রেলিয়ার মূল ভূখন্ড, নিউ গিনি ও আশপাশের দ্বীপগুলো যেমন তাসমানিয়ায় দেখা যায়।
তৃণভোজী এই প্রাণীটি ঘাস, লতাপাতা খেয়েই বেঁচে থাকে। সামনের এক জোড়া পা ছোট এবং পেছনের জোড়া বেশ বড়। এদের লম্বা লেজ থাকে। সাধারণত এরা লাফিয়ে লাফিয়েই চলে। একটি পূর্ণবয়স্ক ক্যাঙ্গারু ৩০ ফুট পর্যন্ত লাফাতে পারে। এদের লাফানোর গতি চিতা বাঘের চেয়েও বেশি।

এভাবে এরা এক দিনে ৪৮ কিলোমিটার পর্যন্ত লাফিয়ে চলতে পারে। লাফানোর সময় এদের লেজ শরীরের ভারসাম্য বজায় রাখে। পৃথিবীর অন্য প্রাণী থেকে ক্যাঙ্গারুর আলাদা বৈশিষ্ট্য হলো এদের থলে। মেয়ে ক্যাঙ্গারুর পেটের কাছে বড় আকারের একটি থলে থাকে। এই থলেতে তারা বাচ্চা বহন করে। বাচ্চা ক্যাঙ্গারু থলেতে থাকতে পারে প্রায় চার মাস বয়স পর্যন্ত। দুটি জীব পরিবারে ক্যাঙ্গারুর প্রায় ৫০টি ভিন্ন প্রজাতি আছে। বড় ক্যাঙ্গারুগুলো ম্যাক্রোপোডিডে পরিবারের অন্তর্ভুক্ত। এদের মধ্যে আছে লাল ক্যাঙ্গারু, ধূসর ক্যাঙ্গারু, ওয়ালাবি, প্যাডিমেলন ও কুওক্কা। অন্য পরিবারটির নাম পোটোরইডে। এই পরিবারে ইঁদুর, বেটং ও পোটোরু ক্যাঙ্গারু অন্তর্ভুক্ত। লাল ও ধূসর ক্যাঙ্গারু আকারে সবচেয়ে বড় হয়। এরা লম্বায় ২ মিটার দীর্ঘ এবং ৮৫ কেজি ওজনের হতে পারে। সবচেয়ে ছোট ক্যাঙ্গারু হলো ইঁদুর-ক্যাঙ্গারু। এরা লম্বায় লেজ বাদে এক ফুটের মতো হয়।
ফসিলের নমুনা থেকে অনুমান করা হয় যে ক্যাঙ্গারু প্রায় ১৫ মিলিয়ন বছর আগে, মায়োসিন যুগে, অস্ট্রেলিয়ায় আসে। আদি ক্যাঙ্গারু ছিল বিশালাকার। এরা প্রায় ১০ ফুট লম্বা ও প্রায় ২০০ কেজি ভারী ছিল।

 

 

monarchmart
monarchmart