সোমবার ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ নভেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

নীলফামারীতে বিদ্যালয় মাঠে বর্জ্য, অস্বস্তিতে শিক্ষার্থী

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ একটি শিল্পকারখানা বর্জ্য নীলফামারী সদরের ফুলতলা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠের একপ্রান্তে ফেলা হচ্ছে। ফলে ওই সব বর্জ্যরে দুর্গন্ধে পরিবেশ দূষিত হয়ে পড়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পাশাপাশি অস্বস্তিতে পড়েছে ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও ফুলতলা গ্রামের বাসিন্দারা। শুক্রবার স্থানীয়রা জানায়, উত্তরা ইপিজেডের একটি কারখানা থেকে ট্রাকে এনে মাহবুব নামের একজন ঠিকাদার ওই বর্জ্য ফেলেছে।

পরিবেশ দূষণের অভিযোগ করে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এসএম মজিবুল হক উত্তরা ইপিজেডের ভেনচুড়া ফ্যাক্টরি বিডি লিমিটেডের ব্যবস্থাপক বরাবরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানায়। এলাকাবাসীর অভিযোগ, ওই বর্জ্য ফেলার পর থেকে এলাকায় অসহ্য গন্ধ ছড়িয়ে পড়েছে। এতে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসী। ওই বিদ্যালয়ের সঙ্গেই বাড়ি সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী জেবা আফ্রিয়া বলে, ‘দুর্গন্ধের কারণে ক্লাসে থাকা যায় না। লেখাপড়ায় মনোযোগ দিতে পারছি না। মাঠে খেলাধুলাও করা যাচ্ছে না। ’ অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র আলিফ ইসলাম বলে,‘ বিদ্যালয়ের মাঠের পাশেই আমার বাড়ি, বাড়িতেও দুর্গন্ধ আসে, দুর্গন্ধের কারণে বিদ্যালয়েও থাকা যায় না। এতে বিদ্যালয়ের লেখাপড়ার ব্যাঘাত হচ্ছে, বাড়িতেও লেখাপড়ায় মনোযোগ দিতে পারছি না।’ এ ব্যাপারে, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এসএম মজিবুল হক বলেন, ‘অভিযোগের পর বর্জ্য ফেলানো বন্ধ হয়েছে। কিন্তু ফেলানো বর্জ্য অপসারণের কথা ছিল। সেটি না করায় সমস্যা হচ্ছে। সূত্র জানায়, উত্তরা ইপিজেড থেকে বিভিন্ন কারখানার বর্জ্য অপসারণে ঠিকাদার নিযুক্ত রয়েছে।

সে ক্ষেত্রে ওই কারখানার বর্জ্য অপসারণ কাজে নিযুক্ত ঠিকাদার কুতুব উদ্দিন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ওই বর্জ্য আমি ফেলিনি। আমার কাছ থেকে কিনে নিয়ে অন্যজন ফেলেছে। পরে খোঁজ নিয়ে জানা যায় কুতুব উদ্দিনের ঠিকাদারি লাইসেন্স ভাড়া নিয়ে মাহবুব নামের একজন ঠিকাদার ওই বর্জ্য সেখানে ফেলেছেন। এ বিষয়ে মাহবুব ঠিকাদার সাংবাদিকদের বলেন আমি কুতুব উদ্দিনের লাইসেন্স ভাড়া নিয়ে সেখান থেকে বর্জ্য অপসারণ করি। লেবু মিয়া নামের এক ব্যক্তি আমার কাছ থেকে বর্জ্য নিয়ে বিদ্যালয়ের মাঠের পাশে ডোবা ভরাট করার কথা বলে নিয়েছেন। আমি তাদের বলেছিলাম বর্জ্য ফেলার পর সেখানে মাটি চাপা দিতে। এদিকে উক্ত লেবু মিয়া এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বর্জ্য থেকে দুর্গন্ধ ছড়াবে এটা বুঝতে পারিনি।

এ বিষয়ে ভেনচুরা লেদার ম্যানুফ্যাকচার বিডি লিমিটেডের ব্যবস্থাপক মোঃ সারোয়ার হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, এসব গার্মেন্টস ওয়েস্ট (বর্জ্য) আমরা ফেলি না। আমাদের নিযুক্ত ঠিকাদার অপসারণ করে থাকেন। প্রধান শিক্ষকের ওই পত্রটি পাওয়ার পর আমি বিষয়টি জেনেছি। সেখানে একটি ডোবা বন্ধ করার জন্য আমাদের নিযুক্ত লোকের কাছ থেকে ওই এলাকার লেবু মিয়া বর্জ্য নিয়ে ফেলেছেন। যারা নিয়ে গেছেন দায়িত্ব তাদেরই। এরপরও বিষয়টি নিয়ে আমি লেবু মিয়া এবং প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলেছি।

শীর্ষ সংবাদ:
দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে         ব্যাটিং ব্যর্থতায় ম্লান বোলিং সাফল্য         মিল্কি ওয়ের প্রথম ‘পালক’         সরকারী কাস্টডিতে নেই খালেদা, তিনি মুক্ত         ঢাকায় বিশ্ব শান্তি সম্মেলন ৪ ডিসেম্বর শুরু         ওমিক্রন প্রতিরোধে সতর্ক অবস্থায় সারাদেশ         সাদা পোশাকে দেশে সবার ওপরে মুশফিক         সাগরে জলদস্যুতায় যাবজ্জীবন দন্ড         গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন, ৪১ বছর পূর্তির আয়োজন         কুয়েতে পাপুলের সাত বছরের কারাদন্ড         পাকি প্রেম দূরে রাখুন         বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরিতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ         ‘মোকাবেলা করে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে ’         তৃতীয় ধাপের সহিংসতাহীন নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে দাবি ইসির         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৩         করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সতর্কবার্তা         পরিবহন সেক্টর কার নিয়ন্ত্রণে : জি এম কাদের         সংসদে নির্বাচন কমিশন গঠনে আইন আনা হচ্ছে শিগগিরই ॥ আইনমন্ত্রী         বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী সৌদির ৩০ কোম্পানি         আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে নগর পরিবহন চালু সম্ভব নয় : মেয়র তাপস