বৃহস্পতিবার ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

গান আবৃত্তি নৃত্য নাটক- রবীন্দ্র সরোবরে একুশের অনুষ্ঠান

গান আবৃত্তি নৃত্য নাটক- রবীন্দ্র সরোবরে একুশের অনুষ্ঠান
  • সংস্কৃতি সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ‘একুশ আছে জয়োদ্ধত একুশ বাঁচে অবিরত’ স্লোগানে ধানম-ির রবীন্দ্র সরোবরে চলছে একুশে অনুষ্ঠানমালা। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত ১৪ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার সোমবার ছিল ১১তম দিন। এদিন বিকেলে দলীয় ও একক আবৃত্তি, গান, নৃত্য আর নাটকে মুখরিত ছিল রবীন্দ্র সরোবর উন্মুক্ত মঞ্চ। মানজার চৌধুরী সুইটের একুশের ঘোষণা পাঠের মধ্যদিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠান। পরে শিশু সংগঠন তক্ষশীলার পরিবেশনায় ছিল বৃন্দ আবৃত্তি ‘দেশ আমার ভাষা আমার’। দলীয় এ আবৃত্তি প্রযোজনা, গ্রন্থনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন নাদিমুল ইসলাম। এর পর একক সঙ্গীত নিয়ে মঞ্চে আসেন শিল্পী রোকাইয়া হাসিনা। তিনি পর পর দুটি রবীন্দ্রসঙ্গীত পরিবেশন করেন। তার প্রথম পরিবেশনা ‘যে তোমায় ছাড়ে ছাড়ুক আমি তোমায় ছাড়ব না মা’। এর পর তার কণ্ঠে পরিবেশিত হয় ‘যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে’।

ঋষিজ শিল্পীগোষ্ঠীর পরিবেশনায় ছিল পর পর চারটি দলীয় গান। শুরুতে পরিবেশন করে হেমাঙ্গ বিশ্বাসের গান ‘এই সমাধি তলে কত প্রাণপ্রদীপ জ্বলে’। পরে এক এক করে পরিবেশন করে ‘অপমানে

তুমি জ্বলে উঠেছিলে’, ‘আমার প্রতিবাদের ভাষ্য’ ও ‘ওরা আমার মুখের কথা কাইড়া নিতে চায়’।

অনুষ্ঠানে একক সঙ্গীত পরিবেশন করেন শিল্পী ফকির সিরাজ। তার কণ্ঠে পরিবেশিত হয় ভাষার গান ‘রাষ্ট্রভাষা আন্দোলন করিলি বাঙালি’। এরপর শিল্পী শিরিন ইসলাম একক আবৃত্তি পরিবেশন করেন। তিনি আবৃত্তি করেন ‘একুশের গান’ কবিতাটি।

পদাতিক সঙ্গীত সংসদের পরিবেশনায় ছিল পর পর তিনটি দলীয় গান। ‘ওরা আমার মুখের কথা’ গানটি দিয়ে শুরু হয় তাদের পরিবেশনা। একে একে পরিবেশন করে ‘মিলিত প্রাণের কলরবে’ ও ‘ভুলবো না ভুলবো না একুশের কথা’। অভ্যুদয় সাংস্কৃতিক সংগঠনের শিল্পীদের পরিবেশনায় ছিল পর পর তিনটি সম্মেলক গান। তাদের কণ্ঠে পরিবেশিত হয় ‘বাংলার মাটি বাংলার জল’, ‘অপমানে তুমি জ্বলে উঠেছিলে’ ও ‘আজকের গান একুশের গান’।

আবৃত্তি সংগঠন সাম্প্রতিক ঢাকার শিল্পীদের পরিবেশনায় ছিল বৃন্দ আবৃত্তি। ‘রক্ত পলাশ ফুটে আছে’ শীর্ষক বৃন্দ আবৃত্তিটির গ্রন্থনা ও সম্পাদনা করেন আমিরুল বাশার বাবু এবং নির্দেশনা দিয়েছেন সিরাজুর রহমান।

দলীয় নৃত্য পরিবেশন করে আঙ্গিকাম সংগঠনের শিল্পীরা। ‘প্রিয় মৃত্তিকা’ গানের সঙ্গে তাদের দলীয় নৃত্যে দর্শক মুগ্ধ।

দলীয় আবৃত্তি করে কণ্ঠশীলনের শিল্পীরা। অনুষ্ঠানে একক গান পরিবেশন করেন শিল্পী বিমান চন্দ্র বিশ্বাস। একক আবৃত্তি পরিবেশন করেন শিরিন ইসলাম ও সৈয়দ ফয়সাল আহমদ। সব শেষে ছিল সুবচন নাট্য সংসদের পরিবেশিত নাটক ‘বোধদয়’। নাটকটি লিখেছেন সাইফুদ্দিন আহমেদ সাইফ এবং নির্দেশনা দিয়েছেন আহম্মেদ গিয়াস।

শীর্ষ সংবাদ:
গণমুখী প্রশাসন ॥ স্বাধীনতার ৫০ বছরে বড় অর্জন         ছাত্রদের কাজ লেখাপড়া, রাস্তায় নেমে যান ভাংচুর নয়         উন্নয়নে পাকিস্তানকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ         ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নেতৃত্বের ভূমিকায় থাকবে         ১১ খাতে বিপুল বিনিয়োগ আসার সম্ভাবনা         ঐতিহাসিক পার্বত্য শান্তি চুক্তিতে বদলে গেছে পাহাড়         রামপুরায় ছাত্র বিক্ষোভ, মতিঝিলে গাড়ি ভাংচুর         দেশের প্রথম বর্জ্য বিদ্যুত কেন্দ্র অবশেষে বাস্তবায়ন হচ্ছে         বাল্যবিয়ে রোধে কাজীদের সচেতন করতে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে         হত্যা মিশনে ব্যবহৃত গুলি-অস্ত্র উদ্ধার         শ্রদ্ধা ভালবাসায় জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের চিরবিদায়         সুপ্রীমকোর্টে শারীরিক উপস্থিতিতে বিচার কাজ শুরু         খালেদা জিয়াকে স্তব্ধ করে দিতে চায় সরকার ॥ ফখরুল         মুক্তিপণের টাকা আদায় হচ্ছিল মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে         সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে লাল সবুজের মহোৎসবে মুখরিত হাতিরঝিল         ৯০ কার্যদিবসে সম্প্রীতি বিনষ্টের মামলা নিষ্পত্তি করতে হবে         এইচএসসি ও আলিম পরীক্ষা উপলক্ষে যে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ডিএমপি         আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমলে ব্যবস্থা নেবো : অর্থমন্ত্রী         হৃদরোগ ঝুঁকি হ্রাসে সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় আরও ২ জনের মৃত্যু