শনিবার ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৮ আগস্ট ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

এসএ গেমসের সাফল্য

দক্ষিণ এশিয়ান গেমসের ১৩তম আসরের যবনিকাপাত হয়েছে ১০ ডিসেম্বর নেপালের দশরথ স্টেডিয়ামে। এই আসরে বাংলাদেশের প্রাপ্তি এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ। নিজেদের অবস্থানে সেরা খেলাটি উপহার দিয়ে প্রতিযোগিতায় স্থান করে নেয় পঞ্চমে। নেপালের পাহাড়ঘেরা দশরথ রঙ্গমঞ্চটি খেলোয়াড়দের শক্তিমত্তা প্রদর্শনের এক অবর্ণনীয় সুযোগ এনে দেয়। দুর্দান্ত প্রতিযোগিতামূলক প্রায় সব খেলায় বাংলাদেশী খেলোয়াড়রা নিজেদের অবস্থান অনেকটাই শক্ত করে নেয়। ৭টি দেশের মধ্যে ৫ম স্থান অর্জনে সীমাবদ্ধ রাখলেও কিছু জায়গায় কৃতিত্বের ভাগিদার হয় বাংলাদেশ। চ্যাম্পিয়ন ভারত স্বর্ণ ও রৌপ্যপদকে অনেক বেশি এগিয়ে থাকলেও ব্রোঞ্জপদকে দ্বিতীয় স্থানে থাকা স্বাগতিক নেপালের চাইতে প্রায় অর্ধেক পিছিয়ে থাকে। ভারত ১৭৪টি স্বর্ণ, ৯৩টি রৌপ্য এবং ৪৫টি ব্রোঞ্জপদক নিয়ে ১৩তম আসরের সেরা বিবেচিত হয়। আয়োজক নেপাল ৫১টি স্বর্ণ, ৬০টি রৌপ্য আর ৯৫টি ব্রোঞ্জপদক নিয়ে দ্বিতীয় সেরা হিসেবে নিজেদের তুলে ধরে। শ্রীলঙ্কা ৩য় আর পাকিস্তান চতুর্থ হলে বাংলাদেশের অবস্থান হয় পঞ্চম। তার পরেও এই অর্জন এ পর্যন্ত সেরা প্রাপ্তি। বাংলাদেশের সাফল্যের প্রধান জায়গাটি আর্চারি। এখানে দশটি ইভেন্টে বাংলাদেশ অসাধারণ পারদর্শিতায় সবকটিতে স্বর্ণ লাভ করে। এটা পুরো আসরের দেশটির অভাবনীয় সাফল্য। কারাতে পেয়েছে ৩টি সোনা। ভারোত্তোলন থেকে আসে ২টি স্বর্ণপদক। বাংলাদেশ পুরুষ ও মহিলা ক্রিকেট দল আকাক্সিক্ষত দুটো সোনা নিজেদের অর্জনে যোগ করে। শেষ অবধি স্বর্ণ বিজয় গড়ায় ১৯টিতে। রুপায় পদক আসে ৩৩টি আর ব্রোঞ্জে ৯০টি। ব্রোঞ্জে বাংলাদেশ মূলত ৩য় স্থানে। নিজেদের সেরাটা উপহার দিয়ে যে কৃতিত্ব দেখালেন খেলোয়াড়রা তার জন্য আমরা গর্বিত ও আনন্দিত। তবে কোন প্রাপ্তিই সর্বশেষ গন্তব্য নয়। আরও অনেক সম্ভাবনাময় পথ পাড়ি দিতে হবে। তার জন্য প্রয়োজন ধৈর্য, সহনশীল মনোভাবে নিজেদের ক্ষমতাকে বাড়ানো এবং আরও উন্নতমানের প্রশিক্ষণ নেয়া। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে খেলোয়াড়দের অভিনন্দিত করেছেন।

নেপালের উচ্চতায় বাংলাদেশের কতিপয় খেলোয়াড়কে অসুস্থ ও হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়। দুর্গম পাহাড়ী এলাকাকে সহজগামিতায় নিতে গেলে আরও উন্নতমানের প্রশিক্ষণ ও অভিজ্ঞতার প্রয়োজন পড়ে। তাহলে যে কোন দেশে বিরূপ পরিবেশে নিজেদের খাপ খাইয়ে নিতে তেমন অসুবিধা হবে না।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকেও এসব বিষয় আমলে নিতে হবে। দক্ষ খেলোয়াড় হিসেবে নিজেদের যোগ্যতম করতে পরিবেশ-পরিস্থিতিকেও জয় করা এক ধরনের পারদর্শিতা। উর্ধতন কর্তৃপক্ষ নিশ্চয়ই সচেতন দায়দ্ধতায় খেলোয়াড়দের প্রতি আরও বেশি মনযোগী হবেন। যেটুকু সাফল্য এসেছে সবটাই খেলোয়াড়দের প্রাপ্য।

শীর্ষ সংবাদ:
হাওড়ে মরণ ফাঁদ ॥ অরক্ষিত নৌ পরিবহন ব্যবস্থা         বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী আজ         অশুভ চক্র গুজব রটনা ও অপপ্রচারে লিপ্ত ॥ কাদের         সিনহা হত্যায় জড়িত কেউই ছাড় পাবে না ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         দেশে করোনা আক্রান্ত আড়াই লাখ ছাড়িয়েছে         যুক্তরাষ্ট্রে ফের রেকর্ড মৃত্যুর ঘটনা         সিনহাকে হত্যার কারণ এখনও অনুদ্ঘাটিত         রাজধানীতে গাড়ির ধাক্কায় পর্বতারোহী রেশমার মৃত্যু         বৃষ্টি ও জোয়ারে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি         করোনায় চবি শিক্ষকের মৃত্যু ॥ নতুন আক্রান্ত ১২৮         কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌপথে ঝুঁকি নিয়ে পদ্মা পাড়ি         ই-কমার্স কর্মসংস্থান ও অর্থনৈতিক কর্মকান্ড গতিশীল করেছে         মুজিব-বর্ষে বঙ্গবন্ধুর খুনীদের আরও একজনকে দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের সম্মুখীন করব : পররাষ্ট্রমন্ত্রী         সিনহা নিহতের ঘটনায় কাউকেই ছাড় নয় ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে দ্রুত         চার নাইজেরিয়ানসহ প্রতারক চক্রের ৫ সদস্য আটক         রাজধানীতে প্রাইভেটকার চাপায় পর্বতারোহী রেশমা নিহত         করোনা ভাইরাসে আরও ২৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত আড়াই লাখ ছাড়াল         শেখ হাসিনার সরকারের বিরুদ্ধে গুজব রটিয়ে লাভ হবে না ॥ কাদের         জেকেজিকে সহায়তা করেও আসামি নন সাবেক স্বাস্থ্য ডিজি !        
//--BID Records