রবিবার ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৯ নভেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

৭৩ মিটার উচ্চতায় দড়ির উপর দিয়ে হেঁটেছেন ২৩০ মিটার!

৭৩ মিটার উচ্চতায় দড়ির উপর দিয়ে হেঁটেছেন ২৩০ মিটার!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ জার্মানির নুরেমবার্গে হয়ে গেল দড়ির ওপর দিয়ে নির্দিষ্ট দূরত্ব অতিক্রম করার চমৎকার এক প্রতিযোগিতা। এতে বিশ্ব রেকর্ড গড়েছেন জেনস ডেক ও তার দল।

কঠোর পরিশ্রম আর দৃঢ় মনোযোগ নিয়ে প্রতিযোগীকে দড়ির ওপর দিয়ে পাড়ি দিতে হয় নির্দিষ্ট দূরত্ব। মনোযোগ হারালেই বিপদ। ছিটকে পড়তে হবে একেবারে নিচে।

নুরেমবার্গের ম্যাক্স মরলোক স্টেডিয়ামে এ আয়োজনে মাটি থেকে ৭৩ মিটার উচ্চতায় দড়ির ওপর দিয়ে স্টেডিয়ামের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে পৌঁছান প্রতিযোগীরা।

করোনার অস্থিরতার মাঝেও নানাভাবে বিনোদনের খোরাক যুগিয়ে যাচ্ছেন ক্রীড়াবিদরা। কষ্টের মাঝেও তা একটু হলেও স্বস্তি দিচ্ছে সবার প্রাণে। জার্মানির নুরেমবার্গে ব্যতিক্রমী এক আয়োজন দারুন প্রশংসা কুড়িয়েছে। নুরেমবার্গের ম্যাক্স মরলোক স্টেডিয়ামে আয়োজন করা হয় উঁচু দড়ির ওপর দিয়ে হাঁটা প্রতিযোগিতা।

৭৩ মিটার উচ্চতায় দড়ির ওপর দাঁড়িয়ে জেনস ডেক। নিচের দিকে তাকালেই ভয়ে শিউরে ওঠে গা। কিন্তু রোমাঞ্চের নেশায় মাতোয়ারা ডেকের কাছে এটা শুধুই চ্যালেঞ্জ জয়ের মঞ্চ। স্টেডিয়ামের একপ্রান্তের ফ্লাডলাইটের ওপর থেকে পাড়ি দিয়ে যেতে হয় আরেক প্রান্তে অবস্থিত ফ্লাডলাইটে।

এভাবেই পাড়ি দিতে হয় ২৩০ মিটার দূরত্ব! কি ভাবছেন, পড়ে গেলে মরে যাবেন নাতো? না রোমাঞ্চকর এ আয়োজনে প্রতিযোগিদের জন্য ছিলো বিশেষ সতর্কতামূলক ব্যবস্থা। পড়ে গেলেও শরীরে বিশেষ ধরণের দড়ি বাঁধা থাকে সবার। নিচেও রাখা হয় বিশেষ সুরক্ষা সামগ্রী। যাতে করে পড়ে গেলেও কোন ধরণের শারিরীক ক্ষতি হয় না প্রতিযোগীদের।

প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হওয়া জেনস ডেক বলেন, এ আসরে অংশ নিতে পেরে আমরা দারুন খুশি। এটা সত্যিই একটা ভিন্ন ধরণের খেলা। এখানে বিপদের ঝুঁকি কম থাকলেও, সবচেয়ে বড় সমস্যা মনোযোগ ধরে রাখা। যা সত্যিই কঠিন। কোনভাবে মনোযোগ হারিয়ে ফেললেই পা পিছলে পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই খুব সতর্ক থাকতে হয় সবাইকে।

এ আসরে বিশ্বরেকর্ড গড়েছে জেনস ডেকের দল। আগামীতে এ খেলাকে বিশ্ব দরবারে তুলে ধরার লক্ষ্য তাদের। সে লক্ষ্য কাজ করে যাচ্ছেন ডেক ও তার দল।

শীর্ষ সংবাদ:
অপরাধীর রক্ষা নেই ॥ তৈরি হচ্ছে জাতীয় ডিএনএ ডাটাবেজ         ২৫ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী চূড়ান্ত         শুরু হচ্ছে যমুনায় পৃৃথক রেলসেতুর নির্মাণ কাজ         রাষ্ট্র ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী বক্তব্য সহ্য করা হবে না         বাবুনগরীর বক্তব্য রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল         আজীবন সম্মাননা পেলেন তোয়াব খান         আয়কর রিটার্ন দাখিলের সময় বাড়তে পারে         দশটি ধারা নিয়ে বিপত্তি ॥ সড়ক আইন         করোনায় মৃত্যু ও নতুন রোগী শনাক্তের হার বেড়েছে         বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য প্রতিষ্ঠিত হবেই ॥ হানিফ         মামুনুল-ফয়জুলকে ৩ দিনের মধ্যে গ্রেফতার করুন ॥ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ         পেনসিলভানিয়ার ভোট নিয়ে আপীলেও হারলেন ট্রাম্প         কালুরঘাট রোড-কাম রেল সেতুর টোল আদায়ের লিজ নিয়ে কারসাজি         কিশোর গ্যাং ও সন্ত্রাসী রোহিঙ্গারা ফের বেপরোয়া         আবহাওয়ার হেয়ালি আচরণ, কখনও শীত কখনও গরম         বিএসএমএমইউর ৪ চিকিৎসকের বিরুদ্ধে শাহবাগ থানায় হত্যা মামলা         মামুনুল-ফয়জুলকে ৩ দিনের মধ্যে গ্রেফতারের দাবি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের         রাজনৈতিকভাবে ব্যর্থ ষড়যন্ত্রকারীদের থেকে সতর্ক থাকুন : তথ্যমন্ত্রী         স্থগিত সাত ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা         বেসরকারি খাতে ঋণের গতি আবারও কমছে