বৃহস্পতিবার ২৫ আষাঢ় ১৪২৭, ০৯ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

‘রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ডের তদন্ত করলেই বেরিয়ে আসবে জিয়া ও বিএনপির বাস্তব চিত্র’

সংসদ রিপোর্টার ॥ ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট, ৩ নবেম্বর এবং ৭ নবেম্বরসহ পরবর্তী সকল রাজনৈতিক হত্যাকা-ের তদন্ত করে এসব হত্যাকা-ের সঙ্গে জড়িত ও নেপথ্যের হোতাদের মুখোশ জাতির সামনে উন্মোচন করার দাবি জানিয়েছেন ৭ নবেম্বরের হত্যাকা-ের শিকার খন্দকার নাজমুল হুদা বীর বিক্রমের মেয়ে আওয়ামী লীগ দলীয় সংরক্ষিত সংসদ সদস্য নাহিদ ইজহার খান। আবেগজড়িত কণ্ঠে তিনি বলেন, এসব তদন্ত করলেই বের হয়ে আসবে জিয়াউর রহমান ও তাঁর সহযোগী এবং তাঁর দলের (বিএনপি) ভূমিকার বাস্তব চিত্র।

ডেপুটি স্পীকার এ্যাডভোকেট ফজরে রাব্বির সভাপতিত্বে মঙ্গলবার রাতে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে আবেগঘন বক্তব্য রাখেন নাহিদ ইজহার খান। তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালের ৭ নবেম্বর স্বাধীন বাংলাদেশের একটি কালো অধ্যায়। ৪৪ বছর আগে ৭ নবেম্বর এই সংসদ প্রাঙ্গণে মেজর জেনারেল খালেদ মোশাররফ, আমার বাবা খন্দকার নাজমুল হুদা (বীর বিক্রম) এবং লেফটেনেন্ট কর্নেল এটিএম হায়দার (বীর উত্তমকে) হত্যা করা হয়। আমি এই তিন শহীদের মাগফিরাত কামনা করি।

৭ নবেম্বরের ঘটনার বর্ণনা করতে গিয়ে কান্নাজড়িত কণ্ঠে তিনি বলেন, আমার ভাই অনেক ধাক্কা দিচ্ছিল বাবাকে ওঠানোর জন্য কিন্তু বাবাকে কোনভাবেই ওঠাতে পারল না। ওরা সবাই বুঝছিল বাবা আর কোন দিন আসবে না। কিন্তু আমি বুঝতে পারিনি। আমি আশায় ছিলাম কোন একটা দিন বাবা ফেরত আসবেন। এই ঘোর কাটাতে আমার লেগেছিল পুরো এক বছর।

নাহিদ ইজহার বলেন, বাবাকে (খন্দকার নাজমুল হুদা) দাফনের পর শুরু হয় আমাদের জীবনের সংগ্রাম। আমার প্রশ্ন সেই দলের মানুষদের কাছে, তারা কি আমার বাবাকে ফেরত দিতে পারবে? তারা কি ফেরত দিতে পারবে বাবার সঙ্গে আমাদের শৈশব। তিনি বলেন, বাবা মারা যাওয়ার পর আমরা স্কুলে যেতে পারতাম না দুই বছর। তখন স্কুলের ছেলে-মেয়েরা আমাদের বলত, আমরা নাকি বিদেশের দালালের মেয়ে! আমাদের পড়াশোনা দুই বছর নষ্ট হয়েছে। তারা (খুনী) কি ফেরত দিতে পারবে সেই দুই বছর। একজন সন্তানের জন্য সবচেয়ে কষ্ট বাবার কবরে ফুল দেয়া। তারা কোন দিন কি এটা অনুভব করেছেন?

তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট, ৩ নবেম্বর, ৭ নভেম্বর এবং এর পরবর্তীতে অনেক রাজনৈতিক হত্যাকা- হয়েছে। আমি আহ্বান জানাচ্ছি সকল হত্যাকা-ের একটি তদন্ত হোক। যার মধ্য দিয়ে বের হয়ে আসবে জিয়াউর রহমান ও তাঁর সহযোগী এবং তাঁর দলের ভূমিকা। অনেক অজানা তথ্য জাতির সামনে বেরিয়ে আসবে।

শীর্ষ সংবাদ:
সিরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা শক্তিশালী করবে ইরান         জেনারেল সোলাইমানি হত্যা ॥ বোল্টনের দাম্ভিক উক্তির জবাব দিল রাশিয়া         করোনায় হলেও দম্ভ যায়নি ব্রাজিলিয়ান প্রেসিডেন্টের!         বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত ১ কোটি ২০ লাখ         কাতারে আক্রান্ত লাখ ছাড়ালেও সুস্থই ৯৬ হাজারের বেশি         করোনা ॥ বাংলাদেশে আরও উদ্বেগজনক পরিস্থিতির আশঙ্কা         মার্কিন মাদক পাচারকারী বিমান ধ্বংস করল ভেনিজুয়েলার বিমানবাহিনী         বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি ॥ ময়ূর-২ এর মালিক মোসাদ্দেক গ্রেফতার         উখিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩ রোহিঙ্গা নিহত, ৩ লাখ ইয়াবা উদ্ধার         শক্তিশালী পাসপোর্ট র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে জাপান         বিদেশি শিক্ষার্থী ফেরত পাঠানোর বিরুদ্ধে মার্কিন আদালতে মামলা         সিরিয়ায় ত্রাণ সহায়তার অজুহাতে পাশ্চাত্যের ষড়যন্ত্রমূলক পরিকল্পনা ব্যর্থ         ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালের আহ্বান পম্পেওর         জম্মু-কাশ্মীরে বাবা-ভাইসহ বিজেপি নেতাকে গুলি করে হত্যা         মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রীর যে বক্তব্যে দুঃখ প্রকাশ করলেন সের্গেই ল্যাভরভ         জোড়া লাল কার্ডের ম্যাচে বার্সার জয়         হংকংয়ের শিক্ষার্থীদের রাজনৈতিক কার্যক্রম নিষিদ্ধ         ভারতীয় সেনাদের ফেসবুকসহ ৮৯টি অ্যাপ ব্যবহার নিষিদ্ধ         রিজেন্টের অনিয়ম খুঁজে বের করে ব্যবস্থা নিয়েছি         চিকিৎসা প্রতারক সাহেদের উত্থান বিস্ময়কর        
//--BID Records