ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

টেস্টে ৪ হাজার রান ও তামিমকে টপকে দেশের পক্ষে সর্বাধিক রানের মালিক হওয়ারও সুযোগ

আরও দুটি মাইলফলকের সামনে মুশফিক

প্রকাশিত: ০৬:৪৩, ২১ নভেম্বর ২০১৮

 আরও দুটি মাইলফলকের সামনে মুশফিক

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কিছুদিন আগেই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে করেছেন বিশ্বরেকর্ড। টেস্ট ক্রিকেটের ১৪১ বছরের ইতিহাসে প্রথম উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে দুটি ডাবল সেঞ্চুরির মালিক হয়েছেন। এছাড়া এ বছরই তিন ফরমেটের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবমিলিয়ে ১০ হাজার রান পেরিয়ে সেটার স্বীকৃতি হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন। এবার মুশফিকুর রহীমের সামনে আরেকটি মাইলফলক। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বৃহস্পতিবার শুরু হতে যাওয়া প্রথম টেস্টে মাত্র ৩১ রান করতে পারলেই দ্বিতীয় বাংলাদেশী হিসেবে ৪ হাজার রান করবেন এ ফরমেটে। আর এ টেস্টে দুই ইনিংস মিলিয়ে ৮১ রান করলেই তামিম ইকবালকে ছাড়িয়ে দেশের পক্ষে সর্বাধিক টেস্ট রানের মালিকও হয়ে যাবেন। ৩১ বছর বয়সী এ ব্যাটসম্যানের বর্তমানে রান ৬৪ টেস্টে ৩৫.৭৫ গড়ে ৩৯৬৯। সম্প্রতিই ২১৯ রানের অপরাজিত একটি ইনিংস খেলে ব্যাটিং র‌্যাঙ্কিংয়েও ব্যাপক উন্নতি হয়েছে তার। ১৩ ধাপ এগিয়ে উঠে এসেছেন ক্যারিয়ারসেরা ১৮ নম্বরে। জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে নামার আগে দলের পাশাপাশি মুশফিকের ব্যাটেও ছিল দারুণ খরা। রানই পাচ্ছিলেন না। ৯ ইনিংসে মাত্র ১৫.০০ গড়ে করেছিলেন ১৩৫ রান। তবে জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসেই ২১৯ রানের একটি দুর্দান্ত ইনিংস খেলে বেশ কিছু বিশ্বরেকর্ড ও রেকর্ডের জন্ম দেন তিনি। দেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস এবং টেস্টের ইতিহাসে প্রথম উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে দুটি ডাবল সেঞ্চুরির কীর্তি গড়েন। সর্বাধিক ৫৮৯ মিনিট ধরে সবচেয়ে বেশি ৪২১ বল খেলার রেকর্ডও হয়েছে দেশের পক্ষে। সে জন্যই ব্যাটিং র‌্যাঙ্কিংয়ে নিজের সেরা অবস্থানে পৌঁছেছেন মুশফিক। তিনি ১৩ ধাপ এগিয়ে এখন সর্বশেষ ঘোষিত আইসিসি র‌্যাঙ্কিংয়ের ১৮ নম্বরে। ব্যাটিং গড়েও এখন টেস্টে বাংলাদেশের পক্ষে চতুর্থ সেরা তিনি। তবে মুশফিক সম্প্রতিই বলেছেন, ‘আমার ইচ্ছা, ১৫ হাজার ক্লাব বা ২০ হাজারের ক্লাবে যেন পৌঁছাতে পারি। যখন খেলা শেষ করব তখন যেন পঞ্চাশের কাছাকাছি গড়ে শেষ করতে পারি। চার-পাঁচ বছর ধরে যে রকম খেলছি, আশা করছি অসম্ভব হবে না এটা।’ রানের মধ্যে ফেরা মুশফিকের জন্য হয়তো সত্যিই সেটা অসম্ভব কিছু হবে না। দেশের পক্ষে সর্বাধিক ৬৪ টেস্ট খেলা ৩১ বছর বয়সী এ উইকেটরক্ষকের রান এখন ৩৯৬৯। ৩১ রান করলেই দ্বিতীয় বাংলাদেশী হিসেবে টেস্টে ৪০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করবেন তিনি। সাগরিকা টেস্টের দুই ইনিংস মিলিয়ে সে জন্য মাত্র ৩১ রান প্রয়োজন তার। দেশের পক্ষে তামিম ইকবাল ৫৬ টেস্টে ৩৭.৮৪ গড়ে সর্বাধিক ৪০৪৯ রানের মালিক। অর্থাৎ আর মাত্র ৮১ রান করতে পারলেই তামিমকে হটিয়ে টেস্টে দেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হবেন মুশফিক। উইকেটরক্ষক হিসেবে ৫২ টেস্টে খেলেছেন, সে ম্যাচগুলোয় তার রান অবশ্য ৩৪৫৫। আর ১৭৯ রান করতে টেস্ট ইতিহাসের নবম সেরা উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান হয়ে যাবেন অস্ট্রেলিয়ার রডনি মার্শকে পেছনে ফেলে।
monarchmart
monarchmart