বৃহস্পতিবার ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ২৯ অক্টোবর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

এনটিভির ভিডিও এডিটর আতিক হত্যা ॥ এক আসামির মৃত্যুদণ্ড বহাল

এনটিভির ভিডিও এডিটর আতিক হত্যা ॥ এক আসামির মৃত্যুদণ্ড বহাল

অনলাইন রিপোর্টার ॥ বেসরকারি টিভি চ্যানেল এনটিভির ভিডিও এডিটর আতিকুল ইসলাম আতিক হত্যা মামলায় এক আসামির মৃত্যুদণ্ডসহ আসামিদের বিচারিক আদালতের দেওয়া সাজা বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট।

এ বিষয়ে ডেথ রেফারেন্স ও আসামিদের আপিল খারিজ করে রবিবার বিচারপতি সহিদুল করিম ও বিচারপতি মো. আখতারুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শাহীন আহমেদ খান ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মেহেদী হাসান।

পরে মেহেদী হাসান বলেন, সব আসামির বিষয়ে বিচারিক আদালতের দেওয়া দণ্ড বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট।

২০১৪ সালের ২৪ জুন এ মামলায় একজনের ফাঁসি ও দুই আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং আরেক আসামিকে তিন বছরের কারাদণ্ড ঢাকার ২ নম্বর দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ নুরুজ্জামান।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হলেন- শাকিল শিকদার। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত দুই আসামি হলেন- আবদুল্লাহ মোহাম্মদ ইবনে আলী সরকার নাহিদ ও মো. ফোরকান।

অন্য আসামি মো. খোকনকে ভিকটিমের মোটরসাইকেল চোরাই মাল হিসেবে গ্রহণ করার অভিযোগে অভিযুক্ত করে তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

পরে মৃত্যুদণ্ডাদেশ অনুমোদনের জন্য (ডেথ রেফারেন্স) মামলার যাবতীয় নথি হাইকোর্টে পাঠানো হয়। এর মধ্যে আসামিপক্ষে আপিলও করা হয়। সম্প্রতি ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের ওপর শুনানি শেষ হয়।

মামলার এজাহার হতে জানা যায়, নিহত আতিকুল ইসলাম এনটিভির ভিডিও এডিটর হিসাবে কাজ করে আসছিলেন। প্রতিদিনের মতো ২০০৯ বছরের ১৩ ফেব্রুয়ারি রাতে এনটিভির কাজ শেষ করে তার লাল রংয়ের ডিসকভার মোটর সাইকেলযোগে বাসায় ফিরছিলেন।

পথে ঢাকার টঙ্গী ডাইভারশন রোডের মগবাজার রেল ক্রসিংয়ের ২০ গজ আগে তালতলা গলির ভিতর জনৈক বাবুলের চায়ের দোকানের সামনে আসলে সন্ত্রাসীরা আতিকুল ইসলামকে পরপর দুটি গুলি করে তার মোটরসাইকেল ছিনতাই করে।

জনৈক পথচারী জাফর ও টিটু তাকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে রাত সাড়ে ১০ টায় তিনি মারা যান।

ঘটনার পরদিন ১৪ ফেব্রুয়ারি নিহতের ভাই আবু বকর সিদ্দিক বাদী হয়ে রমনা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক আবুল খায়ের ঘটনা তদন্ত করে ওই বছরের ৯ আগস্ট আব্দুল্লাহ মো. ইবনে আলী সরকার ওরফে নাহিদ, মো. খোকন, মো. শাকিল শিকদার ও ফোরকানকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন।

আসামিদের বিরুদ্ধে ২০১০ সলের ৬ অক্টোবর অভিযোগ গঠন করা হয়। এরপর ২০১৪ সালের ২৪ জুন এ মামলায় রায় ঘোষণা করেন বিচারিক আদালত।

শীর্ষ সংবাদ:
সদা প্রস্তুত থাকুন ॥ সার্বভৌমত্ব ও পবিত্র সংবিধান রক্ষায়         ইরফান সেলিম ও বডিগার্ড জাহিদ ৩ দিনের রিমান্ডে         অপরাজনীতির জন্য বিএনপি দিন দিন জনবিচ্ছিন্ন হচ্ছে         প্রণোদনায় প্রবাসী আয়ের বৈধ প্রবাহ বেড়েছে         মেয়াদ শেষ হলেই পৌরসভার নির্বাচন         আগাম ভোট ৭ কোটি ॥ মরিয়া ট্রাম্প         নির্ধারিত সময়েই মেট্রোরেল         করোনায় দেশে আরও ২৩ জনের মৃত্যু         শীঘ্রই পর্যটন ভিসা দেবে ভারত ॥ দোরাইস্বামীর আশ্বাস         রিফাত হত্যাসহ সব মামলার দ্রুত শুনানি ॥ এ্যাটর্নি জেনারেল         করোনাপরবর্তী প্রাথমিক শিক্ষার রূপরেখা নির্ধারণ         করোনা মোকাবেলায় ধর্মের ইতিবাচক ব্যবহারের আহ্বান         রিমান্ড শেষে কনস্টেবল টিটু কারাগারে, অন্যরা গ্রেফতার হয়নি         ‘স্বাধীনতা পুরস্কার-২০২০’ দেওয়া হবে বৃহস্পতিবার         হাজী সেলিম ও তার ছেলের সম্পদের তথ্য সংগ্রহ করছে দুদক         পরীক্ষা নেয়ার অনুমতি পাচ্ছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়         করোনায় শিক্ষার ছুটি বৃদ্ধির ঘোষণা আসছে আগামীকাল         মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রতিষ্ঠিত না হলে দুর্নীতি বন্ধ হবে না ॥ বাদশা         দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ২৩ জনের, নতুন শনাক্ত ১৪৯৩         আজারবাইজান-আর্মেনিয়া সংঘাতে কারাবাখের প্রতিরক্ষামন্ত্রী আহত