সোমবার ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

ইবিতে শেখ রাসেল স্মৃতি বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

ইবিতে শেখ রাসেল স্মৃতি বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

ইবি সংবাদদাতা ॥ বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের ৫৮ তম জন্মদিন উপলক্ষে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) আন্তঃহল ডিবেট প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে সরকারী দল হিসেবে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে খালেদা জিয়া হল। বিরোধী দল হিসেবে রানার্স আপ হয়েছে শেখ রাসেল হল। সেরা বিতার্কিক নির্বাচিত হয়েছেন শেখ রাসেল হলের বিতার্কিক নাজমুস সাকিব।

সোমবার বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে শেখ রাসেল হলের সেমিনার কক্ষে ‘কঠোর আইনের প্রয়োগই পারে শিশু অধিকার ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে’ শীর্ষক বিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়। ইবি ডিবেটিং সোসাইটির আয়োজনে গত ১৪ অক্টোবর প্রতিযোগিতাটি শুরু হয়।

বিতর্কে বিচারক ছিলেন অর্থনীতি বিভাগের প্রফেসর ড. দেবাশীষ শর্মা, ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. ধনঞ্জয় কুমারের এবং রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শেরীনা বিথী। স্পিকার ছিলেন ডিবেটিং সোসাইটির কার্যনির্বাহী সদস্য রুমি নোমান। সময় নিয়ন্ত্রক ছিলেন বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা হলের বিতার্কিক তাহমিনা খন্দকার। অনুষ্ঠানে ইবি ডিবেটিং সোসাইটির মোডারেটর প্রফেসর ড. মামুনুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভিসি প্রফেসর ড. শেখ আবদুস সালাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান এবং ট্রেজারার প্রফেসর ড. আলমগীর হোসেন ভুঁইয়া। স্বাগত বক্তব্য রাখেন শেখ রাসেল হলের প্রভোস্ট প্রফেসর ড. রবিউল ইসলাম।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল ইবি ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি মাসুম সরকার। এছাড়া ইবি ডিবেটিং সোসাইটির সহকারী মোডারেটর আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আরমিন খাতুন এবং ল’ অ্যান্ড ল্যান্ড ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সভাপতি সহকারী অধ্যাপক সাহিদা আখতার আশা, সহকারী প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক ড. শফিকুল ইসলামসহ বিভিন্ন স্তরের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভিসি বলেন, ‘মানুষের জীবন ও জীবিকা নির্বাহের জন্য মানবাধিকার গুরুত্বপূর্ণ। আজকের ডিবেটে সেসব বিষয় ফুটে উঠেছে। আমার বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) একটি বাগানের মত। শিক্ষার্থীরা সেই বাগানের ফুল। আর সেই বাগানে সৌরভ ছড়ায় বিভিন্ন সাংস্কৃতিক চর্চা। আজকের এই আয়োজন যুক্তির জোর প্রতিষ্ঠার আয়োজন। উভয় দল সুন্দরভাবে তাদের যুক্তির উপর জোর দিয়ে জোরালো করার চেষ্টা করেছে। এসময় তিনি উভয় দলের ডিবেটরদের উত্তোরত্তর সফলতা কামনা করেন।’

এর আগে দিবসটি উপলক্ষে সকাল সাড়ে ১০ টায় শেখ রাসেল হল চত্বরে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এরপর শেখ রাসেল হল চত্বরে শেখ রাসেলের ভাস্কর্যে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়। শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন শেষে আনন্দের প্রতীক বেলুন উড়িয়ে দিনব্যাপী কর্মসূচী উদ্বোধন করেন ভিসি। এরপর কেক কাটা, শেখ রাসেল স্মৃতি পাঠাগার উদ্বোধন করা হয়। পরে আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে দিবসটি উপলক্ষে আয়োজিত চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

শীর্ষ সংবাদ: