ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১

মিন্দানাওয়ে গণভোটে অধিকতর স্বায়ত্তশাসনের পক্ষে রায়

প্রকাশিত: ২২:২৮, ২৬ জানুয়ারি ২০১৯

মিন্দানাওয়ে গণভোটে অধিকতর স্বায়ত্তশাসনের পক্ষে রায়

অনলাইন ডেস্ক ॥ ফিলিপিন্সের মুসলমান অধ্যুষিত দক্ষিণাঞ্চলীয় অঞ্চল মিন্দানাওয়ে গণভোটে অধিকতর স্বায়ত্তশাসনের পক্ষে মত দিয়েছেন ভোটাররা। এতে এশিয়ার সবচেয়ে সহিংসতা কবলিত অঞ্চলটিতে শান্তির আশা জাগিয়েছে। মিন্দানাওয়ে মুসলমানপ্রধান অংশগুলোতে স্বশাসিত অঞ্চল প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনার পক্ষে ৮৫ শতাংশ মানুষের ভোট পড়েছে। শুক্রবার দিনশেষে নির্বাচন কমিশন এমন তথ্য জানিয়েছে। কাজেই ক্রান্তিকালীন তিন বছর পর সেখানে পার্লামেন্ট নির্বাচনের পথ তৈরি হয়েছে। কয়েক দশকের সংঘাত নিরসনে বিভিন্ন সময়ে সরকারের সঙ্গে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বিশৃঙ্খলাপূর্ণ শান্তিপ্রক্রিয়ার সর্বশেষ উদ্যোগ হিসেবে গত সোমবার সেখানে গণভোট হয়েছে। সহিংসতার কবলে উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হয়ে এশিয়ার সবচেয়ে দরিদ্র অঞ্চলে পরিণত হয়েছে মিন্দানাও। অস্থিতিশীলতা, উচ্চমাত্রার বেকারত্ব ও অশিক্ষায় অঞ্চলটি রাহাজানির উর্বরক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে। কাজেই সোমবারের নির্বাচনে ১০ লাখ ৭৪ হাজার ভোটারের এই রায় বিস্মীত করার মতো কিছু না। নতুন অঞ্চলকে বাংসামোরো নামে ডাকা হবে। বাংসামোরোর অর্থ হচ্ছে মোরো জাতি। এখন থেকে স্থানীয় পঞ্চাশ লাখ লোকের জন্য উৎপাদন, অবকাঠামো, বিদ্যালয়, স্বাস্থ্যসেবা ও সামাজিক কল্যাণমূলক কাজে তারা অনেক বেশি বিনিয়োগ করতে পারবেন। বাংসামোরোতে যোগ দিতে ইচ্ছুক কিনা তা জানতে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি বাকি অঞ্চলগুলোতে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। ফিলিপিন্সের কেন্দ্রীয় সরকার বাংসামোরোর প্রতিরক্ষা, নিরাপত্তা, পররাষ্ট্র ও মুদ্রানীতির তত্ত্বাবধান করবে। এছাড়া মোরো ইসলামিক লিবারেশন ফ্রন্টের মনোনীত একটি অন্তবর্তীকালীন কর্তৃপক্ষ নিয়োগ দেয়া হবে। ভাইস প্রেসিডেন্ট লেনি রোব্রেডো বলেন, একটি প্রাগ্রসর অর্থনীতি ও দায়িত্বশীল স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠায় বাংসামোরোকে সহায়তা করবে কেন্দ্রীয় সরকার। কাজেই এই অগ্রগতিকে সহায়তা ও তত্ত্বাবধান করতে দিতে হবে আমাদের। কারণ শান্তির জন্য লড়াইয়ের অবসান এখনো ঘটেনি। খুবই সংকটময় মুহূর্তে ফিলিপিন্সের এই গণভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে। যখন মোহ কেটে যাওয়ায় মোরো লিবারেশন আর্মি বিভিন্ন দলে ভেঙে গেছে। অন্যান্য সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলো জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের প্রতি আনুগত প্রদর্শন করছে। ২০১৭ সালে মারাওয়ি শহরে একটি বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী হানা দিলে মিন্দানাওয়ে সামরিক আইন জারি করা হয়, যা পাঁচ মাস পর্যন্ত স্থায়ী ছিল। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর যা ছিল ফিলিপিন্সের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর সহিংসতা।
×