বুধবার ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ১২ আগস্ট ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

গান্ধী পরিবারের বিশেষ নিরাপত্তা বাতিল

গান্ধী পরিবারের বিশেষ নিরাপত্তা বাতিল

অনলাইন ডেস্ক ॥ ভারতের প্রধানবিরোধী দল কংগ্রেসের নেতা সোনিয়া গান্ধী ও রাহুল গান্ধী পরিবারের বিশেষ সুরক্ষা বাতিল করেছে দেশটির সরকার। গান্ধী পরিবারের জন্য স্পেশাল প্রোটেকশন গ্রুপ (এসপিজি) ক্যাটেগরির নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রত্যাহার করে নিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এখন থেকে তারা এসপিজির বদলে জেড প্ল্যাস ক্যাটেগরির নিরাপত্তা পাবেন।

দেশটির সংবাদমাধ্যম বলছে, এসপিজি বাতিল হয়ে যাওয়ায় এখন গান্ধী পরিবারের নিরাপত্তার দায়িত্ব চলে গেছে দেশটির কেন্দ্রীয় আধা-সামরিক পুলিশ বাহিনীর (সিআরপিএফ) হাতে। শুক্রবার গান্ধী পরিবারের নিরাপত্তার নতুন এই সিদ্ধান্ত নেয় ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়।

এই সিদ্ধান্ত তুলে নেয়ায় এবার থেকে দেশটিতে শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এসপিজি নিরাপত্তা পাবেন। গত আগস্টে ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহের এসপিজি নিরাপত্তা প্রত্যাহার করেছিল নরেন্দ্র মোদি সরকার।

এমন সিদ্ধান্ত হতে যাচ্ছে আঁচ পেয়ে মনমোহন সিংহ গত মঙ্গলবার ক্যাবিনেট সচিবকে এক চিঠিতে আবেদন জানান, গান্ধী পরিবারের এসপিজি নিরাপত্তা যেন প্রত্যাহার করা না-হয়। চিঠিতে তিনি বলেন, অতীতে নিরাপত্তায় ফাঁকের কারণেই সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী প্রাণ হারিয়েছিলেন। তদন্তের পর বিচারপতি জে এস বর্মা তার রিপোর্টে জানিয়েছিলেন, রাজীব-হত্যার চেষ্টা করা হতে পারে; এই তথ্য গোয়েন্দা বাহিনীর কাছে ছিল। তবুও যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সুরজেওয়ালার আক্ষেপ, ‘একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী চিঠি দেয়া সত্ত্বেও তার প্রাপ্তিস্বীকারটুকুও করা হয়নি। উল্টো আজ প্রতিহিংসার রাজনীতির শিকার হল গান্ধী পরিবার।’

দেশটির গোয়েন্দা সংস্থাগুলো বলছে, বর্তমানে গান্ধী পরিবারের ওপর সরাসরি হামলা হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই। গোয়েন্দা সংস্থার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এই সুরক্ষা প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

১৯৮৫ সালে ইন্ধিরা গান্ধী খুন হওয়ার পর ভারতে এসপিজি নিরাপত্তা ব্যবস্থা চালু করা হয়। বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ছাড়া গান্ধী পরিবারের তিনজন এই নিরাপত্তা পেতেন। তবে এই সিদ্ধান্তের পর কেবল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এসপিজি নিরাপত্তা পাবেন।

শীর্ষ সংবাদ:
ওয়েবিনার জুম ॥ করোনাকালের গণমাধ্যম         এলো রুশ ভ্যাকসিন         নামছে বন্যার পানি, বাড়িঘরে ফিরছেন মানুষজন         পুলিশী মামলার তিন সাক্ষী গ্রেফতার ॥ রিমান্ডের আবেদন         ভাড়া ডাকাতির মহোৎসব         করোনায় আরও ৩৩ জনের মৃত্যু         ছোট ঋণ সোনার হরিণ ॥ চার মাসে বিতরণ মাত্র ৫শ’ কোটি টাকা         সাম্প্রদায়িকতা-জঙ্গীবাদ ধর্মের মূল শিক্ষাকেই প্রশ্নবিদ্ধ করে         খালেদার চিকিৎসা দেশে না বিদেশে? দ্বিধাবিভক্ত বিএনপি         পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণীর সমাপনী পরীক্ষা বাতিল হতে পারে         ডিজিএফআই ও সিআইডি কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা, তিন প্রতারক গ্রেফতার         সাড়ে তিন বছরে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সমৃদ্ধির দিকে এগোতে থাকে         লেবাননে ৪০ হাজার কর্মী বাংলাদেশে ফিরতে সহযোগিতা চান         উত্তরা থেকে তেজগাঁও, দশ ইউটার্ন নির্মাণ ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে         সাগরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত         সাবেক পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত         বঙ্গবন্ধুর হত্যা ছিল স্বাধীন বাংলাদেশকে হত্যার ষড়যন্ত্র ॥ তথ্যমন্ত্রী         মেজর সিনহা হত্যা ॥ আরও তিনজন গ্রেফতার         চলতি বছরের মধ্যে ইউটার্নগুলোর কাজ শেষ হবে ॥ আতিক         বিশ্বের প্রথম করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রয়োগ হল পুতিনের মেয়ের শরীরে        
//--BID Records