মঙ্গলবার ৩০ আষাঢ় ১৪২৭, ১৪ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

করোনার মধ্যেও জেএমবি আনসার ও আল্লাহর দল তৎপরতা চালাচ্ছে

করোনার মধ্যেও জেএমবি আনসার ও আল্লাহর দল তৎপরতা চালাচ্ছে
  • তহবিল বাড়াতে বিভিন্ন এ্যাপস ব্যবহার করছে

গাফফার খান চৌধুরী ॥ করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও নিষিদ্ধ জঙ্গী সংগঠন জেএমবি, আনসার আল ইসলাম ও আল্লাহর দল তৎপরতা চালাচ্ছে। জঙ্গী সংগঠন তিনটি তৎপরতা চালাতে বিভিন্ন এ্যাপস ব্যবহার করছে। তহবিল বাড়াতে ব্যবহার করছে বিকাশ ও ইলেকট্রনিক মানি ট্রান্সফার পদ্ধতি। তৎপর থাকা সংগঠনগুলো একটি প্ল্যাটফরমে আসার চেষ্টা করছে। যাতে ভবিষ্যতে তারা আরও শক্তিশালী হয়ে বড় ধরনের নাশকতা চালাতে সক্ষম হয়। তারা আন্তর্জাতিকভাবে নিষিদ্ধ জঙ্গী সংগঠন ইসলামিক স্টেট বা আইএস ও আল কায়েদার অনুসারী। সম্প্রতি তিনটি জঙ্গী সংগঠনের সতেরো সদস্য গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদে মিলেছে এমন তথ্য।

র‌্যাবের ইন্টেলিজেন্স বিভাগের প্রধান ও বাহিনীটির লিগ্যাল এ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লে. কর্নেল সারওয়ার-বিন-কাশেম এমন তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জনকণ্ঠকে জানান, বহু দিন ধরেই জেএমবি, আল্লাহর দল ও আনসার আল ইসলাম এক প্ল্যাটফরমে আসার চেষ্টা করে যাচ্ছে। তবে নানা ধরনের মতবিরোধের কারণে এখনও তারা সেটি করতে পারেনি। বছরের শুরু থেকেই তারা তুলনামূলক বেশি তৎপরতা শুরু করে। এজন্য বিভিন্ন এলাকায় তৎপর থাকা জঙ্গীদের গ্রেফতারে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা দেয়া হয়। সেই নির্দেশনা মোতাবেক সর্বশেষ ৩০ মে পর্যন্ত আনসার আল ইসলামের একটি গ্রুপের আট সদস্যকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই। আনসার আল ইসলাম সদস্যদের গ্রেফতারে চালানো অপারেশনটি পরিচালনা করে র‌্যাব-২।

র‌্যাব-২ এর স্পেশালাইজড ক্রাইম প্রিভেনশন কোম্পানির কমান্ডার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী জনকণ্ঠকে জানান, আনসার আল ইসলামের গ্রেফতারকৃত আট জনের মধ্যে ইতোমধ্যেই চার জন তাদের তৎপরতা থাকাসহ নানা বিষয়ে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে। জবানবন্দী মোতাবেক তারা পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও সিরিয়াসহ বিভিন্ন দেশে থাকা বিভিন্ন জঙ্গী সংগঠনের মতো দেশের প্রত্যন্ত একটি এলাকা দখলে নিতে চায়। সেটি কোন প্রত্যন্ত অঞ্চলের বা কোন গহীন জঙ্গলের গ্রাম হতে পারে। সেখানে তারা মুসলিম ভিলেজ গড়ে তুলবে। গ্রামটি ইসলামী আইন দ্বারা পরিচালিত হবে। সেখান থেকেই তারা দেশে ইসলামী শাসন ব্যবস্থা কায়েমের জন্য সশস্ত্র অপারেশন চালাবে। মুন্সীগঞ্জ, সিলেট ও পাবনার পরিবেশগত কারণে তাদের তৎপরতা তুলনামূলক বেশি। ইসলামের পথে যারা বাধা বলে তারা মনে করে, তাদের হত্যাই তাদের প্রধান কাজ।

হত্যার ক্ষেত্রে তারা আর আগের মতো ছুরি-চাকু বা চাপাতি ব্যবহার করবে না। দ্রুত হত্যা নিশ্চিত করতে তারা পিস্তল বা রিভলবারের মতো আগ্নেয়াস্ত্র ও বিস্ফোরক ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাদের অর্থদাতা মুহিব মুশফিক খান ঢাকা থেকে গ্রেফতার হয়েছে। তারা ফেসবুক, হোয়াটসএ্যাপ, টেলিগ্রাম ও মেসেঞ্জার গ্রুপের মাধ্যমে জঙ্গীবাদের বিস্তার ঘটানোর পাশাপাশি নিজেদের মধ্যে নানা পরামর্শ করত। তাদের টার্গেট নিম্ন ও মধ্যবিত্ত পরিবারের কিশোর ও যুবকরা।

শীর্ষ সংবাদ:
একনেকে ১০ হাজার কোটি টাকার ৮ প্রকল্প অনুমোদন         কেশবপুর উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের শাহীন চাকলাদার নির্বাচিত         ঈদের জামাত নিয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ১১ নির্দেশনা         অধিদপ্তরের সঙ্গে মন্ত্রণালয়ের কোনো সমস্যা নেই : স্বাস্থ্যমন্ত্রী         বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সাড়ে ১৪ লাখ মানুষ         শাহজাহান সিরাজ আর নেই         যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বাবুলের দাফন সম্পন্ন         ময়ূর-২ লঞ্চের মাস্টার আবুল বাসার তিন দিনের রিমান্ডে         এবার নবায়নযোগ্য জ্বালানিতে বিদ্যুত উৎপাদনে চীনের বড় বিনিয়োগ আসছে         করোনা ভাইরাসে সুস্থের সংখ্যা লাখ ছাড়াল, মৃত্যু আরও ৩৩ জনের         করোনা ভাইরাসের নমুনা পরীক্ষায় অনিয়ম সহ্য করা হবে না         ভার্চুয়ালেই চলবে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ         ঈদে শেয়ারবাজার তিন দিন বন্ধ থাকছে         বেসরকারি চাকরিজীবীদেরও ঈদে কর্মস্থলে থাকতে হবে         কোন অপশক্তি জাতীয় পার্টির এগিয়ে চলা রোধ করতে পারবে না : জিএম কাদের         কোরবানি সামনে রেখে টিসিবির বিক্রি কার্যক্রম শুরু         আগামী ১৫ জুলাই সমাহিত করা হবে এন্ড্রু কিশোরকে         কক্সবাজার থেকে সাতক্ষীরা পর্যন্ত সুপার ড্রাইভওয়ে নির্মাণের পরিকল্পনা         বিশেষ ফ্লাইটে ওমান থেকে ফিরলেন ২৫৪ বাংলাদেশি         প্রকল্পের কাজে অনিয়মে নরসিংদী সদরের উপজেলা প্রকৌশলী বরখাস্ত        
//--BID Records