ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

আবারও বিতর্কে মারিয়া

প্রকাশিত: ১১:৪৭, ৩০ জানুয়ারি ২০১৯

আবারও বিতর্কে মারিয়া

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মৌসুমের প্রথম গ্র্যান্ডস্লাম টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। দুই বছর আগে এই টুর্নামেন্টেই কলঙ্কজনক এক অধ্যায়ের জন্ম দিয়েছিলেন মারিয়া শারাপোভা। অতীত ভুলে নতুন শুরুতে ব্যস্ত থাকা রাশিয়ান টেনিসের এই গ্ল্যামারগার্ল এবার প্রথমদিকে আশা দেখাচ্ছিলেন তার ভক্ত-অনুরাগীদের। কিন্তু খুব বেশি এগোতে পারলেন না বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের সাবেক নাম্বার ওয়ান এই তারকা। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের চতুর্থ রাউন্ড থেকেই বিদায় নেন তিনি। রবিবার তাকে ৪-৬, ৬-১ এবং ৬-৪ গেমে পরাজিত করে টুর্নামেন্টের শেষ আটে জায়গা করে নেন অস্ট্রেলিয়ার এ্যাশলে বার্টি। মেলবোর্নে এবারও বিতর্কে মারিয়া শারাপোভার নাম। চতুর্থ রাউন্ডের ম্যাচে হারের পর সাংবাদিক সম্মেলনে অস্বস্তিকর প্রশ্নের সামনে পড়ে মেজাজ হারালেন রুশ সুন্দরী। রবিবার রড লেভার এ্যারেনায় দ্বিতীয় সেটের ঠিক পরে শারাপোভা ‘বাথরুম ব্রেক’ নেন এবং কোর্টে ফেরেন ৭ মিনিট পর। যা নিয়ে সরব গোটা টেনিস দুনিয়া। অতীতেও তিনি বেশ কয়েকবার এই একই কাজ করেছেন। বলা হচ্ছে, তার এতটা সময় কোর্টে না থাকার আসল কারণটা কী? দ্বিতীয় সেটে দারুণভাবে জয়ে ফেরা বার্টির ছন্দ নষ্ট করা। এ জন্য তার যথেষ্ট সমালোচনাও হলো। সময় নষ্টের জন্য ভর্ৎসিত হন পাঁচবারের গ্র্যান্ডস্লাম জয়ী এই টেনিস তারকা। আম্পায়ারের এই সিদ্ধান্ত হাততালি দিয়ে সমর্থন জানান গ্যালারিতের উপস্থিত দশর্করা। অনেকে আবার শারাপোভা কোর্টে ফিরতে দেরি করার জন্য তাকে বিদ্রƒপ করেন। সাংবাদিক সম্মেলনে এটা নিয়ে প্রশ্নও করা হয়। ঠিক তখনই রুশ তারকা মেজাজ হারিয়ে ফেলেন। সাংবাদিকের করা প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এই প্রশ্নে আপনারা আমার কী উত্তর আশা করেন?’ প্রশ্নকর্তা সাংবাদিক পুরো ঘটনাই তাকে নতুন করে বলেন। তারপর শারাপোভা বলেন, ‘আপনারা আমাকে যে প্রশ্নের উত্তর দিতে বলছেন তা খুবই তুচ্ছ প্রশ্ন।’ ঠিক তারপরই তার কাছে জানতে চাওয়া হয়, চোটের জন্য এখন তো তিনি নিষিদ্ধ মেলডোনিয়াম নিতে পারছেন না। তাহলে কিভাবে নিজের চিকিৎসা করছেন? বোঝাই গেল, শারাপোভাকে বিব্রত করতেই এমন প্রশ্ন। তাতে আরও বেশি বিরক্ত হয়ে পড়েন বিশ্ব টেনিসের সাবেক এই শীর্ষ তারকা। রেগে গিয়ে তিনি বলেন, ‘আপনাদের কি আর কোন প্রশ্ন আছে?’ শারাপোভার ‘অখেলোয়াড় সুলভ’ আচরণ নিয়ে সরব অনেকেই। সামাজিক যোগাযোগের জনপ্রিয় মাধ্যমগুলোতে তার আচরণের নিন্দা করছেন অনেকে। কেউ কেউ তাকে প্রতারকও বলছেন। এদিকে শারাপোভাকে বিদায় করা এ্যাশলে বার্টি বিষয়টি নিয়ে কী ভাবছেন? জানতে চাওয়া হলে অস্ট্রেলিয়ার এই প্রতিভাবান খেলোয়াড় বলেন, ‘ও যা করার তা নিয়মের মধ্যে করেছে। প্রতি ম্যাচে একবার টয়লেট ব্রেক নেয়া যায়। আমার মনে হয় ও যে লকাররুমে গিয়েছিল সেটা কোর্টের কাছাকাছি নয়। কাছের লকার রুমে যায়নি। এটা নিয়ে আমি কী করতে পারি?’ এই প্রথম মেজর কোন টুর্নামেন্টের শেষ আটে জায়গা করে নেয়া বার্টি এ সময় আরও বলেন, ‘অপেক্ষা করতেই হতো। সেটাই করেছি। জানি ও যেটা করেছে সেটা নিয়মের মধ্যে করেছে। তাছাড়াও এটা করায় আমার খেলায় কোন ধরনের প্রভাব পড়েনি। ছন্দও নষ্ট হয়নি।’ এই টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিলেও শারাপোভা অবশ্য ভেঙ্গে পড়ছেন না। তিনি জানালেন এখনও গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের স্বপ্ন দেখেন। তার মতে, ‘যদি আমি এই স্বপ্নটা নাই দেখতাম, তা হলে এত খেটে নিজেকে এই জায়গাটায় আনতে পারতাম না।’ উদাহরণ দিতে গিয়ে তিনি ওজনিয়াকির বিপক্ষে জয়ের কথাও টেনে এনেছেন।
monarchmart
monarchmart